মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৪, ১১ বৈশাখ ১৪২১
রানা প্লাজা ধসের এক বছর ॥ স্বজনরা প্রতীক্ষায়
০ আহত ও নিহতদের পরিবারের অনেকেই ক্ষতিপূরণ পায়নি
০ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দায়ের মামলার তদন্ত কাজও শেষ হয়নি
০ এখন পর্যন্ত চার্জশীট দেয়া হয়নি রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার বিরুদ্ধে
০ আহতদের অনেকে সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেছে
০ দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া ৭৪ শতাংশ শ্রমিক এখনও কাজে ফিরতে পারেনি
রহিম শেখ রাজধানীর অদূরে সাভারে রানা প্লাজা ধসের সেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত বছরের ২৪ এপ্রিলের এদিনে ভবন ধসে পাঁচটি পোশাক কারখানার এক হাজার ১৩২ জন শ্রমিক-কর্মচারী নিহত হন। ঘটনায় আহত হন আরও কয়েক হাজার। এদের অনেকেই সারা জীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেছেন। পরিচয়-সঙ্কটের কারণে ক্ষতিপূরণের অর্থ পৌঁছায়নি প্রায় দুই শতাধিক নিহত ব্যক্তির পরিবারের কাছে। ক্ষতিপূরণের আশায় প্রতীক্ষার প্রহর গুণছেন স্বজনহারা পরিবারগুলো। এখন পর্যন্ত যেটুকু মিলেছে তাও যথেষ্ট নয় বলে মনে করছে শ্রমিক সংগঠনগুলো। আলোচিত . . .
দুই শিবিরে বিভক্ত বিশ্বের পোশাক ক্রেতারা ॥ ড. ইউনূসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব পাত্তা দেয়নি
নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন
হামিদ-উজ-জামান মামুন ॥ পোশাক শিল্পের উন্নয়নে পোশাকের দাম বাড়ানো বিষয়ে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের দেয়া প্রস্তাবকে পাত্তা দেয়নি বিশ্বের পোশাক ক্রেতারা। সাভারের রানা প্লাজা ধসের প্রেক্ষাপটে এ প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ গ্রামীণ ব্যাংকসহ নানা ইস্যুতে ব্যাপক সবর থাকলেও এ বিষয়ে কোন গুরুত্ব দেয়নি। উল্টো পৃথিবীর সর্ববৃহৎ দুটি পোশাক ক্রেতা সংগঠন কারখানা পরিদর্শনের নামে একে অপরের বিরুদ্ধে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েছে। এমনই চিত্র ফুটে উঠেছে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় প্রকাশিত ব্যাটল . . .
গার্মেন্টস নিয়ে অপপ্রচার করলে আইনানুগ ব্যবস্থা
প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্তদের দেয়া হয়েছে ২২ কোটি ১৩ লাখ
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ সাভারের আলোচিত রানা প্লাজা ধসের ঘটনাকে পুঁজি করে নেতিবাচক অপপ্রচারের মাধ্যমে একটি কুচক্রী মহল দেশের গার্মেন্টস শিল্পকে ধ্বংসের পাঁয়তারা চালাচ্ছে- এমন অভিযোগ করে জাতীয় অর্থনীতির প্রাণশক্তি এই গার্মেন্টস শিল্প রক্ষায় সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেছে সরকার ও পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। তাঁরা সাফ জানিয়ে দিয়েছে- দেশ, রাষ্ট্র ও শিল্পের বিরুদ্ধে অসত্য অপপ্রচার প্রমাণিত হলে অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর . . .
উজানের পানির তোড়ে ভেসে গেছে বিএনপির লংমার্চ আন্দোলন
দেশ-বিদেশের মিডিয়াকর্মীরা তুলতে পারেনি ধু ধু বালুচরের ছবি
নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট, ২৩ এপ্রিল ॥ তিস্তা নদীর পানির তোড়ে ভেসে গেছে বিএনপির লংমার্চ কর্মসূচী। পানি শূন্য ধু-ধু বালুচরে পরিণত হওয়া মৃতপ্রায় তিস্তা নদীকে বাঁচাতে বিএনপি দুই দিনের লংমার্চের কর্মসূচী পালন করেছে। ২৩ এপ্রিল তিস্তা নদীর পানিপ্রবাহের ন্যায্য হিস্যা দাবিতে আন্তর্জাতিকভাবে জনমত সৃষ্টি করতে বিএনপি এই কর্মসূচীর ডাক দেয়। লংমার্চ কর্মসূচী নিয়ে সরকার ও প্রতিবেশী দেশ ভারত কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছিল। সরকার সব সময় দাবি করে আসছে ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্বের সর্ম্পক রয়েছে। যে কোন সময় তিস্তা নদীর পানির . . .
১২ রাজ্যে আজ ১১৭ আসনে ভোট, পানি পাচ্ছে না গুজরাট মডেল
কাওসার রহমান ॥ আজ অগ্নিপরীক্ষা রাষ্ট্রপতি তনয় অভিজিতের। রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর তাঁরই ছেড়ে দেয়া আসনে উপনির্বাচনে মাত্র আড়াই হাজার ভোটে জিতেছিলেন তিনি। এবার লোকসভা নির্বাচনেও পশ্চিমবঙ্গের মুর্শীদাবাদ জেলার জঙ্গিপুর আসনে কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে আছেন অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। তবে এবার তৃণমূল কংগ্রেসের সারদা কেলেঙ্কারির সঙ্গে তাঁর নামও আসায় নতুন দুশ্চিন্তা যোগ হয়েছে। ফলে ভোটযুদ্ধে চতুর্মুখি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন মুখে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের তনয়। জঙ্গিপুরসহ বৃহস্পতিবার ভারতের ১২টি রাজ্যে ষষ্ঠ দফা ভোটগ্রহণ . . .
প্রতিজেলায় টেকনিক্যাল কলেজ, ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে ভোকেশনাল শিক্ষা
আইডিইবির জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি আত্মনির্ভরশীল দেশ গড়তে সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেছেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন বিএনপি-জামায়াত জোটের নির্বিচারে মানুষ হত্যা, জ্বালাও-পোড়াওসহ ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ দেখে অনেকে মনে করেছিল দেশের অর্থনীতি ভেঙ্গে পড়বে। কিন্তু আমরা বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য মোকাবেলা করেছি, দেশকে সঠিক পথে এগিয়ে নিয়ে যেতেও সক্ষম হয়েছি। অনেকে আমাদের অগ্রগতি পছন্দ করে না। তারা জাতিকে পরনির্ভর করে রাখতে চায়। কিন্তু আমরা অরাজকতা ও সহিংসতামুক্ত একটি সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ণ জাতি গঠন . . .
তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় বিদ্যুত ব্যবস্থা হঠাৎ বিশৃঙ্খল
স্টাফ রিপোর্টার ॥ তাপমাত্রা না কমলে বিদ্যুত পরিস্থিতির উন্নতি হবে না। এককভাবে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুত উৎপাদনকারী কেন্দ্রটি বিকল হওয়ার পাশাপাশি তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় বিদ্যুত বিতরণ ব্যবস্থা হঠাৎ করে বিশৃঙ্খল হয়ে পড়েছে। বুধবার গ্রীষ্ম মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাঙ্গামাটিতে ৪১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর এদিন রাজধানীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীতে দিনে রাতে অন্তত পাঁচ ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে। আর গ্রামের পরিস্থিতি আরও খারাপ। আবহাওয়া অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে, সহসাই বৈশাখের ঝড়ো হাওয়ার . . .