মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২৫ এপ্রিল ২০১৭, ১২ বৈশাখ ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সাভার দখলকারীদের নেতৃত্বেই উচ্ছেদ অভিযান

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৬, ০৭:৪২ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, সাভার ॥ সাভারে সড়ক ও জনপথের জমি দখলকারীদের নের্তৃত্বেই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। তাই, এ উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বড় ধরনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না করে শুধুমাত্র উচ্ছেদের নামে সড়কের পাশের ছোট ছোট টং দোকান ও ভাসমান স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা। শনিবার দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভার মডেল থানাধীন উলাইল এলাকায় এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সরেজমিনে উলাইল এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সড়ক ও জনপদে জমি দখলকারীদের কোন নির্বাহী ম্যাজিট্রেটের উপস্থিতি ছাড়াই সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মচারী দুলালের নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে। অজ্ঞাত কারনে বড় বড় অবৈধ স্থাপনা অক্ষত রেখে লোক দেখানো অভিযান হিসেবে ছোট ছোট টং দোকান, বাঁশের বেড়া, সিমেন্টের খুঁটিসহ ভাসমান কিছু স্থাপনা উচ্ছেদ করতে দেখা যায়। তাই, মাঝে মাঝেই এ ধরনের লোক দেখানো অভিযান পরিচালনা করা হলেও কার্যত কোন সুফল পাওয়া যাবে না বলে মনে করেন আনেকেই। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী সুজন মিয়া জানান, তিনি মহাসড়কের পাশে ছোট একটি চায়ের দোকান করে পরিবারের সকলকে নিয়ে কোন রকমে জীবন ধারণ করে আসছেন। আজকে হঠাৎ করে দোকান ভেঙ্গে দেয়ায় তার এখন পথে বসা ছাড়া আর কোন কিছু করার নেই। তার অভিযোগ, সড়ক ও জনপদের সরকারী কর্মচারীরা অজ্ঞাত কারণে প্রভাবশালী ও ধনী ব্যক্তিদের বড় বড় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না করে গরীবের পেটে লাথি মারছে। মহাসড়কের গেন্ডা এলাকায় সওজের জমিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মান করে বিদ্যুৎ লাইন নিয়ে বরফ কল চালাচ্ছে এক ব্যক্তি। তাদের স্থাপনা না ভেঙ্গে অভিযানের সময় ওই ব্যক্তিকে সওজের বুলড্রোজারের ভিতর বসে থেকে উচ্ছেদ অভিযানের নের্তৃত্ব দিতে দেখা যায়। এ সময় তিনি প্রশ্ন তুলেন- উচ্ছেদ অভিযান কি শুধু গরীবের জন্য? এ নিয়ে কথা বলতে চাইলে উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্ব দেয়া দুলাল সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হয়নি।

এ ব্যাপারে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অভিযানের দায়িত্বে থাকা উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সামসুজ্জোহা বলেন, তিনি এখন যোগাযোগ মন্ত্রীর সাথে ব্যস্ত আছেন। পরে এ ব্যাপারে কথা বলবেন।

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৬, ০৭:৪২ পি. এম.

২০/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: