ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

দুবাই গেল জাতীয় ক্রিকেট দল

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২১:৩৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

দুবাই গেল জাতীয় ক্রিকেট দল

মিরপুর থেকে বিমানবন্দর যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা

টানা পরাজয়ের মাঝপথে শুধু দুটি ছেদ পড়েছে। সর্বশেষ ১৮ টি২০ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ২ জয় আফগানিস্তান ও জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে। আরেকটি পরিত্যক্ত ম্যাচ ব্যতীত সবই হেরেছে বাংলাদেশ। টানা পরাজয় থেকে এবার ঘুরে দাঁড়ানোর রাস্তা খুঁজছে বাংলাদেশ দল। এজন্য প্রস্তুতি হিসেবে আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ২ ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ২৫ ও ২৭ সেপ্টেম্বর দুবাইয়ে অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচ খেলতে বৃহস্পতিবার বিকেলেই ঢাকা ছেড়েছে বাংলাদেশের টি২০ দল। আরব আমিরাতের বিপক্ষে প্রথমবার দ্বিপক্ষীয় এই সিরিজে আবারও নুরুল হাসান সোহান পেয়েছেন নেতৃত্ব।

কারণ ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (সিপিএল) খেলার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকে আগেই অনাপত্তিপত্র বা এনওসি নিয়েছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তার অনুপস্থিতিতে আবার দলের নেতৃত্বে সহঅধিনায়ক সোহান দেশ ছাড়ার আগে প্রত্যয় জানিয়েছেন জয়ের ধারায় ফেরার। কারণ জিততে হলে তিনি দাবি করেছেন, একটি জয়ই আবার দলকে পুরোপুরি বদলে দেবে। তবে এই সফরে অধিনায়ক সাকিবকে দল অনেক মিস করবে বলে জানিয়েছেন সোহান।
গত মাসের শুরুতে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের টি২০ সিরিজে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক করা হয় সোহানকে। টানা ব্যর্থতার জেরে বিশ্রাম দেয়া হয় নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে। যদিও গুঞ্জন ছিল তাকে সরিয়ে সাকিব আল হাসান অধিনায়কত্ব পাচ্ছেন। কিন্তু তিনি ওই সফরে অনুপস্থিত থাকায় সোহান পেয়ে যান নেতৃত্ব। তবে এরপর এশিয়া কাপে ঠিকই সাকিব অধিনায়কত্ব করেছেন। সাকিবকে অধিনায়ক করে আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপের স্কোয়াডও ঘোষণা করা হয়। তবে বিসিবির লক্ষ্য দল টি২০ ক্রিকেটে টানা ব্যর্থতার যে বৃত্তে বন্দী হয়েছে, সেখান থেকে বেরিয়ে আসার জন্য বিশ্বকাপের আগে ভালভাবে প্রস্তুত হওয়া।

সেই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে দেশের বাইরে অনুশীলন ক্যাম্প করার পরিকল্পনা নেয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে বিসিবির ২ ম্যাচ টি২০ সিরিজ আয়োজন নিশ্চিত হয়। ফ্রেন্ডশিপ টি২০ সিরিজের ম্যাচ দুটি দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী ২৫ ও ২৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। দুটি ম্যাচই ফ্লাডলাইটের আলোয় অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ সময় অনুসারে রাত ৮টায় উভয় ম্যাচ মাঠে গড়াবে। টানা পরাজয়ের পর এখন জয়ের ধারায় ফেরার লক্ষ্য বাংলাদেশ দলের। কারণ টানা ব্যর্থতায় দলের কম্বিনেশন যেমন অগোছালো হয়েছে, তেমনি দলের অবস্থাও এখন বিপর্যস্ত। এ বিষয়ে সোহান বিমানবন্দরে বলেন, ‘টি২০তে গত কয়েক ম্যাচ হারলেও যদি জেতার অভ্যাস করতে পারি তাহলে টিম কম্বিনেশন ও দলের চেহারা বদলে যাবে। এই লক্ষ্যই থাকবে।’
আরব আমিরাতের বিপক্ষে আগে মাত্র ১ বারই আন্তর্জাতিক টি২০ খেলেছে বাংলাদেশ দল। ২০১৬ টি২০ এশিয়া কাপে হওয়া সেই ম্যাচে বাংলাদেশ সহজ জয় পায়। এবার তাই প্রথম তাদের বিপক্ষে টি২০ সিরিজ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। র‌্যাঙ্কিংয়ে অবশ্য খুব একটা পিছিয়ে নেই আরব আমিরাত। বাংলাদেশ আছে ৯ নম্বরে আর আরব আমিরাতের অবস্থান যৌথভাবে ১৪ নম্বরে। তবে বাংলাদেশ টেস্ট খেলুড়ে দেশ আর আরব আমিরাত আইসিসির সহযোগী সদস্য। কিন্তু আন্তর্জাতিক ম্যাচ বলেই এ বিষয়ে সোহান বলেন, ‘বাংলাদেশের হয়ে প্রতিটি ম্যাচ খেলাই গর্বের ব্যাপার। আশা করছি বিশ্বকাপের আগে ভাল একটা প্রস্তুতি হবে।
যদি জিতে আসতে পারি তাহলে এই আত্মবিশ্বাস নিউজিল্যান্ড সফর ও বিশ্বকাপে কাজে লাগবে।’ এই সফর শেষ করে ২৮ সেপ্টেম্বর দল ফিরবে এবং ৩০ সেপ্টেম্বর নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজ খেলবে। সেখানে ২ অক্টোবর দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার কথা ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ থেকে আসা সাকিবের। তাই আপাতত সাকিবকে ছাড়াই মিশন বাংলাদেশের। এ বিষয়ে সোহান বলেন, ‘অবশ্যই, সাকিব ভাইয়ের মতো খেলোয়াড়কে সবাই সবসময় দলে চায়। তবে তার অনুপস্থিতি আরেকজনের জন্য সুযোগ, যে তার জায়গায় খেলবে সে নিজেকে প্রমাণ করতে পারে।’