কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ সন্ত্রাসী নাছির নিহত, অস্ত্র

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, লক্ষ্মীপুর, ৩ জুন ॥ লক্ষ্মীপুরে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ১৫টি হত্যাসহ ৩৭টি মামলার পলাতক আসামি পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী নাছির বাহিনী প্রধান নাছির উদ্দিন নাছির ডাকাত (৩৪) নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের সুতার গোপটা নামক স্থানে বেলায়েত মিয়ার ইটভাঁটিতে এ ঘটনা ঘটে। লাশ লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। নিহত নাছির উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের দেওপাড়া গ্রামের তোফায়েল আহমদের ছেলে। সে পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী এবং স্থানীয় নাছির বাহিনীর প্রধান ছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান জানান, ভোরে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভবানীগঞ্জ এলাকার একটি ইটভাঁটির সামনে দিয়ে র‌্যাবের টহলরত গাড়ী যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা তাদের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। খবর পেয়ে সেখানে দুই পিকআপ ভ্যান পুলিশ পাঠানো হয়।

র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের উপপরিচালক কোম্পানি অধিনায়ক মেজর এজেডএম সাকিব সিদ্দিকী জানান, রাতে ভবানীগঞ্জ এলাকায় নাছির বাহিনী ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এ সময় র‌্যাবের নিয়মিত টহলদল কমলনগরে যাচ্ছিল। র‌্যাব ওই এলাকায় পেঁৗঁছালে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এতে নাছির গুলিবিদ্ধ হয়। অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আহত নাছিরকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পরে জানা গেছে, নিহত ব্যক্তি সন্ত্রাসী নাছির বাহিনীর প্রধান নাছির। র‌্যাব এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি এলজি, একটি ম্যাগজিন ও ১৫ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে। পুলিশ সুপার জানান, তার বিরুদ্ধে ১৫টি হত্যা মামলা, ডাকাতি, চাঁদাবাজি, অগ্নিসংযোগসহ সদর ও চন্দ্রগঞ্জ থানাসহ বিভিন্ন থানায় ৩৭টি মামলা রয়েছে। তিনি আরও জানান, কুমিল্লা কোতোয়ালি, নোয়াখালীর চাটখিল, বেগমগঞ্জ, লক্ষ্মীপুরের সদর, চন্দ্রগঞ্জ ও রায়পুর থানায় বিভিন্ন থানায় এ সব মামলা রয়েছে।

অপরদিকে এলাকাবাসী জানায়, বিএনপি রিক্রুট করা নাছির বাহিনীতে ৪৫ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী রয়েছে। তাদের ভয়ে জেলা সদরের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের লোকজন সব সময় তটস্থ থাকে। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তির ভাব ফিরে এসেছে। পুলিশ বলেছে, তার বাহিনীর সদস্যরা অনেকেই নির্বৃত্ত হয়ে গেছে এবং মারা গেছে। অপরদিকে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ প্রহরায় দত্তপাড়ায় গ্রামের বাড়িতে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত আকারে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

এদিকে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধ সন্ত্রাসী নাছির নিহত ও র‌্যাবের ওপর সশ¯্র হামলার ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সদর থানায় মঙ্গলবার পৃথক দু’টি মামলা হয়েছে বলে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন। অজ্ঞাত সংখ্যক লোককে আসামি করা পৃথক দু’টি মামলায় তবে এ পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করার খবর পাওয়া যায়নি।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: