রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মোদি-ওবামা আলোচনায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গও ছিল

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

বিডিনিউজ ॥ সাম্প্রতিক নয়া দিল্লী সফরে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ওবামার নিরাপত্তা কাউন্সিলে দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক ফিল রাইনার মঙ্গলবার ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

গত ২৫-২৭ জানুয়ারি নয়াদিল্লীতে ওবামার সফরসঙ্গী রাইনার প্রেসিডেন্টের সফর নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলন করেন, যাতে এক প্রশ্নে বাংলাদেশের প্রসঙ্গটি আসে। রাইনার বলেন, ‘সত্যিকারেই বাংলাদেশের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। তবে আমি মনে করি, দুই নেতা (ওবামা ও মোদি) তাদের আলোচনায় গণতান্ত্রিক শক্তির ক্ষমতায় থাকার বিষয়টিতে একমত হয়েছেন, যা দেশটিতে (বাংলাদেশ) জনগণের ক্ষমতায়ন ঘটাতে পারে।’ ২০১৩ সালে বাংলাদেশের দশম সংসদ নির্বাচনের আগেকার পরিস্থিতি নিয়ে ওয়াশিংটন ও নয়াদিল্লীর কূটনৈতিক সম্পর্কে এক ধরনের টানাপোড়েনের খবর ভারতের গণমাধ্যমে বেশ আলোচিত হয়।

বিএনপিবিহীন ওই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতাসীন হয় আওয়ামী লীগ। ওই নির্বাচনকে মেনে নিলেও সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনের প্রত্যাশা এখনও জানিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। ভারতে তখন ক্ষমতায় ছিল কংগ্রেস। গত বছর নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবির মধ্য দিয়ে ক্ষমতা নেয় বিজেপি, প্রধানমন্ত্রী হন নরেন্দ্র মোদি। ওবামার এবারের ভারত সফরের সময় বাংলাদেশে নির্দলীয় সরকারের অধীনে মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবিতে অবরোধ চলছিল বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের, যে কর্মসূচী এখনও চলছে এবং সহিংসতায় অর্ধশতাধিক নিহত হয়েছে।

গুজরাট দাঙ্গায় ভূমিকার জন্য মোদিকে যুক্তরাষ্ট্র অন্য চোখে দেখলেও তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার পর দৃশ্যপট বদলে যায়। নয়াদিল্লী গিয়ে নতুন প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে বৈঠকে ওবামা দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে ভারতের গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন বলে রাইনার জানান। তিনি উচ্ছ্বসিতভাবে বলেন, ‘ওবামা-মোদির মধ্যে মাত্র ৫ মিনিটের একান্ত একটি বৈঠক হয়, যা অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়েছে। তিনি আরও জানান, একে দক্ষিণ এশিয়ায় ‘গেম চ্যাঞ্জিং অপরচ্যুনিটি’ হিসেবে বিবেচনা করা যায়।

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: