রবিবার ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

যশোরে খেজুর গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত গাছিরা

যশোরে খেজুর গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত গাছিরা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ চলছে উৎসবের ঋতু হেমন্তকাল। এর পরেই আসবে শীতের প্রাণ পৌষ ও মাঘ মাস। কিন্তু এর আগেই প্রকৃতিতে শীত শীত ভাব বিরাজ করছে। এমন পরিবেশ বুঝে যশোরের গাছিরা আগাম খেজুর গাছ পরিচর্যা শুরু করেছেন। যারা খেজুরগাছ রস সংগ্রহের কাজ করে তাদেরকে গাছি বলে। আগাম রস পাওয়ার আসায় যশোরের গাছিরা গাছে রস আনার জন্য পুরোদমে পরিচর্যা শুরু করেছে। গাছ তোলা, ঠিলে ধোয়া, রস জ্বালানোর চুলা তৈরিসহ নানা কাজে ব্যস্ত যশোরের গাছিরা। সরেজমিনে এমন দৃশ্য দেখা গেছে যশোর সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে।

জানা গেছে, যশোরের ঐতিহ্য খেজুরের রস-গুড়-পাটালি। এ জেলার উৎপন্ন গুড়-পাটালি স্বাদে ও সর্বোৎকৃষ্ট। তাই খেজুর গুড়ের প্রসঙ্গ উঠে আসলে সবার আগে যশোরের কথা উঠে আসে। এ জেলায় খেজুর গাছের জন্য একটি গ্রামের নামই হয়েছে খাজুরা গ্রাম। এ গ্রামের অধিকাংশ মানুষই খেজুর গাছের রস এবং চাষের সাথে সম্পৃক্ত।

যশোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলার প্রায় আট উপজেলায় খেজুর গাছ রয়েছে। কিন্তু সবচেয়ে বেশি রয়েছে যশোর সদর, মণিরামপুর, শার্শা, চৌগাছা, বাঘারপাড়ায়। জেলায় ৭ লক্ষ ৯১ হাজার ৫১৪টি খেজুর গাছ রয়েছে। গত বছর ৪ হাজার ৬৪০ মেট্রিক টন গুড়-পাটালি ও প্রায় ৪০ মেট্রিক টন রস উৎপাদন হয়েছে। এবার প্রায় ৫ লক্ষ গুড়-পাটালি উৎপাদন করার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।

যশোরের খাজুরা মাঠপাড়া গ্রামের গাছি আব্দুল জলিল বলেন, যশোরের ঐতিহ্য আজ বিলুপ্তের পথে, কারণ আগের মত খেজুর গাছ এখন আর দেখা যায় না। এবছর ৩০টির মতো খেজুরগাছ পরিচর্যা করছি। আগাম রস আনতে পারলে রস এবং নলেন গুড়-পাটলির ভালো দাম পাবো।

একই এলাকার চাষি নজরুল, ইবাদত, সালাম মোল্লারা জানান, খেজুরগাছ থেকে রস বের করা এবং ভোরে গাছ থেকে রস নামানো খুব কঠিন কাজ এবং ঝুঁকি নিয়ে গাছ কাটা হয়। এতো কষ্ট করেও গুড়ের দাম না পাওয়ায় অনেকে এ কাজে নিরুৎসাহিত হচ্ছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যশোরের উপ-পরিচালক ইমদাদ হোসেন সেখ জানান, যশোরের ঐতিহ্য খেজুর গাছ অনেক কমে গেছে। সরকারিভাবে খেজুর গাছ রোপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বর্তমান প্রজন্মের লোকেরা খেজুরগাছের গুড় সংগ্রহের প্রতি বেশি উৎসাহী না হওয়ায় কিছুটা গাছ কমেছে বলে তিনি মনে করছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
জামিন আবেদন নিষ্পত্তি এক লাখ ॥ ভার্চুয়াল কোর্টের ৩৫ কার্যদিবস         লকডাউন হলো ওয়ারী         ঈদের আগেই শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করুন ॥ কাদের         অনেক বিএনপি নেতা আইসোলেশনে থেকে প্রেসব্রিফিং করে সরকারের দোষ ধরেন ॥ তথ্যমন্ত্রী         পুলিশের বদলির তদবির কালচার বিদায় করতে চান বেনজীর         পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী করোনা আক্রান্ত         অধস্তনদের ওপর দায় চাপিয়ে বাঁচার চেষ্টা নির্বাহীদের ॥ বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল         উত্তরে বন্যা পরিস্থিতির ফের অবনতি হাজার হাজার পরিবার পানিবন্দী         তিনদিনের রিমান্ড শেষে রবিন কারাগারে         বাচ্চাদের সাবান দিয়ে হাত ধুতে বলুন         অহর্নিশ যুদ্ধের জীবন, করোনার ভয় যেন বিলাসিতা!         এখন আকাশের সংযোগ মিলবে ৩৪৯৯ টাকায়         ৬ মাসে ১০৬ নৌ দুর্ঘটনায় নিহত ১৫৩         পাটকল শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা শোধ করা হবে ॥ কেসিসি মেয়র         ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে : সুপ্রিম কোর্ট         ৬ মাসে ১০৬ নৌ দুর্ঘটনায়, ১৫৩ জন নিহত, আহত ৮৪         ভুতুড়ে বিলের ঘটনায় ডিপিডিসির ৫ জন বরখাস্ত         বাংলাদেশকে ৫ কোটি ডলার ঋণ দেবে দ. কোরিয়া         প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়ন কমিটি         রেলে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা হবে না : রেলমন্ত্রী        
//--BID Records