মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শনিবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৪, ১০ কার্তিক ১৪২১
বাংলাদেশে যা কিছু অশুভ তারই প্রতীক গোলাম আযম
মুনতাসীর মামুন
কোটি মানুষের কান্না, রক্ত, আর্তনাদ আর দীর্ঘ নিশ্বাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর সহযোগী, গণহত্যা ও বাংলাদেশবিরোধী রাজনীতির হুকুমদাতা গোলাম আযম। বাংলাদেশে যে অভিশপ্ত রাজনীতি, জামায়াত যার হোতা তারও একনিষ্ঠ প্রবক্তা ছিলেন গোলাম আযম। বাংলাদেশে যা কিছু অশুভ তার প্রতীক গোলাম আযম। মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইবু্যুনাল গোলাম আযমকে ৯০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল। কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল, তিনি বয়স্ক। এই রায় শোনার পর অনেকে খুব ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। বলা হয়েছিল, গোলাম আযম বা গোলাম আযমরা ১৯৭১ সালে যখন রক্তগঙ্গা . . .
নরপিশাচের অমন সহজ মৃত্যু কামনা করিনি
মারুফ রসূল
গোলাম আযম, নামটি শোনামাত্রই ঘৃণায় সমস্ত গা গুলিয়ে উঠে। মনে হয়-এর চেয়ে ঘৃণ্য, এর চেয়ে জঘন্য কিছু নেই, হতে পারে না। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের অনেক বড় একটি দিক হলো মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা। অনেকেই বলে থাকেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় জামায়াতের ভূমিকা ছিল রাজনৈতিক, কিন্তু আমি তা মনে করি না। জামায়াতে ইসলামী বা তাদের অঙ্গ সংগঠন ইসলামী ছাত্র সংঘ (যা বর্তমানে ইসলামী ছাত্রশিবির) একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী যে ভূমিকা পালন করেছিল, তা ছিল মূলত দর্শনকেন্দ্রিক। তাদের দর্শন ছিল পাকিস্তানপন্থী দর্শন, মৌলবাদী দর্শন। . . .