মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নওগাঁয় আদিবাসী স্কুল এক যুগেও এমপিওভুক্ত হয়নি

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ১৩ মে ॥ নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা শাংশৈল আদিবাসী স্কুল এ্যান্ড কলেজের বেহাল দশা। দীর্ঘ ১ যুগেও এমপিওভুক্ত হয়নি প্রতিষ্ঠানটি। ফলে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। জানা গেছে, বিগত ২০০৪ সালে ১ জানুয়ারিতে বিদ্যালয়টির চালু করা হয়। ৫শ’ ৫০ ছাত্রছাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করে। বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকারী কোন সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন না। এছাড়াও নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে আদিবাসীদের শিক্ষা গ্রহণের এই প্রতিষ্ঠানটি। নিয়ামতপুর উপজেলা সদর থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ৪শ’ ৬৬ জন। এসব নানা সমস্যার কারণে বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। বিগত ৩ বছরের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১২ সালে জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ৭৬ জন, পাস করেছিল ৬০ জন। ২০১৩ সালে জেএসসিতে অংশগ্রহণ করেছিল ৪৪ জন, পাস করেছিল ৩৯ জন। ২০১৪ সালে জেএসসিতে অংশগ্রহণ করেছিল ৬৩ জন, পাস করেছিল ৬০ জন এবং বর্তমান ২০১৫ সালে জেএসসিতে অংশ নেবে ১শ’ ৩৬ জন। শাংশৈল আদিবাসী স্কুল এ্যান্ড কলেজ ২০১৪ সালে প্রথম নিজ নামে এসএসসিতে অংশগ্রহণ করে।

ঈশ্বরদীতে ঢেঁড়সের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

স্টাফ রিপোর্টার, ঈশ্বরদী ॥ চলতি মৌসুমে ঈশ্বরদীতে ঢেঁড়সের বাম্পার ফলন হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এ বাম্পার ফলন হয়েছে । এবার দাম কিছুটা বেশি হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুঁটে উঠেছে। গত মৌসুমে বিঘা প্রতি ঢেঁড়সের উৎপাদন ৬০ থেকে ৭০ মণ হলেও চলতি মৌসুমে প্রতি বিঘায় ঢেঁড়স উৎপাদন হয়েছে ৮০ থেকে ১শ’ মণ। খরচের তুলনায় দাম ভাল পাওয়ায় হাসিমুখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন চাষীরা। শুধুমাত্র ফলন ভাল হওয়ায় ঈশ্বরদীর মূলাডুলি সবজি হাট থেকে প্রতিদিন ৩৫ থেকে ৪০ ট্রাক ঢেঁড়স বাজারজাত করা হচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। প্রতিদিন ঢেঁড়সের ক্রেতা-বিক্রেতাদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠছে উত্তরাঞ্চলের অন্যতম প্রধান মূলাডুলি সবজি হাট। এখানে প্রতিদিন প্রায় ৩০Ñ৩৫ লাখ টাকার ঢেঁড়স ক্রয়-বিক্রয় করা হচ্ছে।

প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার

স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ স্মার্ট গ্রিন বিল্ডিং টেকনোলজি ব্যবহার করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই যে কোন স্থান থেকে বাড়ির বিদ্যুত, পানি ও গ্যাসের ব্যবহার নিশ্চিত করা যাবে। মোবাইল সুইচের মাধ্যমেই এসি, কম্পিউটার, লাইটসহ অন্যান্য ডিভাইস চালু এবং বন্ধ করা যাবে। মালিকের অনুপস্থিতে বাড়ি নিরাপদ আছে কিনা তা সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোনটি জানিয়ে দেবে। পুরো বাড়িতে কত ইউনিট বিদ্যুত খরচ হচ্ছে তাও জানিয়ে দেবে এই টেকনোলজি।

সত্যজিৎ রায়ের পৈত্রিক ভিটায় মেলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ১৩ মে ॥ জেলার কটিয়াদী উপজেলার মসুয়া গ্রামে বুধবার থেকে বিশ্ব বিখ্যাত চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের পৈত্রিক ভিটায় ৭ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা শুরু হয়েছে। সত্যজিৎ রায়ের পূর্বপুরুষ হরি কিশোর রায় চৌধুরী প্রায় ২শ’ বছর পূর্বে শ্রী শ্রী কাল ভৈরব পূজা উপলক্ষে এ মেলার প্রচলন করেন। মেলা উপলক্ষে এলাকায় ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। ১৯৪৭ সালের পূর্বে সত্যজিৎ রায়ের পরিবার ভারতে চলে যাবার পর থেকে এলাকাবাসী প্রতিবছর বৈশাখের শেষ বুধবার এ মেলার আয়োজন করে। এতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কবি-সাহিত্যিকসহ বিপুলসংখ্যক দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে।

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

১৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: