আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ৮ ফাল্গুন ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ভ্যাটিকানে হামলা করতে রোম যায় পাকিস্তানী আত্মঘাতী

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫
  • ষড়যন্ত্র উদঘাটিত

পাকিস্তানের এক মার্কেটে বোমা হামলা চালিয়েছিল বলে সন্দেহভাজন ইসলামী চরমপন্থীরা ২০১০ সালে ভ্যাটিকারের ওপর এক হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল, তবে এ পরিকল্পনা কখনও কার্যকর করা হয়নি। তখন পোপ ষোড়শ জেনেডিক্ট রোমান ক্যাথলিক চার্চের প্রধান ছিলেন। শুক্রবার ইতালির এক প্রসিকিউটর এ কথা জানান। তিনি জানান, ওই হামলা চালানোর জন্য এক পাকিস্তানী আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী রোমে পৌঁছেছিল, তবে কোন হামলা না চালিয়েই সে চলে গিয়েছিল। খবর টেলিগ্রাফ ও ইয়াহুনিউজের।

ইতালির পুলিশ সেই ইসলামী চরমপন্থীদের নেটওয়ার্ককে ভেঙ্গে দিয়েছে। কথিত সন্ত্রাসীরা আলকায়েদার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। ইতালীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, নেটওয়ার্কে ওই দলের প্রধান ওসামা বিন লাদেনের দেহরক্ষী ছিল এমন দুই ব্যক্তিও ছিল। লাদেন ২০১১ সালে পাকিস্তানে মার্কিন বিশেষ বাহিনীর এক অভিযানে নিহত হন।

শুক্রবার ইতালিজুড়ে অভিযান চালানো হয়। এতে সন্দেহভাজন ৯ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। অন্য ৯ জনকে খোঁজা হচ্ছে। তাদের তিনজন ইতালিতে রয়েছে বলে মনে করা হয়। ওই ১৮ জনের সবাই পাকিস্তানী ও আফগান। ১০ বছর ধরে তদন্ত চলতে থাকার পর শেষ পর্যায়ে ওইসব ব্যক্তিকে গ্রেফতার করার নির্দেশ করা হয়। ব্যয়বহুল ভিলাসমৃদ্ধ সার্দিনিয়া দ্বীপে অবৈধ অভিবাসন নিয়েই ওই তদন্তের সূচনা হয়। কিন্তু ওই মানব পাচারের সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহভাজন ব্যক্তিরা ইসলামী চরমপন্থীদের প্রতি সহানুভূতিশীলও ছিল। তারা আফগান ও পাকিস্তানীদের ইউরোপে পাচার করত। তদন্তকারীরা এ কথা জানান। মানবপাচার থেকে অর্জিত অর্থ তালেবান ও আলকায়েদাসহ পাকিস্তানের চরমপন্থী দলগুলোর কাছে পাঠানো হতো বলে অভিযোগ করা হয়। নেটওয়ার্কের প্রধান সদস্যরা হলো সার্দিনিয়ার ওলবিয়া বন্দরের দোকানদার ও দীর্ঘদিনের বাসিন্দা খান সুলতান ওয়ালি এবং নাম জানানো হয়নি এমন এক ইমাম। ওই ইমাম উত্তর ইতালির ব্রেসিয়াতে বাস করেন।

তিনি জানান, পুলিশ সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের টেলিফোন আলাপে আড়ি পেতেছিল। এ আলাপে পোপের ওপর এক সম্ভাব্য হামলার প্রস্তুতি নেয়ার আভাস পাওয়া যায়। সার্দিনিয়ার পুলিশ ২০১০ সালের মার্চে আলকায়েদার এক কথিত সহানুভূতিশীলের বাসভবনে অভিযান চালানোর পর ওই হামলা পরিকল্পনা পরিত্যাগ করা হয়ে থাকতে পারে। এ অভিযানের ফলে হামলার পরিকল্পনাকারীরা ভয়ে সরে গিয়ে থাকতে পারে।

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

২৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: