কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দিনাজপুরে ডাকাত সন্দেহে আট র‌্যাব সদস্য ঘেরাও ॥ সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে সোমবার রাতে ডাকাত সন্দেহে ৮ র‌্যাব সদস্যকে করে উত্তেজিত জনতা। বিক্ষুব্ধ জনতার হামলায় ৫ র‌্যাব সদস্য আহত হয়। এছাড়া ৩ সাংবাদিকও আহত হন। জীবন রক্ষার্থে ৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে র‌্যাব সদস্যরা। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার বেলাইচন্ডি ইউনিয়নের সৈয়দপুর-পার্বতীপুর সড়কের গ্রামীণ ব্যাংক অফিসের সামনে। এতে পার্বতীপুর-সৈয়দপুর সড়ক ৩ ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে উত্তেজিত জনতা। ঘটনার পর পরই পার্বতীপুর, সৈয়দপুর, চিরিরবন্দর থানা পুলিশ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং র‌্যাবের কয়েকটির টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। পরে রংপুর র‌্যাব-১৩ এর কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্নেল কিসমত হায়াত, দিনাজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) সাখাওয়াত হোসেন, পুলিশের এসএসপি সদর সার্কেল সুশান্ত কুমার ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। রাত সোয়া ১০টার দিকে আটককৃত র‌্যাব সদস্যদের উদ্ধার করে নিয়ে যায় র‌্যাব কর্মকর্তারা। তবে অভিযানে অংশ নেয়া র‌্যাব সদস্যদের নাম পরিচয় দিতে অস্বীকৃতি জানান র‌্যাব কমান্ডার লেঃ কর্নেল কিসমত হায়াত।

জানা যায়, সোমবার রাত ৮টার দিকে র‌্যাবের একটি টিম সাদা পোশাকে মাদক অভিযানে আসে। তারা মনোয়ারুল আজিজ (২৭) নামের এক মাদক ব্যক্তিকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে মটরসাইকেলে করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় মনোয়ারুলের চিৎকারে এলাকাবাসী ডাকাত সন্দেহে র‌্যাব সদস্যদের ঘিরে ফেলে। মনোয়ারুলের বাড়ি নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার লক্ষ্মণপুর চৌধুরীপাড়া গ্রামে। তার পিতার নাম আমিজ উদ্দিন।

গত ১৫ দিন আগে সৈলাস, নুর হোসেনের এবং এক সপ্তাহ আগে আইয়ুব, আরেফ, মনির ও ডাঃ জামানের দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। একই সড়কের একই এলাকায় মনোয়ারুলের চিৎকারে এলাকাবাসী ডাকাত সন্দেহে র‌্যাব সদস্যদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। রংপুর র‌্যাবের সিও কর্নেল কিসমত হায়াত বলেন, র‌্যাবের ৮ সদস্যের একটি অগ্রগামী টিম মাদক ব্যবসায়ীদের ধরার জন্য সাদা পোশাকে অভিযানে এসেছিল। কিন্তু জনগণ তাদের চিনতে না পারায় ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

পটিয়া ভূমি অফিসে সিসি ক্যামেরা

নিজস্ব সংবাদদাতা পটিয়া থেকে জানান, চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা ভূমি অফিস অবশেষে সিসি ক্যামেরার আওতায় এসেছে। মঙ্গলবার দুপুরে ভূমি অফিসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ৪টি পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে পার্শ্ববর্তী বোয়ালখালী উপজেলা ভূমি অফিসে বিএনপি-জামায়াত ও অবরোধকারীরা নাশকতার উদ্দেশ্যে কয়েকটি ককটেল নিক্ষেপ করেছে। ভূমি অফিসে নাশকতাকারী ও দালালদের শনাক্ত করতে পটিয়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: