রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিনিয়োগকারীদের উদাসীনতায় টাকা তুলছে নামসর্বস্ব কোম্পানি

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিনিয়োগকারীদের উদাসীনতার কারণে শেয়ারবাজার থেকে টাকা তুলছে নামসর্বস্ব কিছু কোম্পানি। আইপিওয়ের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন শেষে লেনদেনের প্রথম দিনে শেয়ার দর কয়েকগুণ বেশি বাড়তে দেখে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনের হিড়িক পড়ে। আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে খুব সহজে পুঁজিবাজার থেকে টাকা তুলে নিয়ে যাচ্ছে অনেক কোম্পানি।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ২০১১ সালের আগস্ট থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ৪৪টি কোম্পানি পুঁজিবাজার থেকে আইপিওর মাধ্যমে ৩ হাজার ৮৬৯ কোটি ৮৫ লাখ ৮ হাজার টাকা সংগ্রহ করেছে। কোনো কোম্পানির আইপিওতে চাহিদার চেয়ে কম আবেদন জমা পড়েনি। বরং বেশি আবেদন জমা পড়ায় প্রত্যেক কোম্পানিকে লটারি করে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দিতে দেখা গেছে। এ ছাড়া স্টক এক্সচেঞ্জে শেয়ার লেনদেনের প্রথম দিন আইপিওর নির্দেশক মূল্যের চেয়ে বেশি দরে শেয়ার কিনতে দেখা গেছে।

খান ব্রাদার্স ॥ খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ লিমিটেডের আইপিওতে ৮৩৩ কোটি ৭৮ লাখ ২০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়ে, যা কোম্পানির চাহিদার প্রায় ৪১ গুণেরও বেশি। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে পুঁজিবাজারে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। তার বিপরীতে জমা পড়ে প্রায় ৮৩৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকা।

হামিদ ফেব্রিকস ॥ কোম্পানিটির আইপিওতে প্রায় ৯ গুণ আবেদন জমা পড়ে। কোম্পানিটি ৩৫ টাকা মূল্যের ৩ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১০৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। এর বিপরীতে জমা পড়ে ৯২৫ কোটি টাকার আবেদন।

ওয়েস্টার্ন মেরিন ॥ অধিমূল্যসহ ৩৫ টাকা দরে ৪ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১৫৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড। এর বিপরীতে জমা পড়ে ৪২২ কোটি ৮০ লাখ ৫২ হাজার ৫০০ টাকার আবেদন, যা কোম্পানির চাহিদার ২.৬৮ গুণ।

সাইফ পাওয়ারটেক ॥ সাইফ পাওয়ারটেক ৩০ টাকা মূল্যের ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ৩৬ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। যার বিপরীতে জমা পড়ে ৩৪০ কোটি ৯৬ লাখ ৮৯ হাজার টাকা, যা কোম্পানির চাহিদার ৯.৫ গুণ।

মতিন স্পিনিং ॥ মতিন স্পিনিং ২৭ টাকা মূল্যে ৩ কোটি ৪১ লাখ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১২৬ কোটি ১৭ লাখ টাকা উত্তোলন করে। এর বিপরীতে জমা পড়ে ৮৩২ কোটি টাকার আবেদন, যা কোম্পানির চাহিদার ৬.৫৯ গুণ।

ফার কেমিক্যাল ॥ ফার কেমিক্যাল অভিহিত মূল্যে পুঁজিবাজারে ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। যার বিপরীতে জমা পড়ে ৮৬৯ কোটি ৯৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শেয়ার, যা কোম্পানির চাহিদার ৭১.৬৬ গুণ।

খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড ॥ অভিহিত মূল্যে আইপিওতে ৪ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ৪০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে খুলনা প্রিন্টিং। এর বিপরীতে ২৮৩ কোটি ৯২ লাখ টাকার আবেদন জমা পড়ে, যা কোম্পানির চাহিদার ৭ গুণেরও বেশি।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, লেনদেনের প্রথম দিন ১০ টাকার খান ব্রাদার্সের শেয়ার ৭৬.৬ টাকায়, ৩৫ টাকার হামিদ ফেব্রিকসের শেয়ার ৫৬ টাকায়, ৩৫ টাকার ওয়েস্টার্ন মেরিনের ৬২ টাকায়, ৩০ টাকার সাইফ পাওয়ারটেকের ৭২ টাকায়, ৩৭ টাকার মতিন স্পিনিংয়ের ৪২ টাকায়, ১০ টাকার ফার কেমিক্যালের ৫৬ টাকায়, ১০ টাকার খুলনা প্রিন্টিংয়ের শেয়ার ৩৭ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: