২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উচ্চ প্রিমিয়ামের বলি সাধারণ বিনিয়োগকারী


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আবারও উচ্চ প্রিমিয়াম বা অধিমূল্যের বলি হলেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। গত কিছুদিন ধরে অধিক প্রিমিয়ামে বাজারে আসা কোম্পানিগুলোর দর বরাদ্দ মূল্যের নিচে বা কাছাকাছি চলে এলেও সোমবারে প্রথমবারের মতো লেনদেন শুরুর দিনেই বরাদ্দ মূল্যে চলে এসেছে। উভয় বাজারেই তালিকাভুক্তির প্রথম দিনেই বরাদ্দ মূল্যে লেনদেন হয়েছে রিজেন্ট টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের শেয়ার। দিনটিতে কোম্পানির শেয়ারের দর দেশের প্রধান পুুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দিনশেষে দর বেড়েছে মাত্র ৫০ পয়সা। শতকরা হিসাবে দর বৃদ্ধির এ হার মাত্র ২ শতাংশ। ১৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২৫ টাকা বরাদ্দ মূল্যে আইপিও অনুমোদন পাওয়া এ কোম্পানির শেয়ারের দর দিনশেষে দাঁড়িয়েছে ২৫.৫০ টাকা।

সাধারণত বড় ধরনের মুনাফার আশায় আইপিওতে আবেদন করে থাকেন বিনিয়োগকারীরা। কিন্তু প্রথম দিনে মাত্র ২ শতাংশ দর বাড়ার কারণে এ কোম্পানির আইপিওতে শেয়ার বরাদ্দ পাওয়া বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বড় ধরনের হতাশা দেখা দিয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি ব্রোকারেজ হাউসে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, এই কোম্পানিটির শেয়ারের প্রথম দিনে আইপিও বিজয়ীরা কোন লাভের মুখ দেখেনি। উল্টো শেয়ার বিক্রি করলে কমিশন নিজের পকেট থেকে দিতে হবে। কারণ ব্রোকারেজ হাউস কমিশন বাবদ সর্বোচ্চ ১ টাকা পর্যন্ত কর্তন করে থাকে। তবে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছে প্রবাসী কোটায় আবেদনকারীরা। ব্যাংক ড্রাফটসহ অন্যান্য খরচ মিটিয়ে তাদের প্রতিটি শেয়ারের দর পড়েছে ৩২ টাকা। কিন্তু বাজারে তা বিক্রি করতে হচ্ছে ২৫ টাকায়। সুতরাং কোম্পানি প্রিমিয়াম বাবদ শুধু ৭৫ কোটি টাকা বাজার থেকে তুলে নিয়ে গেছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়ল।

পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরুর প্রথমদিনে দর বৃদ্ধির এমন ঘটনাকে নজিরবিহীন বলে জানিয়েছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। ডিএসইর সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আহমেদ রশীদ লালী বলেন, কোন কোম্পানির লেনদেন শুরুর প্রথমদিন এত কম দর বাড়ার ঘটনা আমার জানা নেই। প্রথমবারের মতো কোন কোম্পানির শেয়ারের দর বৃদ্ধির ক্ষেত্রে মাত্র ৫০ পয়সা দর বেড়েছে। তিনি আরও বলেন, গত কয়েকদিন ধরে এমনিতেই বাজারে মন্দা চলছে তারও প্রভাব পড়েছে এ কোম্পানির শেয়ারের দরবৃদ্ধিতে। এছাড়া নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানির লেনদেন শুরুর প্রথম ৩০ কার্যদিবস মার্জিন লোন বা প্রান্তিক ঋণ সুবিধা বন্ধ করে দেয়ার কারণেও কোম্পানির শেয়ারের দরে প্রভাব পড়েছে। অতিরিক্ত প্রিমিয়ামের বিষয়ে তিনি বলেন, বিএসইসি দেখেশুনে কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দিয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে প্রিমিয়ামের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা ঠিক হবে না।

যোগ্যতার তুলনায় কোম্পানিগুলো বেশি হারে প্রিমিয়াম পাওয়ায় এমন হচ্ছে বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবু আহমেদ। তিনি বলেন, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া কোম্পানিগুলো যোগ্যতার চেয়ে বেশি প্রিমিয়াম পাচ্ছে। প্রিমিয়ামের নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। যে কারণে লেনদেনে শেয়ার দর বাড়ছে না। এছাড়া তিনি আরও বলেন, নতুন শেয়ারে প্রান্তি ঋণ সুবিধা বন্ধ করার ঘোষণায় শেয়ার দর বৃদ্ধিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সোমবার রিজেন্ট টেক্সটাইলের শেয়ার সর্বোচ্চ দর উঠে ৩১ টাকা। সর্বনিম্ন দর ছিল ২৫.২ টাকা। এদিন কোম্পানিটির ১ কোটি ১৪ লাখ ৭১ হাজার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনকৃত শেয়ারের দর ৩০ কোটি ৪২ হাজার টাকা। উল্লেখ্য, রিজেন্ট টেক্সটাইল ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ১৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২৫ টাকা দরে ৫ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ১২৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে।

চলতি বছরে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির পর রিজেন্ট টেক্সটাইলসহ ১২টি কোম্পানির লেনদেন শুরু হয়েছে। এসব কোম্পানির মধ্যে লেনদেনের প্রথমদিনে সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ৩৭ শতাংশ, কেডিএস এক্সসরিজের ৩২৩.৫ শতাংশ, আমান ফিডের ১৭২ শতাংশ, অলিম্পিক এক্সেসরিজের ৩৯১ শতাংশ, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজের ৩৭.৩১ শতাংশ, বিএসআরএম লিমিটেডের ১২৫.৭১ শতাংশ, জাহিন স্পিনিংয়ের ১৪৩ শতাংশ, ইফাদ অটোসের ১২৫.৬৭ শতাংশ, সি এ্যান্ড এ টেক্সটাইলের ১২০ শতাংশ ও ন্যাশনাল ফিডের ৩২৫ শতাংশ দর বেড়েছিল। এদের মধ্যে সবচেয়ে কম দর বেড়িছেল শাশা ডেনিমসের। প্রথমদিন আইপিও বরাদ্দ মূল্যের তুলনায় ৫.৪৩ শতাংশ দর বেড়েছিল এ কোম্পানির। তার চেয়েও কম দর বেড়েছে রিজেন্ট টেক্সটাইলের।