কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিরোপার কাছাকাছি বার্সিলোনা

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্প্যানিশ কোপা ডেল রে ফুটবলে শিরোপার সুবাস পেতে শুরু করেছে বার্সিলোনা। কাক্সিক্ষত ট্রফি জয় থেকে আর মাত্র এক জয় দূরে কাতালানরা। আগামী ৩০ মে শিরোপানির্ধারণী ম্যাচে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের প্রতিপক্ষ এ্যাথলেটিক বিলবাও। বুধবার রাতে আসরের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে বার্সিলোনা ৩-১ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক ভিয়ারিয়ালকে। বিজয়ী দলের হয়ে জোড়া গোল করেন ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক নেইমার। অপর গোলটি করেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। এর আগে ১১ ফেব্রুয়ারি ন্যুক্যাম্পে প্রথম লেগের ম্যাচেও বার্সা জিতেছিল ৩-১ গোলে। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৬-২ গোলের বিশাল জয় নিয়ে ফাইনালে নাম লিখিয়েছে বার্সিলোনা। আরেক সেমিতে এস্পানিওলকে ২-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে এ্যাথলেটিক বিলবাও। প্রথম লেগের ম্যাচ ড্র হয়েছিল ১-১ গোলে। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে বিলবাওয়ের জয় ৩-১ গোলে। ভিয়ারিয়ালের মাঠে শুরু থেকেই আধিপত্য ধরে রেখে খেলতে থাকে বার্সিলোনা। তৃতীয় মিনিটেই নেইমারের গোলে এগিয়ে যায় অতিথিরা। এই গোলে দারুণ অবদান সুয়ারেজ ও লিওনেল মেসির। মাঝ মাঠের আগে থেকে উড়ে আসা বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান দিকে থাকা মেসিকে লম্বা পাস দেন উরুগুইয়ান তারকা। এরপর আর্জেন্টাইন অধিনায়কের রক্ষণের ওপর দিয়ে বাড়ানো বলে আলতোভাবে পা ছুঁইয়ে গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে জড়ান ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। ৩৮ মিনিটে পাল্টাআক্রমণে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। কিন্তু তার শট রক্ষণভাগে প্রতিহত হয়। পরের মিনিটেই সমতা ফেরায় স্বাগতিকরা। বামপ্রান্ত থেকে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার জাউমা কোস্টার ক্রসে দারুণ শটে বল জড়ান মেক্সিকোর মিডফিল্ডার জোনাথন ডস সান্টোস। এই গোলের পর লড়াইয়ে ফেরার আভাস দেয় ভিয়ারিয়াল। বিরতির পর শুরু থেকে চড়াও হয়ে খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু ৬৫ মিনিটে মিডফিল্ডার টমাস পিনা লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে খেই হারিয়ে ফেলে ভিয়ারিয়াল। এরপর সুয়ারেজ ও নেইমারের দুই গোলে আর কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারেনি তারা। নেইমারকে বিপজ্জনক ফাউল করে বহিষ্কার হন টমাস। ৭২ মিনিটে আবারও দলকে এগিয়ে দেয়ার সুযোগ নষ্ট করেন নেইমার। তার কোনাকুনি শটটি রুখে দেন ভিয়ারিয়াল গোলরক্ষক। পরের মিনিটে বার্সাকে এগিয়ে নেন সুয়ারেজ। আর্জেন্টাইন ফুটবলার জ্যাভিয়ের মাশ্চেরানোর বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দ্রুতগতিতে ডি বক্সে ঢুকে গোলরক্ষকে কাটিয়ে গোল করেন সাবেক লিভারপুল তারকা। ফলে সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা তিন ম্যাচে গোল করলেন সুয়ারেজ। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে দলের তৃতীয় ও নিজের দ্বিতীয় গোল করেন নেইমার। হেড থেকে গোলটি করেন তিনি। ম্যাচে বল দখলে বার্সা এগিয়ে থাকলেও বেশি আক্রমণ শাণায় ভিয়ারিয়াল। স্বাগতিকরা লক্ষ্যে শট নিয়েছে ৬টি, সেখানে বার্সার ৫টি। অবশ্য ফাউলেও এগিয়ে ছিল স্বাগতিকরা। ভিয়ারিয়াল ফাউল করে ১২টি, বার্সা ৬টি। মেসি ছিলেন অনেকটা তাঁর ছায়া হয়ে। তৃতীয় মিনিটে নেইমার, ২৪ মিনিটে ইনিয়েস্তাকে ক্রস দেয়া আর ৫৫ মিনিটে চার ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দারুণ এক শট নেয়া ছাড়া মেসিকে ঠিক তার মতো দেখা যায়নি।

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

০৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: