ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

পিতা-কন্যা জুটি ॥ এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা

প্রকাশিত: ১৩:০১, ৩১ জানুয়ারি ২০১৯

পিতা-কন্যা জুটি ॥ এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা

অনিল কাপুর-মনীষা কৈরালা জুটির একটি সাড়া জাগানো সুপারহিট সিনেমা ‘১৯৪২ এ লাভ স্টোরি।’ যা মুক্তি পায় ১৯৯৪ সালে। ভারতে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনামলের পটভূমিকায় নির্মিত চমৎকার প্রেম কাহিনীর ছবিটির পরিচালক ছিলেন বিধু বিনোদ চোপড়া। ছবিটির জন্য বেশ প্রশংসা পেয়েছিলেন তিনি। এ ছবিতে একটি গান ‘এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা’ প্রচ- জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। প্রখ্যাত গায়ক কুমার শানুর গাওয়া গানটির সুরকার ছিলেন আর ডি বর্মণ। হিন্দী সিনেমার গানে কিংবদন্তি সুরকার ছিলেন আর ডি বর্মণ। সম্ভবত তার সুরারোপিত সর্বশেষ ছবি ছিল ১৯৪২ এ লাভ স্টোরি। এ ছবির গান ‘এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা’ বলিউডের একটি কালজয়ী জনপ্রিয় রোমান্টিক গান হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসা এখনও। সেই জনপ্রিয় গানের কলি থেকে নামকরণ করা হয়েছে নতুন সিনেমা এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগার। যা প্রযোজনা করেছেন বলিউডে বহু সাড়া জাগানো সিনেমার পরিচালক প্রযোজক বিধু বিনোদ চোপড়া। মজার ব্যাপার হলো, নতুন এই সিনেমায় আপন কন্যা সোনম কাপুরের বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অনিল কাপুর। ২৪ বছর আগে রুপালি পর্দায় যে গানে দৃশ্যে চমৎকার অভিনয়ের সুবাদে বাজিমাত করেছিলেন সেই গানের কলি থেকে নামকরণ করা সিনেমায় কন্যা সোনম কাপুরের সঙ্গে প্রথমবারের মতো অভিনয় করেছেন অনিল কাপুর। আজকাল নিজের বয়সের সঙ্গে মানানসই রোলে অভিনয়ের মাধ্যমে ব্যস্ত রাখতে চাইছেন বলিউডের এই ডাকসাইটে তার অভিনেতা। বাবার ভূমিকায়ও তাকে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন সিনেমায়। অনিল কাপুর তনয়া সোনম কাপুরও বলিউডে অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করছেন গত এক যুগ ধরে। এই সময়ে বিভিন্ন ধরনের সিনেমায় অভিনয় করেছেন সোনম একজন ভাল অভিনেত্রী হিসেবে নিজের যোগ্যতা ভাল ভাল বেশ কিছু সিনেমা প্রমাণ করেছেন তিনি। বলিউডে তার সুঅভিনেত্রী পরিচয়টি এখন বেশ চালু হয়ে গেছে। ‘দিল্লি সিক্স’, ‘ভাগ মিলখা ভাগ’, ‘নিরজা’, ‘প্রেম রতন ধন পাও, প্যাড ম্যান, সানজু’, ‘ভিরে ডি ওয়েডিং প্রভৃতি বলিউডি ছবিতে যারা সোনমের অভিনয় দেখেছেন তারা অকুণ্ঠ চিত্তে তার কাজের প্রশংসা করেন। তিনি একজন পরিশ্রমী, গুণী, অভিনেত্রী চলচ্চিত্র বোদ্ধা সমালোচকরা স্বীকার করে নিয়েছেন। বলিউডের নামী-দামী নির্মাতা, ব্যানারের সিনেমায় সুঅভিনয়ের সুযোগ পাচ্ছেন বার বার। যদিও ক্যারিয়ারের প্রথমদিকে অভিনীত সিনেমাগুলোর ক্রমাগত ব্যবসায়িক ব্যর্থতা তাকে চরম অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দিয়েছিল। নিজের ভবিষ্যত নিয়ে সংশয়ের মধ্যে পড়ে গিয়েছিলেন স্বয়ং সোনম কাপুরও। তবে হাল ছেড়ে দেননি তিনি। অনেক বদনাম, অপবাদ তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য উপেক্ষা করতে হয়েছে তাকে একটা সময়ে ‘ফ্লপ হিরোইন’-এর তকমা লেগে গিয়েছিল তার কপালে। তবে বেশ কিছু হিট সিনেমার সুবাদে তার সেই বদনাম ঘুচেছে। গত বছরও সোনম অভিনীত তিনটি সিনেমা ‘সানজু’ ‘ভিরে ভি ওয়েডিং’ এবং ‘প্যাডম্যান ছবিগুলোতে তার অভিনীত চরিত্রগুলো ছিল আলাদা ধরনের। সোনম অভিনীত নতুন সিনেমা ‘এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা’ ছবিতে তার বিপরীতে নায়ক হচ্ছেন রাজ কুমার রাও। আজকাল বলিউডের উদীয়মান ব্যস্ত অভিনেতা হিসেবে তার বেশ পরিচিতি রয়েছে। সোনম প্রথমবারের মতো জুটি বেঁধেছেন তার সঙ্গে। বছরের সবচেয়ে অপ্রত্যাশিত প্রেমের গল্প হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ছবিটির ট্যাগ লাইনে। অনেকগুলো কারণে সোনম কাপুরের নতুন সিনেমা ‘এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা’ দর্শকদের আলাদা মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। গত বছর বিয়ের পিঁড়িতে বসার পর থেকে ঘর সংসারকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন সোনম কাপুর। ৩৩ বছর বয়সী বলিউডের এই সোনম স্টাইলিস্ট আইকন নায়িকা বিবাহিত জীবন নিয়ে বেশি মনোযোগী হলেও অভিনয়টাকে ছাড়তে চাইছেন না। ‘এক লাড়কি কো দেখা তো অ্যায়সা লাগা’ ছবিটি তাকে বলিউডে নতুনভাবে পরিচিত এবং প্রতিষ্ঠিত করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছবিতে নিজের কাজ নিয়ে অনেকটাই আশাবাদী সোনম। আগামীতে তাকে ‘জয়া ফ্যাক্টর’ ছবিতে দেখা যাবে। এ ছবিটি নির্মিত হচ্ছে একটি বিখ্যাত আত্মজৈবনিক উপন্যাস অবলম্বনে। জয়া ফ্যাক্টর ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন সোনম কাপুর।