মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

তবু হাল ছাড়ছেন না পাকি স্পিন কোচ মুশতাক

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
  • আজ ঘুরে দাঁড়াবে পাকিস্তান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবার বাংলাদেশ সফরের শুরুতেই ব্যাকফুটে চলে গেছে পাকিস্তান দল। টানা দুই ম্যাচ হেরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ আগেভাগেই হাতছাড়া হয়ে গেছে। কিন্তু দলের মধ্যে মেধাবী ও দক্ষ ক্রিকেটারের ছড়াছড়ি যারা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করার জন্যই পাকিস্তান দলের হয়ে খেলতে পারছেন। প্রথম দুই ম্যাচে তারা নিজেদের সেরাটা দিতে না পারলেও পাক ক্রিকেটাররা ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে আত্মবিশ্বাসী আছেন। আর সেই আত্মবিশ্বাসেই আজ তৃতীয় ওয়ানডেতে ঘুরে দাঁড়াবে পাকিস্তান। এমনটাই আশাবাদ জানালেন পাক স্পিন কোচ মুশতাক আহমেদ। সেই সঙ্গে তিনি জানালেন বাংলাদেশ ভাল দল হিসেবেই জিতছে।

মঙ্গলবার দুপুরে শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে মুশতাক এসব কথা বলেন। ২-০ ব্যবধানে আগেই এগিয়ে গিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। এখন আর হারানোর কিছুই নেই। তবে শেষ ম্যাচে ভাল খেলে ঘুরে দাঁড়াতে চায় পাক শিবির। এ বিষয়ে মুশতাক বলেন, ‘আমাদের মধ্যে এই বিশ্বাসটা আসতে হবে যে আমরা পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটাতে পারি। আমাদের দলে অনেক তরুণ খেলোয়াড় আছে। এটা শুধু একটা ভাল ইনিংসের বিষয় এবং খুব ভাল একটা কিছু সবকিছু পাল্টে দিতে পারে। আমরা সর্বোচ্চ দিয়ে ইতিবাচক ক্রিকেট খেলব। (২-০) এটা আঘাত করছে। যখন তুমি আঘাত পাবে তখন ইতিবাচক দিকগুলোর প্রতি তাকাতে হবে। আমাদের দু’জন নবীন ক্রিকেটার এসেছেন যারা ফিফটি পেয়েছেন দুই ম্যাচে। ড্রেসিং রুমেও খেলোয়াড়রা যথেষ্ট ইতিবাচক আছেন।’ বাংলাদেশের পরিবেশ-পরিস্থিতির সঙ্গে বেশ পরিচিতি আছে পাক দলের। বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করলেন এ স্পিন কোচ। এ বিষয়ে মুশতাক বলেন, ‘বাংলাদেশকে আমাদের কৃতিত্ব দিতেই হবে। তারা খুবই আত্মবিশ্বাসী দল। আমরা ওই বিষয়টার প্রতি মনোযোগ দিচ্ছি না। নিজেদের শক্তিমত্তার ওপর আমাদের মনোযোগ দিতে হবে। আমরা সবাই শেষ ম্যাচ নিয়ে চিন্তিত। আমি মনে করি আমাদের বোলার এবং ব্যাটসম্যানরা যথেষ্ট ইতিবাচক। তারা নিজেদের সেরাটা দিতে চায়। আজ আমরা পরিস্থিতি পাল্টাতে পারি। ইনশাআল্লাহ আমরা ঘুরে দাঁড়াব এবং আশা করছি নিজেদের সেরাটাই দিতে সক্ষম হব।’ আগে ভাগে সিরিজ হার হলেও এখন আর অতীত নিয়ে কিছু ভাবতে নারাজ মুশতাক। বরং পরাজয়ের মধ্যেও ইতিবাচক বিষয়গুলো নিয়ে ভাবতে চান তিনি। মুশতাক বলেন, ‘আমাদের অতীত ভুলে যেতে হবে, এটাই অনুপ্রাণিত হওয়ার অন্যতম অংশ। দুই ম্যাচ হারার কারণে নিজেদের সক্ষমতা নিয়ে যে সন্দেহ তৈরি হয়েছে সেটা কোনভাবেই হতে দেয়া যাবে না। আমরা যদি আগের দুই ম্যাচ নিয়েই চিন্তা করি সেক্ষেত্রে তৃতীয় ম্যাচটা ভাল খেলা সম্ভব হবে না। ঘরোয়া ক্রিকেট এবং অতীতের নৈপুণ্য থেকে আমাদের ভাল স্মৃতিগুলো স্মরণ করতে হবে।’ দীর্ঘদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে তেমন সুবিধা করতে পারছেন না সাঈদ আজমল। তার বিষয়ে মুশতাক বলেন, ‘বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানরা স্পিনারদের বিরুদ্ধে বেশ ভাল। গত ২০ বছর ধরে যেভাবে তিনি বোলিং করেছেন সেই এ্যাকশনে পরিবর্তন এনেছেন। তিনি এখনও সফল হতে পারেননি। কিন্তু আমি জানি যে তিনি আগামী ম্যাচগুলোয় ভাল বোলিং করার ক্ষেত্রে আত্মবিশ্বাসী। তার বৈচিত্র্য এখনও দেখা যায়নি। তিনি সেটা নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করছেন। কারও জন্যেই অনেকদিন পর ফিরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা সহজ নয়। আমি সাঈদ আজমলের ওপর যথেষ্ট সন্তুষ্ট।’

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: