সোমবার ৪ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

সপ্তম ব্যালন ডি অর জিতলেন লিওনেল মেসি

সপ্তম ব্যালন ডি অর জিতলেন লিওনেল মেসি

অনলাইন ডেস্ক ॥ বছরের সেরা ফুটবলারের পুরষ্কার, ব্যালন ডি অর আরও একবার জিতলেন আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি ।

অপর দিকে বার্সেলোনার নারী দলের অধিনায়ক অ্যালেক্সিয়া পুটেয়াস নারী ফুটবলে ব্যালন ডি অর জিতেছেন । ২০২০-২১ মৌসুমে ২৬টি গোল করেছেন তিনি।

মেসি ২০২১ সালে আর্জেন্টিনাকে দক্ষিণ আমেরিকান মহাদেশীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকা জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাছাড়া প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের হয়ে খেলছেন তিনি। ২০২১ সালে ৪০ গোল করেছেন মেসি। গোলগুলির মধ্যে বার্সেলোনার হয়ে ২৮টি, পিএসজির হয়ে চারটি এবং আর্জেন্টিনার হয়ে আট গোল করেছেন এই ফরোয়ার্ড ।

বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ান্দভস্কি দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন। ইতালির হয়ে ইউরো ও ইংলিশ ক্লাব চেলসির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী মিডফিল্ডার জর্জিনিও তৃতীয় হয়েছেন। স্প্যানিশ ক্লাব রেয়াল মাদ্রিদের ফরাসী ফরোয়ার্ড কারিম বেনজেমা হয়েছেন চতুর্থ।

বিশ্বের ১৮০ জন সাংবাদিকের ভোটে এই পুরষ্কারটি দেয়া হয়, ২০২০ সালে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এই পুরষ্কার দেওয়া হয়নি। ২০০৮ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত লিওনেল মেসি ও পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এই পুরষ্কার জিতেছেন টানা, ব্যতিক্রম কেবল ২০১৮ সাল, যেবার ক্রোয়েশিয়াকে বিশ্বকাপের ফাইনালে তুলে লুকা মদ্রিচ জিতেছেন ব্যালন ডি অর।

মেসি এর আগেই ব্যালন ডি অর জয়ীদের মধ্যে এগিয়ে ছিলেন, এবারে নিজেকে আরও একধাপ ওপরে নিয়ে গেলেন।

২০০৯ সালে তিনি প্রথম ব্যালন ডি অর জেতেন, এরপর ২০১০, ২০১১ ও ২০১২ সালে টানা তিনবার এই বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরষ্কারটি পান তিনি। ২০১৫ ও ২০১৯ সালেও লিওনেল মেসি ব্যালন ডি অর তালিকায় প্রথম স্থানে ছিলেন।

প্যারিসে জমকালো এই অনুষ্ঠানে মেসি বলেন, এখানে থাকতে পারাটা দারুণ একটা ব্যাপার। দুই বছর আগে ভেবেছিলাম এটাই আমার শেষ। মানুষ আমাকে প্রশ্ন করছিল আমি কবে অবসরে যাবো কিন্তু এখন আমি প্যারিসে আছি এবং খুবই খুশি।

মেসি কোপা আমেরিকা জয়ের উচ্ছ্বাসের কথাও প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন "আমার কাছে মারাকানা স্টেডিয়ামে কোপা আমেরিকা জয় এবং আর্জেন্টিনার মানুষের সাথে উদযাপন করাটা অনেক বড় ব্যাপার। আমি জানি না এটাই আমার সেরা বছর কি না। লম্বা ক্যারিয়ার আমার। তবে আর্জেন্টিনার হয়ে কঠিন সময় ও সমালোচনার পর শিরোপা জয়ের সাথে এই পুরষ্কারটা বিশেষ কিছু।"

লিওনেল মেসি রানার আপ হওয়া লেওয়ান্দভস্কিরও প্রশংসা করে বলেছেন, গতবার পুরষ্কার দেয়া হলে তিনিই জিততেন।

২০২১ সালে লেওয়ান্দভস্কি ৫১টি গোল করেছেন, তিনি পেয়েছেন বছরের সেরা স্ট্রাইকারের পুরষ্কার, অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগেই এই নতুন পুরষ্কারের কথা ঘোষণা করে ব্যালন ডি অরের আয়োজক ফরাসী ফুটবল সাময়ীকি ফ্রান্স ফুটবল। মেসির ক্লাব সতীর্থ ইতালিয়ান গোলকিপার জিয়নলুইজি ডোনারামা জিতেছেন সেরা গোলকিপারের পুরষ্কার- যা কিংবদন্তী গোলকিপার লেভ ইয়াশিনের নামে ইয়াশিন ট্রফি হিসেবে পরিচিত।

ইংল্যান্ডের লন্ডনের ক্লাব চেলসি, বছরের সেরা ক্লাব ঘোষিত হয়েছে এই অনুষ্ঠানে।

বছরের সেরা অনুর্ধ্ব ২১ ফুটবলারের পুরষ্কার পেয়েছেন স্পেনের ক্লাব বার্সেলোনার তরুণ মিডফিল্ডার পেদ্রি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী ফরাসী মিডফিল্ডার এনগোলো কান্তে পঞ্চম হয়েছেন। পাঁচবার ব্যালন ডি অর জয়ী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবার হয়েছেন ষষ্ঠ।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

শীর্ষ সংবাদ: