কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তবুও সন্তুষ্ট ধোনি

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। একাদশতম আসরের শুরু থেকেও দুর্দান্ত খেলেছে তারা। গ্রুপপর্বের সব ম্যাচেই জয়। কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। আর শেষ চারে অস্ট্রেলিয়ার কাছেই হার মানে ভারত। আর সেই পরাজয়ই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দেয় ধোনি-কোহলিদের। টুর্নামেন্ট থেকে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিদায়ে ভারতজুড়েই বইছে অসন্তোষ আর বিক্ষোভের ঝড়। তবে ব্যতিক্রম দলটির অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। অধিনায়ক ধোনির মতে, ‘সর্বোপরি আমরা সন্তুষ্ট। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আমাদের অবস্থান যেমন ছিল তাতে অনেকেই বিশ্বাস করেননি যে আমরা এতদূর এগোতে পারব। তাছাড়া নকআউট পর্বেও মানুষের ধারণা ঠিক একই ছিল।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘তিন শতাধিক রান তাড়া করে জেতাটা সব সময়ই কঠিন। তবে আমি মনে করেছিলাম যে, তা ছাড়িয়ে যাওয়া সম্ভব। কিন্তু শেষপর্যন্ত হয়নি। সেক্ষেত্রে আমাদের লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের আরও ভাল ব্যাট করার প্রয়োজন ছিল। আমরা দেখেছি বিশেষ করে নকআউট পর্বে ভাল দলগুলোর সকলেই লোয়ার অর্ডারে ভাল ব্যাট করেছে।’ বিশ্বকাপ শুরুর অনেক আগেই অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমিয়েছিল ভারত। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ ছাড়াও বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। আর সেই অভিজ্ঞতা থেকেই বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে নিজেদের সেরাটা ঢেলে দেয়ার চেষ্টা করেছে তারা। শিরোপা ধরে রাখতে না পারলেও এ সফর থেকে যে অনেক কিছুই শিখেছে ভারত, তা স্বীকার করেছেন অধিনায়ক ধোনি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ সফর থেকে শিখেছি আমাদের তরুণ খেলোয়াড়রা অনেক কিছুই পারে। আশা করি, ওরা এই অভিজ্ঞতা পরবর্তী সময়ে বিদেশ সফরেও কাজে লাগাতে পারবে। তবেই আমরা অনেক বেশি ম্যাচে জিততে পারব। টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে হেরেই ফিরছি ঠিক আছে, তবে এখানে ওপেনিং জুটি রান পাওয়ায় আমি খুশি। পেসাররাও নিজেদের ছন্দ ফিরে পেয়েছে। স্পিনাররাও সফল। এবার পরিস্থিতি অনুযায়ী এগুলোকেই কাজে লাগাতে হবে আমাদের।’ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারলেও সর্র্বোচ্চ ৬৫ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন ধোনি। সেই সঙ্গে তৃতীয় অধিনায়ক হিসেবে একদিনের ক্রিকেটে ৬ হাজার রানের ক্লাবে প্রবেশ করেন তিনি। এ তালিকায় প্রথম দু’টি স্থানে রয়েছেন যথাক্রমেÑ অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি ও নিউজিল্যান্ডের স্টিফেন ফ্লেমিং। পন্টিংয়ের দখলে ৮৪৯৭ আর ফ্লেমিংয়ের সংগ্রহ ৬২৯৫ রান। শুধু তাই নয় দীর্ঘ ২৮ বছর পর এই ধোনির নেতৃত্বেই দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে ভারত। টেস্ট থেকে ইতোমধ্যেই বিদায় নিয়েছেন ধোনি। এখন অপেক্ষা ওয়ানডে এবং টি-২০ ক্রিকেটকে বিদায়ের। তবে মহেন্দ্র সিং ধোনি জানান, ক্রিকেটকে বিদায়টা খুব আনন্দের সঙ্গেই বলবেন তিনি। এ বিষয়ে ‘ক্যাপ্টেনকুল’ জানান, ‘বলেই তো দিলাম, আমার সম্পর্কে যে যা খুশি বলতে পারে। তবে এখনই জানিয়ে রাখি, চিরতরে ব্যাগ বন্ধ করার সময় আমি কিন্তু খুশিই থাকব। কারণ আন্তরিকভাবেই দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করে গেছি।’

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫

২৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: