মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

৯৩৫ অভিবাসীকে রোহিঙ্গা মানতে নারাজ মিয়ানমার

প্রকাশিত : ৫ জুন ২০১৫
  • থাইল্যান্ডে গ্রেফতার জেনারেলের পক্ষ নিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী

মোয়াজ্জেমুল হক/এইচএম এরশাদ ॥ বঙ্গোপসাগরের মিয়ানমারের জলসীমায় দু’দফায় মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসী প্রত্যাশী যে ৯৩৫ জনকে সে দেশের নৌবাহিনী উদ্ধার করেছে তাদের আবারও বাংলাদেশী হিসেবে দাবি করেছে মিয়ানমার সরকার। বর্তমানে মংডু শহরে ৭২৭ এবং উখিয়া সীমান্তের ওপারে ঢেকিবুনিয়ায় ২০৮ অভিবাসী প্রত্যাশীদের জড়ো করে রাখা হয়েছে। সাগর থেকে উদ্ধারকৃত এই ৯৩৫ জনকে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমান নয় বলে দাবি করেছে সে দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সন্ন্যাসীদের একটি দল। বৃহস্পতিবার ইয়াঙ্গুনে সন্ন্যাসীদের একটি র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় তারা ‘দ্য বোট পিপল আর নট ফ্রম বার্মা’ এবং দ্য ইউনাইটেড নেশন এ্যান্ড দ্য ইন্টারন্যাশনাল মিডিয়া আর মেকিং আপ স্টোরিজ’ লেখা সংবলিত প্ল্যাকার্ড বহন করে। উদ্ধারকৃত এসব অভিবাসীদের বেশিরভাগ সে দেশের রাখাইন প্রদেশের রোহিঙ্গা মুসলমান হলেও মিয়ানমার সরকারের পক্ষে তাদের বাংলাদেশী বলে চালিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে টেকনাফ থেকে নাইক্ষ্যংছড়ি পর্যন্ত বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিজিবি সদস্যদের সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে। অপরদিকে, মালয়েশিয়ায় আশ্রিত অভিবাসীদের মধ্যে ৭১৬ জন বাংলাদেশী হিসেবে নিশ্চিত করেছে কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস কর্মকর্তারা।

এদিকে থাইল্যান্ডে মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে সে দেশের সেনাবাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তা লে. জেনারেল মানাস কংপান তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন এবং সে দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তার পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। গ্রেফতারকৃত সেনা কর্মকর্তা মানাস আদালতে জামিন চাওয়ার তৎপরতায় রয়েছেন। কিন্তু পুলিশ বলেছে তারা তার জামিনের বিরোধিতা করে যাবেন। অপরদিকে, সরকার মানবপাচার আইনে কঠোর শাস্তির বিধান করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু। এছাড়া কক্সবাজার জেলায় দুই নারীসহ তিন মানবপাচারকারী দালালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এদিকে থাই পুলিশ এ পর্যন্ত ৮৪ জনের বিরুদ্ধে মানবপাচার কাজে জড়িত থাকার দায়ে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। যার মধ্যে এ পর্যন্ত গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১। সে দেশের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মানবপাচারের অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ থাকলেও লে. জেনারেল মানাস কংপানই একমাত্র ব্যক্তি যিনি সেনা সদস্য হিসেবে গ্রেফতার হলেন। তাকে গত সোমবার চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়ে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

এদিকে গ্রেফতারকৃত থাই জেনারেলের পক্ষে দাঁড়িয়েছেন সে দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্রয়িত উংসুয়ো। অপরদিকে গ্রেফতারকৃত ওই জেনারেলের জামিন আবেদন বাতিল করা হয়েছে। তার ব্যাপারে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় থাই প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, অভিযুক্ত জেনারেল কর্মজীবনে দেশের জন্য অনেক কিছু করেছেন, দেশকে অনেক কিছু দিয়েছেন। তিনি দৃঢ়কণ্ঠে বলেন, জেনারেল মানাসের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তা তদন্ত করতে বহু বছর পেছনে যেতে হবে। কর্মজীবনের প্রথম দিকে তিনি যখন রেনংয়ে অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বাহিনী অঞ্চল-৪ এ ছিলেন তখন থেকে তদন্ত করতে হবে। তখন তিনি কর্নেল পদের একজন কর্মকর্তা ছিলেন। এটা অনেক সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। থাই প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, থাই সেনাবাহিনীকে জেনারেল মানাসের কর্তব্যের সঙ্গে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সম্পর্কিত নয়। এদিকে জেনারেল মানাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে, মানবপাচারকারীদের সঙ্গে গোপন যোগসাজশ, মানবপাচারে অনৈতিক সহায়তা দেয়া ও পাচারের শিকার অভিবাসীদের মুক্তিপণ আদায়ের জন্য বন্দী রাখে। তবে গ্রেফতারকৃত জেনারেল মানাস তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি আদালতের শরণাপন্ন হবেন। থাই পুলিশ প্রধান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এ পর্যন্ত ৫০ পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে মানবপাচার কাজে সম্পৃক্ত থাকার সন্দেহে।

মালয়েশিয়া শিবিরে ৭১৬ বাংলাদেশী ॥ কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশী দূতাবাসের তথ্য অনুযায়ী সে দেশের আশ্রিত অবৈধ অভিবাসীদের মধ্যে ৭১৬ জন বাংলাদেশী বলে নিশ্চিত হয়েছে।

আরও তিন দালাল গ্রেফতার ॥ কক্সবাজার শহরে ও চকরিয়ায় বৃহস্পতিবার পৃথক অভিযান চালিয়ে পুলিশ মহিলাসহ তিন মানবপাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে। কক্সবাজারের চকরিয়ায় নারীসহ দুই মানবপাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাওয়ার পথে নিখোঁজ ৩ যুবকের স্বজনের দায়ের করা একটি মামলায় চকরিয়া থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে কোনাখালী মরংঘোনা থেকে মালয়েশিয়া প্রবাসী মোহাম্মদ হোছাইনের স্ত্রী ফটো বেগম ও আবদুর রহিমের পুত্র কামাল হোছাইনকে গ্রেফতার করেছে।

৩৫০ মানবপাচারকারীর তালিকা ॥ কক্সবাজার জেলা পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাবসহ আইন প্রয়োগকারী সদস্যরা জেলায় ৩৫০ জন মানবপাচারকারীর তালিকা তৈরি করেছে। এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েরও প্রেরিত ১৭৬ জনের একটি তালিকা রয়েছে। উভয় তালিকায় কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি, টেকনাফ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ ও বদির ভাই মৌলভী মুজিবুর রহমান, শফিক, ফয়সাল ও তার অনেক আত্মীয়স্বজন এবং আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত রাজনৈতিক নেতার নাম রয়েছে বলে সূত্রে জানা গেছে।

রেবি ম্যাডাম অপরাধ ঢাকতে মরিয়া ॥ বর্তমান সময়ের ‘টক অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ ইস্যু সাগর পথে মালয়েশিয়ায় মানবপাচার বিষয়ে কথা উঠলে যে নামটি মুহূর্তেই সামনে চলে আসে তা রেজিয়া আকতার রেবি ওরফে ‘রেবি ম্যাডাম’। মালয়েশিয়ায় মানবপাচারের বাংলাদেশে যে তিন শতাধিক পাচারকারী রয়েছে তার মধ্যে এই রেবির নাম তালিকার শীর্ষ পর্যায়ে। খ্যাতিও পেয়েছে মানবপাচারের ‘গড়মাদার’। এই অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে এরই মধ্যে দু’বার জেলও খেটেছেন।

মালয়েশিয়ায় ৭১৬ বাংলাদেশীর পরিচয় নিশ্চিত ॥ মালয়েশিয়ায় শরণার্থী শিবিরে আশ্রিত অবৈধ অভিবাসীদের মধ্যে অন্তত ৭১৬ জন বাংলাদেশীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর প্রাথমিক তালিকা তৈরি করেছে মালয়েশিয়া। দেশটির রাজধানী কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ইয়াঙ্গুনে বৌদ্ধ সন্ন্যাসীদের প্রতিবাদ র‌্যালি ॥ মিয়ানমারে উদ্ধারকৃত অবৈধ অভিবাসীরা রোহিঙ্গা মুসলিম নয় বলে দাবি করেছে সে দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সন্ন্যাসীদের একটি দল। বৃহস্পতিবার ইয়াঙ্গুনে কয়েক শ’ বৌদ্ধ নাগরিকদের সঙ্গে নিয়ে সন্ন্যাসীদের এক প্রতিবাদ র‌্যালি করেছে।

প্রকাশিত : ৫ জুন ২০১৫

০৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: