মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্যাংক লুটেরাদের নাম প্রকাশে বিএনপির আলটিমেটাম

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ব্যাংকিং খাতে লুটপাটকারীদের নাম প্রকাশে ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ আলটিমেটাম দেন।

রিপন বলেন, আমরা জানি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত একজন যোগ্য ব্যক্তি, ওনার মাঝে দেশপ্রেম রয়েছে। এ কারণেই তিনি দুষ্টু লোকদের তালিকা প্রকাশ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। তাই যাদের কারণে দেশের ব্যাংকগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শীঘ্রই তাদের নাম প্রকাশ হওয়া উচিত। বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন বাংলাদেশকে নিম্ন মধ্যআয়ের দেশ উল্লেখ করার বিষয়ে তিনি বলেন এটা জনগণের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফল। এখানে সরকারের কোন অবদান নেই বরং সরকারের লোকেরা যদি লুটপাট না করত তাহলে দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতো।

রিপন বলেন, ভোটারবিহীন নির্বাচনে ক্ষমতায় আসা এ সরকারের আমলে দেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে ব্যাপকভাবে লুটপাট হচ্ছে। এটা আমরা আগেও বলেছি। সরকারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের ভাষায় দুষ্টু লোকেরা রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক থেকে অর্থ লোপাটের সঙ্গে জড়িত। আমরা জানতে চাই, ওই সমস্ত দুষ্টু লোক কারা? যাদের সঙ্গে আপনি পারছেন না। তবে পদত্যাগ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারতেন। এখন মুখ যেহেতু খুলেছেন, ভাল করে মুখ খুলুন। আপনার বয়স হয়েছে, দেশের পক্ষে দেশের অর্থনীতির পক্ষে কথা বলুন। জনগণ আপনাকে বাহবা দেবে। ইতিহাসেও আপনার নাম লেখা থাকবে।

রিপন বলেন, ব্যাংকে যে টাকা জমা হয় তা জনগণের টাকা। বিএনপি জনগণের জন্য রাজনীতি করে তাই পক্ষে কথা বলে। তিনি বলেন, দেশে খেলাপী ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ৩৫ হাজার কোটি টাকা অবলোপনকৃত। এটা সরকার প্রকাশ করেনি। যে পরিমাণ টাকা ঋণ খেলাপী হয়েছে, তা দিয়ে তিনটি পদ্মা সেতু করা যেত। তাই ঋণ খেলাপীদের কারণে দেশের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

রিপন বলেন, প্রধানমন্ত্রী তিন মাসের আন্দোলনের নেতিবাচক বিষয় বারবার তুলে ধরতে চান। কিন্তু বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও করে না। বিএনপি সহিংসতা সমর্থন করে না। আমরা গণতান্ত্রিক পথে এগিয়ে যেতে চাই। আওয়ামী লীগ যদি গত ছয় বছরের লুটপাট বন্ধ করত, তাহলে জিডিপির হার এখন ৭ শতাংশ হয়ে যেত।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির আন্তর্জাাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, ত্রাণবিষয়ক সম্পাদক মেহেদী আহমেদ রুমী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি প্রমুখ।

কারাবন্দী ড. মোশাররফ আইসিইউতে ॥ কারাবন্দী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে হঠাৎ অসুস্থবোধ করায় তাকে কাশিমপুর কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে তিনি আইসিইউতে হাসপাতালের ডাঃ সজল ব্যানার্জির তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর ডাঃ সজল ব্যানার্জি জানিয়েছেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের হৃদরোগ ও ডায়াবেটিস ধরা পড়েছে।

উল্লেখ্য, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুর্নীতি মামলায় ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে রয়েছেন।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

০৩/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: