আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

র‌্যাবের পোশাক পরাদুর্বৃত্তের কবলে পড়ে হবিগঞ্জের পাঁচ যুবক নিখোঁজ

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ১৪ মে ॥ র‌্যাবের পোশাক পরিহিত একদল দুর্বৃত্তের কবলে পড়ে হবিগঞ্জ থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে যাওয়া পাঁচ যুবক এখনও নিখোঁজ রয়েছে। বুধবার মধ্য রাতে ফেনী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সোমবার সকালে হবিগঞ্জের উপজেলা মাধবপুরের পল্লী রিয়াজনগরের বাসিন্দা জলফু মিয়ার ছেলে পাবেল আহমেদ হবিগঞ্জ শহরের পিটিটিআই সড়ক এলাকা থেকে একটি মাইক্রোবাস (নং-ঢাকা- মেট্রো-ছ-১৪-৭৮) ভাড়া নিয়ে পাঁচ বন্ধু হবিগঞ্জ থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের উদ্দেশে রওনা হয়। সেখানে দুদিন অবস্থানের পর যুবকরা বুধবার সকালে হবিগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হলে পথিমধ্যে ফেনীর একটি হোটেলে দুপুরের খাবার খায়। এ সময় হবিগঞ্জ থেকে মাইক্রোবাসের মালিক যুবদল নেতা শ্যামল আহমেদ তার গাড়ি চালকের সঙ্গে কথা বলেন। চালক জানায়, হোটেলে খাওয়া শেষ করেই তারা হবিগঞ্জে ফিরবে। কিন্তু এ ঘটনার পর যুবকরা হবিগঞ্জের নিজেদের বাসায় ফিরে না আসায় পরিবারের সদস্যরা উৎকণ্ঠিত হয়ে পড়েন।

এদিকে মাইক্রোবাস ভাড়া নেয়া পাবেলের ভাই রুবেল ওই যুবকদের নিখোঁজ হওয়া নিয়ে বলেন, ওদেরই এক বন্ধু হবিগঞ্জে ফিরে আসায় তারা আরও জানতে পারেন যে, ফেনী অতিক্রমকালে র‌্যাবের পোশাক পরিহিত একদল দুর্বৃত্ত তাদের গাড়িটির গতিরোধ করে। একপর্যায়ে অস্ত্রের মুখে সকলকে জিম্মি করলেও এই যুবকটি কৌশলে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়। এদিকে নিখোঁজ যুবকদের সন্ধান করতে গিয়ে পাবেলের ভাই রুবেল ও তার কয়েকজন আত্মীয় হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলাধীন বানেশ্বর এলাকায় আরেকটি দুর্বৃত্তদলের কবলে পড়েন। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১০টি মোবাইল সেট ও অর্থকড়ি লুটে নেয় দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনার পর বুধবার মধ্য রাতেই হবিগঞ্জ মাইক্রোবাস শ্রমিকরা সদর থানায় অবস্থান নেন। সেই সঙ্গে নিখোঁজ মাইক্রোবাস চালকসহ যাত্রীদের উদ্ধারে পুলিশী সহযোগিতা চেয়েছেন তারা। এ বিষয়ে শ্রমিক নেতা আব্দুল কদ্দুছ মিডিয়া কর্মীদের বলেছেন, কক্সবাজার যাওয়া চালকসহ পাঁচ যাত্রীর খবর এখনও তারা পাচ্ছেন না। সদর ও মাধবপুর থানার পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, বিষয়টি তারা জানতে পারলেও লিখিত কোন অভিযোগ না পাওয়ায় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারছেন না।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৫

১৫/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: