কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাঙালী জাতি কিছুটা হলেও কলঙ্কমুক্ত হয়েছে ॥ আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ একাত্তরের নরঘাতক ও কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের ফাঁসির দ- কার্যকর হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় দলটির নেতারা বলেন, আলবদর নেতা ও একাত্তরের গণহত্যাকারী কামারুজ্জামানের ফাঁসির দ- কার্যকর হওয়ার মাধ্যমে বাঙালী জাতি কিছুটা হলেও কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। সব যুদ্ধাপরাধীদের রায় কার্যকরের মাধ্যমে পুরো জাতি কলঙ্কমুক্ত হবেÑ এটাই জাতির প্রত্যাশা। এছাড়া এ রায় কার্যকরের মাধ্যমে আবারও প্রমাণিত হয়েছেÑ অপরাধ করলে তাকে শাস্তি পেতেই হবে। গণহত্যাকারীরা কোনভাবেই আইনের উর্ধে থাকতে পারে না।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সতিশ চন্দ্র রায় জনকণ্ঠের কাছে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ রায় কার্যকরের মাধ্যমে জাতি দ্বিতীয়বারের মতো কলঙ্কমুক্ত হলো। যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের মৃত্যুদ- কার্যকরের মধ্য দিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং কেউ-ই যে আইনের উর্ধে নয় তা আবারও প্রমাণিত হয়েছে। বাকি সব যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং রায় কার্যকরের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ অবশ্যই তাদের নির্বাচনী অঙ্গীকার পূরণ করবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আওয়ামী লীগের প্রধান নির্বাচনী অঙ্গীকারই ছিল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার। আর এ অঙ্গীকারের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েই পর পর দু’বার দেশবাসী বিশেষ করে দেশের নতুন প্রজন্ম ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আওয়ামী লীগকে দেশ পরিচালনার সুযোগ দিয়েছে। আওয়ামী লীগ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পালনেই একাত্তরের ঘৃণিত যুদ্ধাপরাধী, গণহত্যাকারী ও মা-বোনের সম্ভ্রমকারীদের বিচার করছে। শত ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত ও রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে সর্বোচ্চ আদালতের রায় অনুযায়ী যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের মৃত্যুদ- কার্যকরের মাধ্যমে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছে। প্রতিষ্ঠা করেছে আইনের শাসন। কামারুজ্জামানের ধারাবাহিকতায় আমরা সব যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যকর করে ৩০ লাখ শহীদের আত্মাকে শান্তি দেব। বাংলাকে কলঙ্কমুক্ত করব।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম জনকণ্ঠের কাছে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেন, কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী ও একাত্তরের ঘাতক কামারুজ্জামানের ফাঁসির রায় কার্যকরের মাধ্যমে জাতি আবারও কলঙ্কমুক্ত হলো। এ রায় কার্যকরের ফলে একাত্তরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবার কিছুটা হলেও সান্ত¡না পাবে। বিএনপি-জামায়াতসহ স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিরা যতই ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করুক, সব যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও রায় কার্যকরের মাধ্যমে বর্তমান সরকার বাঙালী জাতিকে বিচারহীনতার কলঙ্ক থেকে পুরোপুরি মুক্ত করবে ইনশাল্লাহ।

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: