আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারত নিয়ে ধারণা পাল্টেছে

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫
  • আমাদের বাদ দিয়ে ব্রিকস কল্পনাই করা যায় না ॥ সিউলে মোদি

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সোমবার বলেছেন, গত এক বছরে ভারত সম্পর্কে বিশ্বের ধারণা পাল্টে গেছে। তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে ভারতীয় সম্প্রদায়ের সদস্যদের উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এএফপির।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এমন সময় ছিল যখন লোকজন ভারত কোন কাজের নয় বলে মন্তব্য করে দেশ থেকে চলে যেত।

মোদি বলেন, সেই ধারণা পাল্টে গেছে এবং ভারতকে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত প্রবৃদ্ধিশীল অর্থনীতির দেশ বলে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, এখন মানুষজন ভারতে আসতে পেরে আনন্দবোধ করছেন। মানসিক অবস্থারই পরিবর্তন ঘটেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতকে বাদ দিয়ে ব্রিকসের কথা কল্পনাই করা যায় না, বিশ্ব সেটি উপলব্ধি করেছে। সিউলে ভারতীয়দের উদ্দেশে ভাষণ দিতে গিয়ে মোদি বলেন, আমি আপনাদের সবার সঙ্গে মিলিত হওয়ার মধ্য দিয়ে আমার সফর শুরু করছি। তিনি তার বর্তমান সময়ের গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, ভারত ‘লুক ইস্ট পলিসি’ অনুসরণ করছিল, কিন্তু এখন সেটার পরিবর্তন ঘটেছে। আমাদের সরকারের পররাষ্ট্রনীতির অন্যতম প্রধান দিক হলো ‘এ্যাক্ট ইস্ট পলিসি।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, উন্নয়নেই ভারতের সব সমস্যার সমাধান নিহিত। এ পথ কঠিন কিন্তু আমরা একেই বরণ করে নিয়েছি। তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন যে, উন্নয়ন বলতে তিনি জীবনযাত্রার মানের পরিবর্তনই বোঝান। তিনি বলেন, উন্নয়ন বলতে বড় বড় রাস্তাঘাট ও ভবন নির্মাণ বোঝানো হচ্ছে না। এটি জীবনযাত্রার মানের পরিবর্তন। যেমন আমি চাই প্রত্যেক পরিবারেরই একটি টয়লেট থাকুক। প্রধানমন্ত্রী ভারত-বাংলাদেশ স্থলসীমান্ত চুক্তি পাস করার জন্য সব রাজনৈতিক দলের প্রতি ধন্যবাদ জানান।

‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগের পক্ষে জোরালো আহ্বান জানিয়ে মোদি বলেন, তিনি চান ভারত পণ্য উৎপাদনের কেন্দ্রস্থলে পরিণত হোক।

তিনি বলেন, ভারতে বিশ্বের সর্বোত্তম প্রযুক্তির আগমন ঘটা উচিত। এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুদিনের সফরে সোমবার সিউল পৌঁছান। এর লক্ষ্য হলো এশিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করা এবং দক্ষিণ কোরীয় ফার্মগুলো যাতে ভারতে তাদের বিনিয়োগের পরিমাণ বৃদ্ধি করে সেই চেষ্টা চালানো। এক বছর আগে দায়িত্ব গ্রহণের পর ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এটিই প্রথম সিউল সফর। তিনি দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট পার্ক জিওন হাইয়ের সঙ্গে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিষয়াদি এবং কোরীয় উপদ্বীপের নিরাপত্তা পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলবেন।

এ সফরকালে মোদি দক্ষিণ কোরিয়ার হুন্দাই, স্যামসাং ও এলজিসহ বড় বড় কোম্পানির কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হবেন।

পণ্য উৎপাদনকারী ভারতে ঐ তিনটি কোম্পানিরই বিভিন্ন প্ল্যান্ট রয়েছে। তাদের উৎপাদিত গাড়ি, স্মার্টফোন ও গৃহস্থালী সামগ্রীর ভারতের বড় বাজার রয়েছে। মোদি তার ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগের অংশ হিসেবে বৃহত্তর বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি আদায়ের চেষ্টা করছেন। তার দেশের অপেক্ষাকৃত দুর্বল পণ্য উৎপাদন খাতের প্রসার ঘটানোই এ উদ্যোগের লক্ষ্য। সিউলভিত্তিক ইন্ডিয়া ইকনোমি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের প্রধান ওহ হোয়াসুক এএফপিকে বলেন, ভারতের বিশাল প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকলেও দক্ষিণ কোরিয়া চীন ও জাপানের মতো অন্যান্য এশীয় প্রতিদ্বন্দ্বীর তুলনায় ভারতে অনেক কম অর্থই বিনিয়োগ করেছে।

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫

১৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: