মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫
  • জিপিএ-৫

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ॥ এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ এবং জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে বিভিন্ন বোর্ডে মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে। এ বছর পরীক্ষায় অংশ নেয়া মোট ১৪ লাখ ৭৩ হাজার ৫৯৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে ছেলের সংখ্যা ছিল সাত লাখ ৬১ হাজার ৬৩০ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা ছিল সাত লাখ ১১ হাজার ৯৬৪ জন। পাস করা মোট ১২ লাখ ৮২ হাজার ৬১৮ জনের মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা ছয় লাখ ৬৫ হাজার ৭৬৪ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা ছয় লাখ ১৬ হাজার ৮৫৪ জন। জিপিএ-৫ পাওয়ার ক্ষেত্রেও মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে। মোট এক লাখ ১১ হাজার ৯০১ জনের মধ্যে ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬০ হাজার ৩৭০ জন এবং মেয়েরা পেয়েছে ৫১ হাজার ৫৩১ জন। শনিবার প্রকাশিত ফল বিশ্লেষণ করে এ চিত্র দেখা যায়।

ঢাকা বোর্ডের প্রায় সবদিক থেকেই ছেলেদের চেয়ে মেয়েদের অর্জন বেশি। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল তিন লাখ ২৭ হাজার ৫২০ জন। তবে এদের মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ছিল বেশি। ছাত্রের সংখ্যা এক লাখ ৭৪ হাজার ৪০৪ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা এক লাখ ৭৫ হাজার ৩৩৬ জন। এই বোর্ডে জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকেও ছেলেদেরকে ছাড়িয়ে গেছে মেয়েরা। মোট ৩৬ হাজার ৮০১ জিপিএ-৫ এর মধ্যে মেয়েরা পেয়েছে ১৮ হাজার ৫৬৯ জন এবং ছেলেরা পেয়েছে ১৮ হাজার ২৩২ জন।

রাজশাহী বোর্ডে মেয়েদের থেকে ছেলেরাই এগিয়ে। এই বোর্ডে পরীক্ষায় অংশ নেয়া মোট এক লাখ ২৭ হাজার ৫২০ শিক্ষার্থীর মধ্যে ছেলের সংখ্যা ৬৬ হাজার ৬৮৯ এবং মেয়ের সংখ্যা ৬০ হাজার ৮৩১ জন। ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে আট হাজার ৬১২ জন এবং মেয়েরা পেয়েছে সাত হাজার ২৬১ জন।

কুমিল্লা বোর্ডে অংশগ্রহণের দিক থেকে মেয়েরা এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ পাওয়া দিক থেকে এগিয়ে রয়েছে ছেলেরা। এই বোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেয়া মোট এক লাখ ৪৫ হাজার ৭৬৮ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৭৮ হাজার ৫১৩ জন এবং ছাত্রের সংখ্যা ৬৭ হাজার ২৫৫ জন। ছাত্ররা জিপিএ-৫ পেয়েছে পাঁচ হাজার ৪৯২ জন। এখানে মেয়েদের সংখ্যা চার হাজার ৭০৩ জন।

যশোর বোর্ডের প্রায় সব দিক থেকে ছেলেরাই এগিয়ে রয়েছে। পরীক্ষায় অংশ নেয়া এক লাখ ২৮ হাজার ১৭৫ জনের মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৫৩৭ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা ৬২ হাজার ৬৩৮ জন। এখানে মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা বেশি জিপিএ-৫ পেয়েছে। এই বোর্ডে চার হাজার ১৩১ জন ছাত্র এবং তিন হাজার ৫০ জন ছাত্রী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

চট্টগ্রাম বোর্ডে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দিক থেকে মেয়েরা ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে তারা পিছনে পড়ে গেছে। এই বোর্ডের অধীনে ৮৮ হাজার ৪৬৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৪৬ হাজার ৫৬০ জন এবং ছাত্রের সংখ্যা ৪১ হাজার ৯০৮ জন। তবে ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে তিন হাজার ৬১৬ জন এবং মেয়েরা পেয়েছে তিন হাজার ৫০০জন।

ঢাকা বোর্ডের মতো বরিশাল বোর্ডেরও প্রায় সব দিক থেকেই ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে মেয়েরা। এই বোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেয়া মোট ৭০ হাজার ৪৫৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৩৫ হাজার ২২৯ জন এবং ছাত্রের সংখ্যা ৩৫ হাজার ২২৭ জন। এখানে মেয়েরা জিপিএ-৫ পেয়েছে এক হাজার ৬২৫ জন এবং ছেলেরা পেয়েছে এক হাজার ৫৪৬ জন।

সিলেট বোর্ডে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দিক থেকে ছেলেদের থেকে মেয়েরা এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে তারা পেছনে পড়ে গেছে। এই বোর্ডের অধীনে মোট ৭২ হাজার ২৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ছিল ৩৯ হাজার ৬১১ জন এবং ছাত্রের সংখ্যা ৩২ হাজার ৪১৩ জন।

দিনাজপুর বোর্ডে সব দিক থেকেই মেয়েদের থেকে ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে। এই বোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেয়া মোট এক লাখ ২৬ হাজার ৫৩২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ছেলের সংখ্যা ৬৪ হাজার ৯২৯ এবং মেয়ের সংখ্যা ৬১ হাজার ৬০৩ জন। ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে পাঁচ হাজার ৮৭১ জন এবং মেয়েরা পেয়েছে চার হাজার ৯৭১ জন।

মাদরাসা বোর্ডের অধীনে মোট দুই লাখ ৫৪ হাজার ৬২২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা এক লাখ ৩১ হাজার ৯২৩ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা এক লাখ ২২ হাজার ৬৯৯ জন। মোট ১১ হাজার ৩৩৮ জনের মধ্যে ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে সাত হাজার ২৯৮ জন এবং মেয়েরা পেয়েছেন চার হাজার ৪০ জন।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মোট এক লাখ ১০ হাজার ২৮৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছেলেদের সংখ্যা ছিল ৮১ হাজার ৩৪৫ জন এবং মেয়েদের সংখ্যা ২৮ হাজার ৯৪৪ জন। এই বোর্ডে ছেলেরা জিপিএ-৫ পেয়েছে চার হাজার ২৩৪ জন এবং মেয়েরা পেয়েছে দুই হাজার ৬৯৮ জন।

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫

৩১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: