ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

সাভারে ৩৫ শতাংশ ট্যানারি স্থানান্তরিত হয়েছে

প্রকাশিত: ০৩:৫৬, ১২ জুন ২০১৭

সাভারে ৩৫ শতাংশ ট্যানারি স্থানান্তরিত হয়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সাভারের ট্যানারি শিল্প নগরীতে ৩৫ শতাংশ ট্যানারি স্থানান্তরিত হয়েছে বলে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু জাতীয় সংসদকে জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টির নূরুল ইসলাম মিলনের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হাজারীবাগ থেকে ৩৫ শতাংশ ট্যানারি সাভারে স্থানান্তরিত হয়েছে। বাকিগুলো তাদের ভবন নির্মাণ ও ড্রাম মেশিনারি স্থাপন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। মন্ত্রী জানান, সাভারে বরাদ্দপ্রাপ্ত ১৫৪টি ট্যানারির মধ্যে ৫৫টি ওয়েট ব্লু উৎপাদন শুরু করেছে। শিগগিরই আরও কিছু ট্যানারি তাদের উৎপাদন কার্যক্রম আরম্ভ করবে। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হাজারীবাগ হতে স্থানান্তর কার্যক্রমের জন্য সাময়িক বিঘœ ঘটলেও যে সব ট্যানারি শিল্প প্রতিষ্ঠান সাভারে উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করেছে, তাদের উৎপাদন আগের তুলনায় বৃদ্ধি পাবে এবং চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানির হার বৃদ্ধি পাবে। প্রবৃদ্ধি ৬.৮ শতাংশ হবে ॥ আইএমএফ অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ চলতি ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে দেশের মোট দেশজ উৎপাদনে প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে দাতা সংস্থা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল। অবশ্য সরকার বলছে, এ বছর জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ২৪ শতাংশ। সম্প্রতি এই পূর্বাভাস দেয় আইএমএফ। আর্টিকেল ফোর মিশনের আওতায় এই পর্যালোচনা করেছে সংস্থাটি। আইএমএফ বলছে, গত অর্থবছরের তুলনায় গড় মূল্যস্ফীতি প্রায় ১ শতাংশ বেড়ে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হবে। এছাড়া আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আইন চালুর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে আইএমএফ। সংস্থাটি বলছে নতুন ভ্যাট আইনটি কর প্রশাসনে উন্নতি আনবে। এতে রাজস্ব আদায় বাড়বে। আইএমএফ বলেছে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশের কাছাকাছি যাবে। কুমিল্লায় জমে উঠেছে খাদি কাপড়ের বাজার অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ঈদ সামনে রেখে কুমিল্লায় জমে উঠেছে খাদি কাপড়ের বাজার। বিভিন্ন জায়গা থেকে ক্রেতারা আসছেন পছন্দের পোশাক কিনতে। তবে কিছুটা ভিন্ন চিত্র ভৈরবে। এখনও পুরোপুরি জমে উঠেনি কেনাকাটা। চলছে খাদি কাপড়ে নক্সার কাজ। সামনে ঈদ। তাই কারিগরদের ব্যস্ততা একটু বেশিই। রমজানের সপ্তাহখানেক যেতেই জমে উঠেছে কুমিল্লার খাদি কাপড়ের বাজার। নগরীর রাজগঞ্জ, মনোহরপুর, কান্দিরপাড় ও লাকসামের দোকানগুলোতে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে কেনাকাটা।