মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সহজ গ্রুপে জাপান, কঠিন গ্রুপে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৪
  • মহিলা বিশ্বকাপ ফুটবল ড্র

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী বছর কানাডায় অনুষ্ঠিত হবে মহিলা বিশ্বকাপ ফুটবল। এ আসরটির ড্র ইতোমধ্যেই অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্ধারিত হয়েছে গ্রুপিং ও খেলার সময়সূচী। ‘এ’ গ্রুপে ৬ জুন এডমন্টনে উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক কানাডা মুখোমুখি হবে চীনের। ৬ গ্রুপে চারটি করে মোট ২৪ দল অংশ নেবে এবারের আসরে। গত আসরে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জাপান মহিলা ফুটবল দল। এবারও সহজ গ্রুপেই পড়েছে তারা। ‘সি’ গ্রুপে তাদের প্রতিপক্ষ সুইজারল্যান্ড, ক্যামেরুন ও ইকুয়েডর। তবে বেশ কঠিন গ্রুপেই ঠাঁই হয়েছে রানার্সআপ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। ‘ডি’ ফর ডেথ গ্রুপে তাদের সঙ্গী গতবার তৃতীয় স্থান দখল করা সুইডেন এবং অস্ট্রেলিয়া ও নাইজিরিয়া। জাপান কোচ নোরিও সাসাকি প্রত্যাশা জানিয়েছেন শিরোপা ধরে রাখার।

দুইবারের চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানিকে পেছনে ফেলে ২০১১ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো মহিলা ফুটবলের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জাপানের মেয়েরা। স্বাগতিক হিসেবে এবং আগের দুইবার শিরোপাজয়ী হিসেবে অন্যতম ফেবারিট জার্মানিকে কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়ে দিয়েছিল জাপান। এবারও ড্রয়ের পর দারুণ সন্তুষ্ট দলের কোচ সাসাকি। তিনি বলেন, ‘কাগজ-কলমের হিসেবে যদি প্রতিপক্ষ দলগুলোকে দেখা হয় তাহলে অবশ্যই তারা সহজ প্রতিপক্ষ। কিন্তু আমরা কোন দলকেই ছোট করে দেখতে চাই না। খুবই জরুরী বিষয় হচ্ছে নিজেদের অবস্থান অনুসারে শীর্ষস্থান নিয়ে শেষ করা। সবার মধ্যেই মূল লক্ষ্য থাকা উচিত আবারও শিরোপা জয়ের।’ ২০১১ বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রকে ফাইনালে হতাশা উপহার দিয়েছিল জাপানের মেয়েরা। টাইব্রেকারে যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে এশিয়ার প্রথম কোন দল হিসেবে কোন বিশ্ব আসরের শিরোপা জয়ের গর্ব অর্জন করে তারা। সে বছর সুনামি এবং তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়া জাপান ছিল দারুণ হতাশায় মুষড়ে পড়া একটি জাতি। কিন্তু মহিলা ফুটবলাররা আনন্দের একটি উপলক্ষ এনে দিয়েছিল পুরো দেশকে। এ বছরও জাপানের মেয়েরা দারুণ ফর্মে আছে। এশিয়ান কাপ জিতেছে তারা এবার। তবে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হেরে ২০১২ অলিম্পিক স্বর্ণ হাতছাড়া করে।

জাপানের ভয়ঙ্কর প্রতিপক্ষ যুক্তরাষ্ট্র। তবে এবার তাদের জন্য শুরু থেকেই কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে। প্রায় মৃত্যুফাঁদেই পড়েছে তারা। ‘ডি’ গ্রুপে সুইডেন, নাইজিরিয়া আর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে হবে। বর্তমানে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার মেয়েরা আছে ১০ নম্বরে। আর ইউরোপের পাওয়ার হাউজ সুইডেন পাঁচে। তবে এসব নিয়ে চিন্তিত নয় কোচ জিল এলিস। তিনি মনে করছেন গ্রুপ পর্বেই কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা তৃতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের জন্য ভাল প্রস্তুতি হবে দলের। এ বিষয়ে এলিস বলেন, ‘এটা খুব ভাল গ্রুপ আমাদের জন্য দারুণ কিছু করার ক্ষেত্রে। হতে পারে সবচেয়ে কঠিন গ্রুপ এটি। কিন্তু আমাদের দলের শক্তির গভীরতা অনেক বেশি। আর এমন রাস্তায় ঐতিহাসিকভাবেই যুক্তরাষ্ট্র অনেক হেঁটেছে। আমরা অবশ্যই এ চ্যালেঞ্জকে সাদরে আলিঙ্গন করতে প্রস্তুত আছি। ভাল দলের বিরুদ্ধে জিততে হলে সবাইকেই ভাল খেলতে হয়। আর সেটাই করব আমরা।’ ১৯৯৯ সালে সর্বশেষবার বিশ্বকাপ জিতেছিল যুক্তরাষ্ট্র। ইতিহাসের প্রথম বিশ্বকাপেও ১৯৯১ সালে যুক্তরাষ্ট্র শিরোপা জয় করে। সুইডেনের বর্তমান কোচ পিয়া সান্ডহেজ টানা দুটি অলিম্পিক সোনা জিতিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েদের। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে তিনি সুইডেনের দায়িত্ব নেন। তিনি মনে করেন গ্রুপিং যেমনই হোক জয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে যেতেই হবে। তাই প্রতিপক্ষ নিয়ে মোটেও দুশ্চিন্তা নেই তাঁর।

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৪

০৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: