আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তন আনবেন মেয়র আনিসুল

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামী ৬ মাসের মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকার বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তন আনার ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র আনিসুল হক। এছাড়া বর্জ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণের পাশপাশি বর্জ্যকে শূন্যে পরিণত নগরবাসীর কাছে তিনি ২ থেকে আড়াই বছর সময় চেয়েছেন। শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটে জাপানের ন্যায় বাংলাদেশে ‘গো মি জিরো‘ দিবস পালন উপলক্ষে পরিচ্ছন্ন নগরী সেøাগানে বিশেষ পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম উদ্বোধনকালে ডিএনসিসি মেয়র এসব কথা বলেন। উল্লেখ্য, জাপানের ৩০ মেকে বর্জ্যমুক্ত দিবস হিসেবে পালন করা হয় বিধায় ডিএনসিসি ৩য় বারের মতো এ দিবসটি পালন করছে বলে জানা গেছে।

উদ্বোধনী বক্তব্যে মেয়র বলেন, আমরা বর্জকে শূন্যে নামিয়ে আনার পরিকল্পনা করছি। এ জন্য নাগরিকদের এখন থেকে ২ থেকে আড়াই বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে আগামী ৬ মাসের মধ্যেই আমরা বর্তমান বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বিশেষ পরিবর্তন আনা হবে। যা আপনারা দেখতে পাবেন। আমি দায়িত্ব নিয়েছি ১৫ দিনও হয়নি তাই এ সময় আমাকে দিতে হবে। আমার এ কাজে সবচেয়ে বেশি সহায়তা করতে হবে জনগণের ভোটে নির্বাচিত কমিশনারদের পাশপাশি জনগণ যদি এগিয়ে না আসে তাহলে কোনক্রমেই তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে না। আমরা বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় উন্নত বিশ্বের ন্যায় কাজ করব। এ লক্ষ্যে আমরা বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করছি। নিয়মানুযায়ী দিনের বেলায় নয় রাতেই বর্জ্য সংগ্রহের কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না কেন সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, নগরীতে সুষ্ঠুভাবে বর্জ্য সংগ্রহ ও ব্যবস্থাপনার স্বার্থে আমরা দীর্ঘ পরিকল্পনা গ্রহণ করছি। আমা করি কিছুদিন পর এসব সমস্যা থাকবে না।

উদ্বোধন স্থানের আশপাশ পরিদর্শনকালে ফার্মগেটে বিআরটিসির বাসের টিকেট কাউন্টারের ওপর এবং পাশের দোকানের ওপর একটি বহুজাতিক কোম্পনির ও একটি মোটরবাইক কোম্পানীর বিশাল অবৈধ ব্যানার ও ফেস্টুন দেখে তিনি ডিএনসিরি প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাকে সঙ্গে সঙ্গে খুলে ফেলার নির্দেশ দেন। এ সময় তিনি বলেন যদি কেউ তা খুলতে বাধা দেয় তাহলে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানটিও বন্ধের ব্যবস্থা নিন। পরে মেয়রের উপস্থিতিতেই সঙ্গে সঙ্গেই ব্যানার ও ফেস্টুন দুটি খুলে ফেলা হয়। অনুষ্ঠানে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নাগরিকদের সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম এনামুল হক, সংস্থাটির সচিব সাঈদ শেখ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা বিপন কুমার সাহা, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলামসহ উর্ধতন কমকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠান শেষে নাগরিকগণসহ কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে ফার্মগেট আনন্দ সিনেমা হলের সামনে থেকে মানিক মিয়া এ্যাভিনিউয়ের শেষ পর্যন্ত একটি র‌্যালি বের হয়।

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫

৩১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: