মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বরিশালে আগাম বোরো ধান কাটা শুরু

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
  • বাম্পার ফলন

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল ॥ শস্যভাণ্ডার বলে খ্যাত জেলার দশটি উপজেলার অধিকাংশ এলাকায় ইতোমধ্যে আগাম রোপিত বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। গত ৪-৫ দিন থেকে ধান কাটা শুরু হয়েছে। ফলে কৃষক পরিবারের সদস্যরা এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বরিশালের বিভিন্ন এলাকার বোরো ফসলের সবুজ মাঠ এখন ক্রমেই সোনালি হয়ে উঠেছে। কোন কোন স্থানে আগাম রোপিত বোরো ধান কাটাও শুরু হয়েছে। কৃষকরা জানিয়েছেন, বোরো জমিতে এবার পোকার আক্রমণ তেমন ছিল না। সময়মতো সার, বীজ ও সেচকে অগ্রাধিকার দিয়ে বিদ্যুত সরবরাহ করায় গত কয়েক বছরের ন্যায় এবারও বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। সূত্রে আরও জানা গেছে, চলতি মৌসুমে কোনপ্রকার প্রাকৃতিক দুর্যোগ না ঘটলে এবারও বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সদর উপজেলার চাষীরা জানিয়েছেন, গুটি ইউরিয়া সার প্রয়োগের মাধ্যমে আগাম সুগন্ধী লাল তীর ধানের চাষ করে তারা প্রতি শতকে দেড় মণ ধান ফলন পেয়েছেন। নমুনা কর্তনের পর এবার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর থেকে লাল তীর ধান চাষে হেক্টরপ্রতি সাত মেট্রিক টনেরও অধিক ফলন ঘোষণা করা হয়েছে, যা গত বছরের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি। অপরদিকে জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার জোবারপাড় গ্রামের কৃষক জগদীশ বৈরাগীর বোরোক্ষেতের ব্রি-৫৯ ধান কর্তন করে মঙ্গলবার সকালে কৃষক মাঠ দিবস পালন করা হয়েছে। প্রধান অতিথি হিসেবে মাঠ দিবসের উদ্বোধন করেন বরিশাল বিডিএসের উপ-নির্বাহী কর্মকর্তা জেমস পি. বিশ্বাস। তিনি জানান, সিসা বিডি প্রকল্পের আওতায় আধুনিক কৃষি উন্নয়নের জন্য তাঁরা বরিশাল বিভাগের ছয়টি জেলার ২৫টি উপজেলায় কাজ করছেন। তিনি আরও জানান, চলতি মৌসুমে ব্রি-৫৯ ধানের ফলন হয়েছে প্রতি হেক্টরে ৭.২ মেট্রিক টন। বরিশাল কৃষি অঞ্চলের বিভাগীয় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এতে সর্বমোট ১ কোটি ৩ লাখ ৫৫ হাজার ১১১ মেট্রিক টন চাল উৎপাদন হবে। তিনি আরও বলেন, চলতি মৌসুমে বরিশালের সর্বত্র বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কোথাও কোনপ্রকার প্রাকৃতিক বিপর্যয় না ঘটলে চলতি বছর বোরো ধানের রেকর্ড পরিমাণ উৎপাদন হবে। বোরো ধান সাধারণত ৮০ ভাগ পাকলেই কেটে ফেলার জন্যও কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহীসহ নিহত ৪

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ পাবনায় বাসচাপায় অটোরিক্সার তিন যাত্রী নিহত হয়েছে। এছাড়া বাগেরহাটে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। খবর নিজস্ব সংবাদদাতা ও স্টাফ রিপোর্টারের পাঠানো।

বাগেরহাট ॥ বাগেরহাট-মাওয়া মহাসড়কে যাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী মিঠু গোলদার (৪৫) নিহত ও অপর আরোহী আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার সাধুর বটতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মিঠু গোলদার খুলনার রূপসা উপজেলার যুগিহাটি গ্রামের মোশারেফ গোলদারের ছেলে।

পাবনা ॥ পাবনা-ঈশ্বরদী মহাসড়কের আটমাইল নামক স্থানে বাসচাপায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৩ জন। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানায়, ঘটনার সময় পাবনা থেকে সোনার বাংলা পরিবহন নামের একটি বাস ঈশ্বরদীর দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে আটমাইল নামক স্থানে ওভারটেকিং করতে গিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিক্সার ৩ যাত্রী নিহত হয়। নিহতরা হলেন মনির হোসেন, জলি খাতুন ও রহিমা খাতুন।

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: