রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

কুরিয়ারে আম পাঠানো থেকে সাবধান

প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ জেলা শহরসহ তিন উপজেলার একাধিক কুরিয়ার সার্ভিসের বিরুদ্ধে নানা ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। বিশেষ করে আমের এই মৌসুমে চেনা অচেনা শতাধিক কুরিয়ার সার্ভিস নামধারী হামলে পড়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। জনসাধারণ এদের ফাঁদে পা দিয়ে সব কিছু হারাচ্ছে। এমনিক গন্তব্যে আম না পৌঁছে আঁটি পৌঁছাচ্ছে। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে উধাও করা হচ্ছে বা হারিয়ে যাচ্ছে আমের ঝুড়ি। এর মধ্যে বেশ কটি কুরিয়ার সার্ভিস কাজ করছে সুনামের সঙ্গে। তাদের সংখ্যা হাতেগোনা। বিশেষ করে সুন্দরবন ও এসএ পরিবহন ছাড়া কোন নির্ভরযোগ্য কুরিয়ার সার্ভিস নেই এখানে। যত্রতত্র গড়ে ওঠা আম মৌসুমের এসব কুরিয়ার সার্ভিস জনসাধারণকে ধোঁকা দিয়ে প্রতারণা করছে। এমনকি সারা বছর ধরে যেসব কুরিয়ার সার্ভিস শুধু চিঠিপত্র লেনদেনের কাজ করেছে তারাও এই আম মৌসুমে এখান থেকে আম পাঠানো শুরু করেছে ঘোষণা দিয়ে।

আম মৌসুমে সমগ্র জেলা হতে প্রায় প্রতিদিন লাখ খানেক আম ঝুড়ি কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বুক হয়ে থাকে। জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতার অভাবের কারণে আত্মীয়স্বজন বা আপনজনদের কাছে আম পাঠাতে উদগ্রীব হয়ে হাতের সামনে পাওয়া যে কোন কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবহার করে। কিন্তু সে সব আম ঝুড়ি নির্দিষ্ট ঠিকানায় না পৌঁছে গায়েব করে ফেলছে এসব তথাকথিত কুরিয়ার সার্ভিস। তাই আম মৌসুমে সরকার অর্থাৎ শুল্ক কর্তৃপক্ষ যাচাই-বাছাইপূর্বক কুরিয়ার সার্ভিসের অনুমতি ও ভ্যাট প্রয়োগ করলে ব্যাঙের ছাতার মতো তথাকথিত কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠার সুযোগ পেত না।

পাথরঘাটায় ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে ৬ জেলের মুক্তি

সংবাদদাতা, পাথরঘাটা, ১৬ জুন ॥ মুক্তিপণের দাবিতে বঙ্গোপসাগর থেকে ট্রলারসহ অপহরণের ১৪ দিন পর ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে জলদস্যুদের জিম্মিদশা থেকে ছয় জেলে মুক্তি পেয়েছেন।

মঙ্গলবার সুন্দরবনের গহীন অরণ্যে জলদস্যুদের আস্তানা থেকে পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ফিরে আসেন তারা।

ফিরে আসা জেলেরা হলেন লোকমান হোসেন, ইব্রাহিম মিয়া, সোলায়মান মাঝি, খলিলুর রহমান, জাকির হোসেন ও আনিছুর রহমান। জেলেরা জানান, সাগর থেকে অপহৃত জেলেদের সুন্দরবনের গহীনে ১৪ দিন আটকে রেখে তাদের ওপর অমানবিক নির্যাতন চালায় জলদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনী। পরে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণের বিনিময়ে বাগেরহাটের মংলার কোন এক স্থানে তাদের ছেড়ে দেয়।

কক্সবাজারে যুবক উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে জানান, জেলার চকরিয়া হারবাং থেকে অপহৃতকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনায় শওকত হোসেন নামে এক যুবককে চট্টগ্রাম থেকে অপহরণ করে হারবাং নিয়ে আসে অপহরণকারী চক্র।

প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০১৫

১৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: