আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পিএসজির হ্যাটট্রিক শিরোপা

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে শনিবার প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) ২-১ গোলে হারিয়েছে মন্টেপেলিয়ারকে। সেই সঙ্গে টানা তৃতীয়বারের মতো লীগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে পিএসজি। এ জয়ের ফলে চলতি মৌসুমে এক ম্যাচ হাতে রেখেই শিরোপা নিশ্চিত করল তারা। ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিওর তুলনায় ৮ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শিরোপা ধরে রাখল লরেন্ট ব্লাঙ্কের দল।

মন্টেপেলিয়ারের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে শিরোপা জয়ের জন্য মাত্র এক পয়েন্ট প্রয়োজন ছিল। অথবা লিও যদি ঘরের মাঠে ব্রডেক্সকে হারাতে না পারে তবেই পিএসজির শিরোপা জয় নিশ্চিত, ঠিক এমন সমীকরণ মাথায় রেখেই এদিন মন্টেপেলিয়ারের মাঠে খেলতে নেমেছিল লরেন্ট ব্লাঙ্কের শিষ্যরা। কিন্তু নিজেরা তো জিতেছেই, সেই সঙ্গে লিও ১-১ গোলে ড্র করায় পিএসজির শিরোপা-উল্লাসে মাততে আর কেউ বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। ম্যাচের প্রথমার্ধের ২৫ মিনিটের মধ্যেই ব্লেইস মাতোদি এবং এজাকুয়েল লাভেজ্জির দুই গোলে লীগে টানা অষ্টম জয় নিশ্চিত করে পিএসজি। ফলে ১৯৭০ সালে গঠিত ক্লাবটি এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো ফ্রেঞ্চ ওয়ান লীগের শিরোপা জয় করার কীর্ত গড়ল। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে পিএসজির কোচ লরেন্ট ব্লাঙ্ক জানিয়েছেন, টানা তৃতীয়বারের মতো লীগ শিরোপা জয়ের অনুভূতিটা অন্যরকম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘শিরোপা জয় করতে এ ম্যাচটির জন্য দীর্ঘদিন ধরেই অপেক্ষা করতে হয়েছিল। কিন্তু তারপরও এ জয় ছিল গত বছরের তুলনায় এবার অনেক বেশি উপভোগ্য। আমি এই চাকরিটা দারুণ উপভোগ করছি। এ জন্য আমি সকল কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। কারণ তাদের ছাড়া একজন কোচ আসলে কিছুই না।’ অথচ মৌসুমের দ্বিতীয়ার্ধে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে আসার সুযোগ পেয়েছিল লিও। কিন্তু শিরোপা হাতছাড়া হলেও আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন লীগে ফিরে আসার সুযোগ পেয়েছে তারা, যা থেকে সান্ত¡না পেতেই পারে লিও। শনিবার চোট আক্রান্ত তারকা ফুটবলার জøাতান ইব্রাহিমোভিচের অনুপস্থিতিতে ম্যাচের ১৭ মিনিটেই এগিয়ে যায় ফরাসী লীগে দাপট দেখানো পিএসজি। আদ্রিয়েন রাবোয়িটের দুর্দান্ত এক পাস থেকে পিএসজিকে এগিয়ে দেন মাতোদি। ৮ মিনিট পর মন্টেপেলিয়ারের রক্ষণভাগকে ফাঁকি দিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আর্জেন্টিনার অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার লাভেজ্জি। ৪০ মিনিটে ডানদিক থেকে উইঙ্গার এন্থোনি মোনিয়ারের লব শট আটকাতে ব্যর্থ হন পিএসজির গোলরক্ষক সালভাতোরে সিরিগু। তবে ম্যাচ শেষে স্বাগতিকদের এই গোল কার্যত কোন ব্যবধানই গড়তে পারেনি।

গত কয়েক মৌসুম ধরেই বিশ্বফুটবলের সেরা সেরা তারকাদের নিয়ে দল গড়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। তার ফলটাও উপভোগ করছে ফরাসী ক্লাব। টানা তিন মৌসুমে শিরোপা জয়ের কীর্তি গড়েছে তারা। তবে এই মৌসুমে পিএসজিকে শিরোপা উপহার দিতে যাদের ভূমিকা খুব গুরুত্বপূর্ণ তারা হলেনÑ ব্রাজিলিয়ান রক্ষণসৈনিক মারকুইনহোস। প্রতিপক্ষের জন্য সব ম্যাচেই দেয়াল হয়ে প্রতিরোধ করেন তিনি। মাঝ মাঠে পিএসজিকে দারুণভাবে নেতৃত্ব দিয়েছেন ইতালিয়ান তারকা মার্কো ভেরাট্টি। ২২ বছর বয়সী এ তারকার ক্যারিশমায় পিএসজির মাঝ মাঠ ছিল বেশিরভাগ সময়ই নিরাপদ। ভেরাট্টির সঙ্গে মাঝ মাঠে দুর্দান্ত খেলেছেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার জাভিয়ের পাস্তোরিও। আর আক্রমণভাগে জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচ ও এডিসন কাভানির ভূমিকা তো প্রশংসারও উর্ধে। চলতি মৌসুমের শেষটায় সুইডিশ তারকা বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেও শুরু থেকেই তার পারফর্মেন্স ছিল দুর্দান্ত। প্রতিপক্ষের জালে নিয়মিতই গোল করে দলকে শিরোপা উপহার দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তিনি। আর উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ড এডিসন কাভানি ইব্রার সঙ্গে জুটি বেঁধে নিয়মিতই গোল করে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন।

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৫

১৮/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: