মূলত মেঘলা, তাপমাত্রা ২৭.৮ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ১০ আশ্বিন ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ঝুঁকিপূর্ণ রাজধানী

প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারী ২০১৬

হারুনুর রশিদ

বর্তমানে ভূমিকম্প প্রাকৃতিক দুর্যোগসমূহের মধ্যে একটি ভয়াবহ দুর্যোগে পরিণত হয়েছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের কোন হাত নেই। এটা প্রকৃতির অমোঘ নিয়মেই পরিচালিত হয়ে থাকে। বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে বেশ কতগুলো ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটেছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এর মাত্রা একটু বেড়েই চলেছে। বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ এখন বলা যায় নিয়মিতই হচ্ছে। বাংলাদেশ প্রচ-ভাবে ভূমিকম্পের হুমকিতে রয়েছে। বিশেষ করে ঢাকা শহর এ তালিকায় সবার আগে। বিশেষজ্ঞরা অনেক আগেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে যে কোন সময় বড় ধরনের ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে।

হিমালয় অঞ্চলে স্মরণকালের ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে বলে একটি আগাম সতর্কবার্তা দিয়েছেন ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা। রিখটার স্কেলে তার মাত্রা ৮ দশমিক ২ বা তারও বেশি হতে পারে বলে ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা তাদের মতামত ব্যক্ত করেছেন। ভারতের টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে। গত সপ্তাহে মণিপুর রাজ্যে যে ভূমিকম্পটির উৎপত্তি হয়েছে তা বাংলাদেশকেও বেশ কাঁপিয়ে তুলেছে। যদিও এতে বড় ধরনের কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি তবু বার বার ভূমিকম্পের এমন ঘটনা সাধারণ মানুষকে বেশ ভাবিয়ে তুলেছে। মণিপুরে আঘাত হানা ভূমিকম্পটির রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৭। আর ২০১৫ সালের মে মাসে নেপালে ৭ দশমিক ৩ এবং ২০১১ সালে সিকিমে ৬ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। বিশেষজ্ঞরা আরও বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়গুলোতে ক্রমিক ভূমিকম্পে টেকটোনিক প্লেটে ফাটল সৃষ্টি হয়েছে। আর প্লেটের এই পরিস্থিতি অদূর ভবিষ্যতে আরও বড় ধরনের ভূমিকম্পের জন্ম দিতে পারে বলে তারা আভাস দিয়েছেন। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ৮ ছাড়িয়ে যেতে পারে। আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা বড় ধরনের ভূমিকম্পের ব্যাপারে অনেক আগেই সতর্ক করেছেন। ভূমিকম্পসহ যে কোন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় আমাদের জনসচেতনতাই প্রধান নিয়ামক। ভূকম্পন হলে প্রাথমিকভাবে আমাদের কি করা উচিত বা কি করলে আমাদের ক্ষয় ক্ষতির সম্ভাবনা কম হতে পারে এমন কিছু নির্দেশনামূলক প্রচারণা আমাদের প্রিন্ট ও ইলেকট্রোনিক মিডিয়ায় হওয়া উচিত। তাতে দেশের সাধারণ মানুষ কিছুটা হলেও সচেতন হবে। যার ফরে বড় ধরনের কোন ক্ষয় ক্ষতির আশঙ্কা কম থাকবে। যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূকম্পনবিদ রজার বিলহাম জানিয়েছেন বর্তমান পরিস্থিতিতে অন্তত চারটি ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে। তাই আমরা মনে করি ভূমিকম্পের বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে হবে।

রাজেন্দ্র কলেজ, ফরিদপুর থেকে

প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারী ২০১৬

১৪/০১/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: