আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কেপিকে দলে নেয়ার চিন্তাই করিনি ॥ মুরস

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত বছর জানুয়ারিতে সর্বশেষ ইংল্যান্ড দলের হয়ে খেলেছেন কেভিন পিটারসেন। অস্ট্রেলিয়া সফরে এ্যাশেজ টেস্ট সিরিজে ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয় ইংলিশরা। এরপরই কেপিকে দল থেকে বহিষ্কার করে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। কিন্তু আবারও জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেয়ার আশা ছাড়েননি ৩৪ বছর বয়সী পিটারসেন। আবারও দলে ডাক পাওয়ার আশায় আছেন। সম্প্রতিই তিনি ইংলিশ কাউন্টি দল সারেতে যোগ দেয়ার সময় এমনটাই জানিয়েছিলেন অভিজ্ঞ এ ক্রিকেটার। ধারাবাহিকভাবে রান করে দলে ফিরতে চান। কিন্তু এবার ইংল্যান্ডের কোচ পিটার মুরস নিজেই জানালেন তাদের চিন্তাভাবনায় কেপিকে দলের ফেরানোর কোন সম্ভাবনা নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও দলে কেপিকে বিবেচনা করার কোন কারণ নেই বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। এ মৌসুমে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় বিভাগ খেলবেন কেপি সারের হয়ে। এ বছরের শেষদিকে ঘরের মাঠে এ্যাশেজে ফেরার একটা বাসনা থেকেই সারেতে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু ইসিবি কোনভাবেই এখন আর পিটারসেনকে দলে ফিরিয়ে আনতে চায় না। বোর্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পল ডাউনটন আগেই জানিয়ে দিয়েছেন পিটারসেনকে আবারও দলে ফিরিয়ে আনার কোন কারণই নেই। এমনকি টেস্ট অধিনায়ক এ্যালিস্টার কুকও জানিয়েছেন কেপিকে ফিরিয়ে আনাটা হবে খুবই অস্বাভাবিক। কেপির ইংল্যান্ড দল থেকে ছিটকে পড়ার কারণটা ফর্ম নয় বরং ক্রিকেটারদের সঙ্গে নানা সময় বিবাদে জড়িয়ে পড়া। বেশ কয়েকজন সিনিয়র ক্রিকেটারের সঙ্গে বচসা হয়েছে পিটারসেনের। এ কারণেই ইসিবি তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে। ইসিবির চেয়ারম্যান পদে আসীন হতে চলেছেন কলিন গ্রেভস। তিনিও জানিয়েছেন পিটারসেন ইংল্যান্ডের হয়ে ক্যারিয়ারটা আবারও চালু করার ক্ষীণ সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে যদি এক বছর আগে জাতীয় দলের সঙ্গে যে শীতল সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন যদি সেটাকে কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হন। কিন্তু আপাতত আর সেটাও সম্ভব হচ্ছে না কেপির। কারণ কোচ মুরস জানালেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের তিন টেস্টের সিরিজে পিটারসেনকে কোনভাবেই বিবেচনায় আনেননি তারা। এ বিষয়ে মুরস বলেন, ‘আমার মনে হয়েছে পিটারসেন এ সফরে থাকবেন না। সে কারণে তার প্রতি আমার মনোযোগ দেয়ার প্রয়োজনই দেখি না। আমার মূল মনোযোগ হচ্ছে দলের অধিনায়ককে যথার্থ সমর্থন যোগানো। যেটা আমি সবসময়ই করে এসেছি। অধিনায়ক ও দলের ১৬ ক্রিকেটারের দিকেই আমার খেয়াল রাখতে হবে, অন্য কারও প্রতি নয়।’

ইংল্যান্ড টেস্ট দল ॥ এ্যালিস্টার কুক (অধিনায়ক), জেমস এ্যান্ডারসন, গ্যারি ব্যালান্স, ইয়ান বেল, জনি বেয়ারস্টো, স্টুয়ার্ট ব্রড, জস বাটলার, ক্রিস জর্ডান, এডাম লিথ, লিয়াম প্লাঙ্কেট, আদিল রশিদ, জো রুট, বেন স্টোকস, জেমস ট্রেডওয়েল, জনাথন ট্রট ও মার্ক উড।

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫

০৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: