আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এরশাদের উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ ঢাকা উত্তরে স্বতন্ত্র প্রার্থী

প্রকাশিত : ২২ মার্চ ২০১৫
এরশাদের উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ ঢাকা উত্তরে স্বতন্ত্র প্রার্থী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে মেয়র পদে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আলোচিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসেরের বড় ছেলে ববি হাজ্জাজ। জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের উপদেষ্টা তিনি। অনেকটা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন এই শিল্পপতি। এদিকে ঢাকা-উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করল ১৪ দলের শরিক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)। ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বিএনপির সাবেক নেতা চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকীর পুত্র ইরাদ আহমেদ। বিএনপি অংশ না নিলে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সফল হবে না বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী ।

উত্তরের মেয়র প্রার্থী ববি ॥ শনিবার রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে এইচ এম এরশাদকে ‘পিতৃতুল্য’ অভিহিত করে প্রার্থিতা ঘোষণা করলেন এরশাদের উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ। তিনি বলেন, সমগ্র ঢাকাবাসীর কাছে আগামী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নির্দলীয় মেয়র প্রার্থী হিসেবে আমি নিজের প্রার্থিতা ঘোষণা করছি। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এরইমধ্যে দলের দুই নেতাকে মেয়র পদে সমর্থনের ঘোষণা দিয়েছেন এরশাদ নিজেই। এ নিয়ে নেতাদের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। দাবি ওঠে প্রার্থী পরিবর্তনের।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এরশাদের সামনে জাপার এক নেতাকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিশতী পিস্তল উঁচু করে হত্যার হুমকি দেয়াসহ বিক্ষোভের ঘটনা পর্যন্ত ঘটেছে। প্রেসিডিয়াম সদস্য সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে এবং ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন আহমেদ বাবুলকে উত্তরে মেয়র পদে সমর্থনের কথা জানিয়েছে।

এ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ববি হাজ্জাজ বলেন, দলের বাইরে আমি যেতে পারি না। পল্লীবন্ধু এরশাদ আমার পিতৃতুল্য। তাঁর মেয়র প্রার্থী হওয়ায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের সায় আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, “উনার আশীর্বাদ সব সময় ছিল, আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে ইনশাল্লাহ। এটা নির্দলীয় নির্বাচন। ব্যক্তিগতভাবে আমি প্রার্থিতা ঘোষণা করেছি। অচিরেই তাঁর (এরশাদ) আশীর্বাদ নেব। তাঁর আশীর্বাদ ছাড়া আমি কোনো কাজ করি না।”

সিটি নির্বাচনে প্রার্থী দিল জাসদ ॥ ঢাকা মহানগর জাসদ সমন্বয় কমিটির সমন্বয়ক মীর হোসাইন আখতার ঢাকা সিটি কর্পোরেশন উত্তর এবং ঢাকা মহানগর পূর্ব জাসদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শহীদুল ইসলাম ঢাকা সিটি কর্পোরেশন দক্ষিণে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। শুক্রবার জাসদ ঢাকা মহানগর এর প্রতিনিধি সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। প্রতিনিধি সভা শেষে জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ নুরুল আম্বিয়া তাদের প্রার্থিতার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। শনিবার তা সংবাদমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

বিএনপি অংশ না নিলে সফল নির্বাচন হবে না ॥ আসন্ন তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিলে তা সফল হবে না বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম। তিনি বলেন, তিন সিটি নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে আওয়ামী লীগ নির্বাচন করবে না বরং নির্বাচন আরও পিছিয়ে দেয়া হবে। মতিঝিলে শনিবার কাদের সিদ্দিকী চলমান ৫৩ দিনের নিরবচ্ছিন্ন অবস্থান কর্মসূচীস্থলে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ঘোষণাকে বাচ্চাদের ললিপপ খাওয়ানোর মতো উল্লেখ করে কাদের সিদ্দিকী বলেন, একদিকে অবরোধ, অন্যদিকে পুলিশের গুলি। দেশের মানুষ যখন মরছে, তখন বাচ্চাদের কান্না থামানোর জন্য ললিপপ দেয়ার মতো ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন দেয়া হয়েছে। এই নির্বাচন দেশের জনগণের সঙ্গে তামাশা। এই নতজানু নির্বাচন কমিশনের অধীনে এ দেশে কোন নির্বাচন হতে পারে না। বিরোধী দল চ্যালেঞ্জ হিসেবে এই নির্বাচন করলে সরকারী দলের পরাজয় অবশ্যম্ভাবী।

কাদের সিদ্দিকী সরকারের উদ্দেশে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, সত্যিকারের নির্বাচন হলে সরকারী দলের প্রার্থী জামানত না হারালে আমি সারাজীবন শেখ হাসিনার সেবক হয়ে থাকব। সরকারী দলের প্রার্থীর জনগণের ভোটে নির্বাচিত হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। বিএনপি নেত্রীকে উদ্দেশ করে কাদের সিদ্দিকী বলেন, আপনি গো ধরে বসে থাকবেন না। এই ব্যর্থ আন্দোলন প্রত্যাহার করুন। আপনার আন্দোলন আর এখন আপনার হাতে নেই। এই আন্দোলন এখন গোয়েন্দাদের হাতে। আন্দোলনে বিরতি দেন। আন্দোলন শেখেন। তার পর আবার আন্দোলন শুরু করেন।

বিশ্বমানের ঢাকা গড়তে চান হেলেনা ॥ বিশ্বমানের ঢাকা গড়ে তুলতে চান এখন পর্যন্ত একমাত্র নারী মেয়র প্রার্থী হেলেনা জাহাঙ্গীর। এ লক্ষ্যেই প্রচার শুরু করেছেন তিনি। স্থানীয় সরকারের অধীনে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন হেলেনা। পেশায় নারী উদ্যোক্তা হলেও রোটারি ও মানবাধিকার বিষয়ক কাজেও তাঁর দীর্ঘদিনের কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

ডিএনসিসি নির্বাচনে অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি প্রথমে একজন মানুষ। নারী হিসেবে নয়, মানুষ হিসেবে মানুষের পাশে থাকতে চাই। কোন রাজনৈতিক দল, দলীয় কর্মী-সমর্থকের জন্য আমার নির্বাচন সাধারণ মানুষের জন্য। আমার রাজনীতি নগরবাসীর জন্য। তাদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, নাগরিক সঙ্কট-সমস্যার দূর করাই হবে আমার কাজ। মোট কথা হলো, আমি জনগণের মেয়র হতে চাই।

তিনি বলেন, দলের নই, দেশের হয়ে কাজ করতে চাই। তিনি বলেন, রাজধানী ঢাকাকে সারা বিশ্বের মধ্যে অন্যতম সেরা শহর করার লক্ষ্য নিয়ে আমি একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে ডিএনসিসি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যাচ্ছি। এক পুত্র ও দুই কন্যার জননী হেলেনা জাহাঙ্গীর মূলত দেশের ব্যবসা শিল্পে নিজেকে সফল করেছেন ক’টি প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার হয়ে। তিনি একাধারে নিট কনসার্ন প্রিন্টিং ইউনিট, জয় অটো গার্মেন্টস লিমিটেড ও জে.সি এমব্রয়ডারি অ্যান্ড প্রিন্টিং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ছেলের জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন তানভীর আহমেদ ॥ বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী ঢাকা সিটি কর্পোরেশন (উত্তর) নির্বাচনের জন্য মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

তবে তিনি নিজের জন্য নয়, ছেলে ইরাদ আহমেদের জন্য মনোনয়নপত্র কেনার কথা জানান। শনিবার দুপুরে প্রথম মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি। সাংবাদিকদের সাবেক এই বিএনপি নেতা বলেন, আমার ছেলে কোন দলের পক্ষে নয়, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবে। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তানভীরকে ২০০৮ সালের নির্বাচনের পর দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। ২০১২ সালে স্থগিত ডিসিসি নির্বাচনের সময় মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন তিনি।

প্রকাশিত : ২২ মার্চ ২০১৫

২২/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: