আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জিতে খুশি ম্যাককুলাম, ভয়ানক ম্যাচ বললেন ক্লার্ক

প্রকাশিত : ১ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অকল্যান্ডে ‘হাইপ্রোফাইল’ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১ উইকেটের নাটকীয় জয় পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। ৩২.২ ওভারে ১৫১ রানে অলআউট হয় সাবেক চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, জবাবে ২৩.১ ওভারে ৯ উইকেট হারাতে হয় কিউইদের! সর্বমোট ৫৫.৩ ওভারে উইকেট পড়ে ১৯টি। ম্যাচের নায়ক ট্রেস্ট বোল্ট নেন ৫ ও ‘ট্র্যাজিক হিরো’ মিচেল স্টার্ক ৬টি করে উইকেট। পিচ নিয়ে বিশ্লেষণে গেলেও খেলা শেষে পেসার বোল্ট-টিম সাউদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ব্ল্যাক ক্যাপস অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম। অন্যদিকে এটিকে জীবনের অন্যতম ‘ভয়ানক ম্যাচ’ বলে আখ্যায়িত করেছেন ইনজুরির পর প্রত্যাবর্তনেই হার দেখা অসি সেনাপতি মাইকেল ক্লার্ক!

‘এটাকে নরকে ক্রিকেট-সৌন্দর্য বিলানোর সঙ্গে তুলনা করা যায়! সাধারণত আপনি এমন ম্যাচ দেখবেন না। বিশ্বকাপে এবার হামেশা ৩শ’ বা তার বেশি রান হচ্ছে। অকল্যান্ড সেখানে ব্যতিক্রম। এখানে বড় স্কোর নেই অনেক দিন। তাই বোলারদের ভাল করার সম্ভাবনা ছিল, তবে সেটা যে এতটা প্রকট হবে, আমি তা ভাবতেই পারিনি। জবাবে ১৫২ রান করতে আমাদের ৯ উইকেট পড়ে যাওয়ায় ইডেন পার্কের পিচ নিয়ে নিশ্চই প্রশ্ন থাকবে না! দু-দলের বোলাররাই ভাল করেছে, সর্বোপরি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাওয়া জয়ে সন্তুষ্ট আমরা।’ বলেন ম্যাককুলাম। ম্যাচে ২৪ বলে ৫০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে যিনি জয়ের পথে যিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

পেসারদের কৃতিত্ব দিয়ে কিউই অধিনায়ক আরও যোগ করেন, ‘বোল্ট এবং সাউদি অসাধারণ বোলিং করেছে, বোল্ট ছিল খুবই ভয়ঙ্কর। গত এক বছর ধরে আমাদের টেস্ট-ওয়ানডে সাফল্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিক ওদের।’ ১০ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন বোল্ট। তার আগে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার এ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নারকে ফেরান তার সঙ্গী টিম সাউদি। স্বল্প পুঁজি নিয়েও ম্যাচ রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতিতে নিয়ে যাওয়ার নায়ক অবশ্য প্রতিপক্ষ মিচেল স্টার্ক। ক্যারিয়ারসেরা বোলিংয়ের পথে অস্ট্রেলিয়া পেসার নেন ৬ উইকেট। তার প্রশংসা করতেও ভোলেননি ম্যাককুলাম। ‘দু-দলই দেখিয়েছে তাদের কী রকমের মানসম্পন্ন পেসার আছে। স্টার্ক তাদের হয়ে এবং বোল্ট আমাদের হয়েÑ দু’জনই ছিল অসাধারণ, অবিশ্বাস্য বোলিং করেছে ওরা। দুর্দান্ত গতির সঙ্গে ছিল ভয়ঙ্কর সব ইয়র্কার আর সুইং।’

বিশ্বকাপে মাইকেল ক্লার্কের শুরুটা হলো হার দিয়ে। এ জন্য নিজেদের ব্যাটিং ব্যর্থতার পাশাপাশি বোলারদের দাপুটে লড়াইকে ‘ভয়ানক’ বলে উল্লেখ করেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক, ‘পিচ নয়, হারের জন্য আমি বরং আমাদের ব্যাটসম্যানদেরই দোষারোপ করব। হ্যাডিন ছাড়া কেউই নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারিনি। দেড় শ’ রানে অলআউট হওয়ার ব্যাখ্যা থাকতে পারে না। এত অল্প পুঁজি নিয়েও ম্যাচটা প্রায় বের করে নিতে যাচ্ছিলাম আমরা! এর কৃতিত্ব বোলারদের, যেখানে স্টার্কেল কথা বিশেষভাবে না বললেই নয়।’ আর সন্তুষ্ট ম্যাচের নায়ক ট্রেন্ট বোল্ট বলেন, ‘শুরুতে আমরা অস্ট্রেলিয়াকে ভালভাবে বেঁধে ফেলেছিলাম। আমার মাথায় দ্বিতীয় স্পেলে ফিরে আসার ভাবনা ছিল, কিন্তু ৫ উইকেট পাব সেটা কখনও চিন্তা করিনি।’

উল্লেখ্য, প্রথম স্পেলে ৫ ওভারে ২৪ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকা বোল্ট নিজের দ্বিতীয় স্পেলে বাকি ৫ ওভারে মাত্র ৩ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট!

প্রকাশিত : ১ মার্চ ২০১৫

০১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: