ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

যুক্তরাজ্য বরদাশত করবে না

প্রকাশিত: ০৪:১৯, ১৯ মার্চ ২০১৮

যুক্তরাজ্য বরদাশত করবে না

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে ক্রেমলিনের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ২৩ ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্তে ব্রিটেন কখনও উদ্বিগ্ন নয়। সলসবেরিতে সাবেক কেজিবি এজেন্ট সের্গেই ক্রিসপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়ার ওপর নার্ভ বিষক্রিয়া হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতে ব্রিটেন ২৩জন রুশ কূটনীতিক বহিষ্কারের প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়াও ২৩জন ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে। টেলিগ্রাফ। পুতিনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কূটনীতিকদের বহিষ্কারাদেশের প্রেক্ষিতে মে লন্ডনে কনজারভেটিভ পার্টির বসন্তকালীন ফোরামে বলেন, রাশিয়ার জঘন্যতম অপরাধের জন্য ব্রিটেন বিভ্রান্ত হবে না। রুশরা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে। রাশিয়ার সিদ্ধান্তে ব্রিটেনে এই বিষয়ে কোন পরিবর্তনই হবে না। যার মধ্যে ব্রিটিশ কাউন্সিল বন্ধ করে দেয়ার মতো বিষয়গুলোও অন্তর্ভুক্ত। মস্কোতে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত কূটনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে প্রতিনিয়ত আপডেট জানাচ্ছেন জানিয়ে মে বলেন, রুশদের আগের ব্যবহারে আমরা এ ধরনের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় ছিলাম। আমরা আগামীতে আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। যা আমাদের মিত্র ও অংশীদারদের সঙ্গে নিয়েই সিদ্ধান্ত নেব। তবে রাশিয়ার প্রতিক্রিয়া এ বিষয়ে কোন পরিবর্তন হবে না বলে জানা গেছে। ব্রিটেনের মাটিতে দু’জনকে হত্যার চেষ্টা যার জন্য রাশিয়া যে অপরাধী সে বিষয়ে অন্য কোন বিকল্প উপসংহার নেই। রাশিয়া আন্তর্জাতিক আইন ও রাসায়নিক অস্ত্র আইন ভঙ্গ করেছে। এক সপ্তাহ আগে ব্রিটেনের সলসবেরি শহরে একটি বড় ধরনের অপরাধমূলক কর্মকা- হতে দেখা গেছে। যারা সের্গেই ক্রিসপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়ার ওপর বিষাক্ত এজেন্ট হামলা চালিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছিল মে সে জন্য সেখানকার জরুরী পরিসেবা, ডাক্তার ও তদন্তকারীদের সাহসের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। যদিও ব্রিটেনের ২৪জন রুশ কূটনীতিক বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়াও যে ২৩জন ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে। পাশাপাশি তারা সেন্ট পিটার্সবার্গে ব্রিটিশ কনস্যুলেট ও ব্রিটিশ কাউন্সিল বন্ধ করে দেয়। যাকে কূটনৈতিক অচলাবস্থা বলা হচ্ছে। লন্ডন এখন এই সমস্যায় জর্জরিত হয়ে রাশিয়ার ওপর আরও শক্তি প্রয়োগ করার চেষ্টা করছে। এদিকে শনিবার রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা বহিষ্কৃত ২৩ ব্রিটিশ কূটনীতিককে দেশ ছাড়ার জন্য এক সপ্তাহ সময় দিয়েছে। দক্ষিণ ইংল্যান্ডের সলসবেরি শহরে রাশিয়ার পক্ষত্যাগী রুশ গুপ্তচর সের্গেই ক্রিসপাল (৬৬) ও তার মেয়ে ইউলিয়া ক্রিসপালের (৩৩) ওপর নার্ভ এজেন্ট হামলার ঘটনায় ব্রিটেন ও রাশিয়ার মধ্যে তীব্র উত্তেজনা চলছে। এ হামলার পেছনে রাশিয়ার ভূমিকা আছে বলে ব্রিটেনের ধারণা। এ ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার রাশিয়ার ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে লন্ডন। মস্কোর পাল্টা ব্যবস্থা নেয়াটা প্রত্যাশিত ছিল। তবে পাল্টা ব্যবস্থাটি ধারণার চেয়েও কঠোর হয়েছে। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ব্রিটেনের উস্কানিমূলক পদক্ষেপ ও ভিত্তিহীন অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় এসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ৪ মার্চ সলসবেরির উইল্টশায়ার এলাকার একটি পার্ক থেকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই ক্রিসপাল (৬৬) ও তার মেয়ে ইউলিয়াকে (৩৩) উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তাদের দু’জনের অবস্থাই সঙ্কটপূর্ণ। ক্রিসপাল ও তার মেয়ের ওপর নোভিচক নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয় বলে মেডিক্যাল পরীক্ষায় জানা যায়। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন এ সিরিজের নার্ভ এজেন্টগুলো তৈরি করেছে। এগুলো সবচেয়ে মারাত্মক নার্ভ এজেন্ট হিসেবে বিবেচিত। রাশিয়ার ওপর হামলার দায় দিয়ে বুধবার ব্রিটেনের পক্ষ থেকে বলা হয়, এ বিষক্রিয়ার জবাব দিতে তারা ২৩ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করবে এবং শীর্ষ পর্যায়ের বিভিন্ন চুক্তি বাতিল করবে। এ ঘটনার পর মস্কোর পক্ষ থেকে সতর্ক করে বলা হয়, তারা এ ‘কা-জ্ঞানহীন’ বহিষ্কারের বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ গ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এছাড়া রাশিয়া আরও জানিয়েছে, তারা এ হামলায় যুক্ত নয়। রাশিয়া বর্তমান জটিলতার মধ্যে ব্রিটেন যুক্তরাষ্ট্রসহ মিত্র দেশগুলোর পুরো সমর্থন পাচ্ছে। বিশেষ করে জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি নিকি হ্যালি বিষয়টি নিয়ে সবচেয়ে স্পষ্ট বিবৃতি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র পুরোপুরি গ্রেট ব্রিটেনের পক্ষে। যুক্তরাষ্ট্র মনে করে, যুক্তরাজ্যের দু’জন ব্যক্তির ওপর যে নার্ভ এজেন্ট হামলা করা হয়েছে তার জন্য দায়ী রাশিয়া।’ ফ্রান্সও মনে করে, এ হামলার পেছনে রাশিয়ার হাত রয়েছে। এদিকে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘মস্কোর স্বার্থের উপযোগী’ পদক্ষেপই বেছে নেবেন প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন।