কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

তিন দিনের এ্যাপারেল সামিটে ৯ বিষয়ে সেমিনার

প্রকাশিত : ৩ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশে তৈরি পোশাক শিল্পখাতের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলার অর্জন করার লক্ষ্য নিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা এ্যাপারেল সামিট ২০১৪। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে তিনদিনের সামিটে মোট ৯টি সেমিনারের আয়োজন করবে বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচার্স এ্যান্ড এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন (বিজিএমইএ)। এই সামিট ৭-৯ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে।

সেমিনারে যেসব বিষয় প্রধান্য পাবে তার মধ্যে প্রথম দিনের বিষয়গুলো হলো- বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে তৈরি পোশাক শিল্পখাতের মাধ্যমে ৫০ বিলিয়ন ডলার অর্জন : সহযোগিতা ও সমন্বয়ের দৃষ্টিভঙ্গি, অবকাঠামো : রোড টু চট্টগ্রাম এবং আরও দূরে, টেকসই পরিবেশ সবার জন্য অত্যাবশ্যক।

বিজিএমইএ সূত্র জানায়, ‘বাংলাদেশের স্বাধীতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে তৈরি পোশাক শিল্পখাতের মাধ্যমে ৫০ বিলিয়ন ডলার অর্জন : সহযোগিতা ও সমন্বয়ের দৃষ্টিভঙ্গি’ শীর্ষক সেমিনারে এর সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করবেন বিজিএমইএ সভাপতি মোঃ আতিকুল ইসলাম আলোচনায় অংশ নেবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি, অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি (এএফবিডব্লিউএস) এর পরিচালনা পর্ষদের চেয়ার অ্যালেন টসার, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি মোস্তফা গোলাম কুদ্দুস; লি এ্যান্ড ফাঙ (ট্রেডিং) লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক রিক ডার্লিং, ইয়ংগুন কর্পোরেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সিইও কিহাক সাঙ; কোরিয়া ফেডারেশন অব টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. সৈয়দ ফরহাত আনোয়ার, ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন বাংলাদেশ, নেপাল ও ভুটান এর কান্ট্রি ম্যানেজার কালে কেলহফার, কর্মজীবী নারীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শিরিন আক্তার এমপি, এইচএসবিসি লিমিটেড, বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফ্রান্সিস ডি মারিকোট প্রমুখ।

এই সেশনে মূলত বর্তমান ব্যবসা ও বিনিয়োগের ধারা, গ্লোবাল সোর্সিং ডায়নামিক্স এবং বাংলাদেশের সম্ভাবনা, প্রবৃদ্ধি সহায়ক কিছু অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু যেমন অবকাঠামো, বন্দর, বিদ্যুত, গ্যাস, মানবসম্পদ উন্নয়ন, কমপ্লায়েন্স ইস্যু, বাণিজ্য কূটনীতি এবং রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা সহায়ক নীতিমালা এবং সরকারের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে সমন্বয়, পণ্য ও বাজার বহুমুখীকরণ প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।

‘অবকাঠামো : রোড টু চট্টগ্রাম এবং আরও দূরে’ শীর্ষক সেমিনারে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করবেন বিজনেস ইনিশিয়েটিভ লিডিং ডেভেলপমেন্টের (বিইউআইএলডি) চেয়ারম্যান ও নিউএজ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ভাইস চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম।

এ সেশনে প্যানেল মেম্বার হিসেবে আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুত, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীরবিক্রম, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, এ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটির বোর্ড মেম্বার ও বাংলাদেশে নিযুক্ত সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস এফ মারিয়ার্টি; বাংলাদেশ পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান জাঈদী সাত্তার, জাইকার বাংলাদেশ অফিস প্রধান মিকিও হাতায়েদা, বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি ফজলুল হক; বিশ্ব ব্যাংক ঢাকা অফিসের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন ; মায়ের্ক্স বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীম উল হক, লি এ্যান্ড ফাঙ বাংলাদেশ লিমিটেডের ম্যানেজার ক্রিস্টফার ইয়াং ও জেনারেল ইলেক্টনিক্সের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা ইপ্সিতা দাশগুপ্তা প্রমুখ।

এই সেশনে মূলত ২০২১ সালের রূপকল্প অর্জনের ক্ষেত্রে অবকাঠামো ও সাপ্লাই চেইনে কি কি প্রতিবন্ধকতা আছে এবং সেগুলো কিভাবে সমাধান করা যেতে পারে, তার ওপর আলোকপাত করা হবে। এই সেশনে এই রূপকল্প বাস্তবায়নে অবকাঠামো উন্নয়ন বিশেষ করে বিদ্যুত ও গ্যাসের পর্যাপ্ততা কতখানি প্রয়োজন সেগুলো বিশ্লেষণ করা হবে। ৫০ বিলিয়ন ডলারের বাজার ধরার সামর্থ্য কি আমাদের আছে? সরকারী নীতি, বেসরকারী বিনিয়োগকে উৎসাহিত করার জন্য সরকারী বিনিয়োগের গুরুত্ব তুলে ধরা হবে। এছাড়াও গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ, ঢাকা-চট্টগ্রাম ৪ লেনবিশিষ্ট মহাসড়ক, নতুন পোশাক শিল্প পার্ক নির্মাণের ওপরও আলোকপাত করা হবে।

‘টেকসই পরিবেশ- সবার জন্য অত্যাবশ্যক’ শীর্ষক সেমিনারে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করবেন আইএফসি সাউথ এশিয়ার হেড অব ওয়াটার এডভাইজরি ও ওয়াটার রিসোর্স গ্রুপ ২০৩০, এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্যের সহ-বাসতিন মুহাররন।

এই সেমিনারে মূলত আলোচনা করা হবে কিভাবে বাংলাদেশের মতো একটি ঘন বসতিপূর্ণ দেশে তৈরি পোশাক খাত পরিবেশগতভাবে টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য গুরুত্বপূর্ণ শর্তগুলো পূরণ করতে পারে। একই সঙ্গে এ সেশনে সম্পদের দক্ষতা, সেইসঙ্গে এর সামাজিক, আর্থিক ও অর্থনৈতিক সুবিধা, পরিবেশগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা, পরিবেশ বিষয়ে বৈশ্বিক এজেন্ডা এবং ক্রেতাদের ওপর এর প্রভাব প্রভৃতি বিষয়গুলো নিয়ে বিশ্লেষণ করা হবে। পরিবেশ বিষয়ে উদীয়মান নেতৃত্ব এবং উদ্যোগগুলোও আলোচনায় আসবে।

এই সেশনে প্যানেল মেম্বার হিসেবে আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মীর্জা আজম এমপি; বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান; বাংলাদেশে নিযুক্ত নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত গার্বিন ডি জঙ, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান; জিআইজেডের এনভারমেন্টাল স্টান্ডার্ডস এ্যান্ড রিসোর্সেস ইফিশিয়েন্সির সিনিয়র এডভাইজার এলিক সারিসথা, লিনডেক্স এর গ্লোবাল সাসটেইনেবিলিটি ম্যানেজার লার্স ডোয়েমার প্রমুখ।

দ্বিতীয় দিনের বিভিন্ন অধিবেশনের সেমিনারগুলোর প্রতিপাদ্য বিষয় হলো- ‘শ্রমিকের ভবিষ্যত : কর্মক্ষেত্রের নিরাপত্তা এবং টেকসই উৎপাদন’; ‘বাংলাদেশের রূপান্তরিত পোশাক শিল্পখাতের সংস্কারে অর্থায়ন’ ও ‘রিইনভেন্টিং দ্যা অ্যাপারেল মডেল : দ্যা রেস অব রেসপন্সিবল বায়িং এ্যান্ড প্রোডাক্টিভিটি এনহেনচমেন্ট’।

সমাপনী দিনের সেশনগুলোর শিরোনাম হলো- ‘প্রশান্ত কর্মক্ষেত্র নিশ্চিত করা’; ২০২১ সালে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পখাত : উন্নয়নে গণমাধ্যমের অংশীদারিত্ব’ ও ‘সামাজিক প্রভাব : তৈরি পোশাক শিল্পখাত সাহায্য করতে পারে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হতে’।

প্রকাশিত : ৩ ডিসেম্বর ২০১৪

০৩/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: