মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মমতার সফরের প্রাক্কালে উত্তর জনপদে তিস্তা অভিমুখী রোডমার্চ

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

মানিক সরকার মানিক, রংপুর থেকে ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলাদেশ সফরের জন্য অভিনন্দন জানিয়ে তাঁকে রংপুর অঞ্চলে এসে তিস্তার বিরূপ প্রতিক্রিয়ায় এলাকা যে মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে, সেই চিত্র দেখে যাওয়ার আহ্বান জানালেন তিস্তা অভিমুখে রোডমার্চের নেতৃবৃন্দ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নীলফামারীর তিস্তা ব্যারাজ অভিমুখে রোডমার্চ নিয়ে যাওয়ার পথে রংপুরের বড়ভিটায় এ আহ্বান জানান। তিস্তাসহ সকল অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় ও তিস্তা সেচ প্রকল্পের আওতাধীন সকল জমিতে পানির দাবিতে বেলা সাড়ে ১১টায় রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে থেকে রোডমার্চ নিয়ে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)। এর আগে সেখানে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাসদ কেন্দ্রীয় পরিকল্পনা কমিটির সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী। এরপর যাত্রা শুরু করে ডালিয়ায় অবস্থিত দেশের সর্ববৃহৎ সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজে। সেখানে যাওয়ার পথে রোডমার্চের দলটি রংপুরের পাগলাপীর, খলেয়া গঞ্জিপুর, চন্দনের হাট, মাগুড়া বাসস্ট্যান্ড ও বড়ভিটায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখে। শুভ্রাংশু চক্রবর্তী বলেন, ধু ধু বালুচরে পরিণত হওয়া তিস্তা নদীর অববাহিকার লাখো কৃষক এখন চাতক পাখির মতো পানির আশায় বুক বেঁধে আছে। সেখানে আরও বক্তব্য রাখেনÑ কেন্দ্রীয় সদস্য ওবায়দুল্লাহ মুসা, মনজুর আলম মিঠু, আনোয়ার হোসেন বাবলু, পলাশ কান্তি নাগ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ভারত তাদের বিভিন্ন স্থানে জলবিদ্যুত স্থাপন করে পানিকে আটকে রেখেছে, যে কারণে এ অঞ্চলের মানুষ পানি সমস্যায় হিমশিম খাচ্ছে। পানির অভাবে কৃষক জমি চাষ করতে পরাছে না। জেলেরা আজ বেকার হয়ে পড়েছে। এ মৌসুমে যাতে নদীতে ৪৬০ কিউসেক পানি থাকে এর নিশ্চয়তা চাই আমরা। নেতৃবৃন্দ বলেন, এই দাবি যদি এক মাসের মধ্যে পূরণ করা না হয় তবে আগামী মার্চের ২০-২১ তারিখে আমরা প্রধানমন্ত্রী বরাবর দাবিনামা পেশ করব।

জলঢাকায় বাসদের জনসভা ॥ এদিকে স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী জানান, তিস্তাসহ সকল অভিন্ন নদীর পানি ন্যায্য হিস্যাসহ চার দফা দাবিতে নীলফামারীর জলঢাকায় জনসভা করেছে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ (মার্কসবাদী)। বৃহস্পতিবার সকালে রংপুর প্রেসক্লাব থেকে তিস্তা অভিমুখে রোডমার্চের অংশ হিসেবে বিকেলে জলঢাকার জিরোপয়েন্টে জনসভার আয়োজন করে দলটি। নীলফামারী জেলা বাসদের সংগঠক ডাঃ রবীন্দ্রনাথ রায়ের সভাপতিত্বে সেখানে বক্তব্য রাখেনÑ বাসদ (মাকর্সবাদী) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কৃষিবিদ ওবায়দুলাহ মুসা, কেন্দ্রীয় বর্ধিত কমিটির সদস্য মনজুর আলম মিঠু, রংপুর জেলা সমন্বয়ক আনোয়ার হোসেন বাবলু, রংপুর জেলা সমাতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আহসানুল আরেফিন টিটু, পলাশ কান্তি নাগ, রোকনুজ্জামান রোকন প্রমুখ।

এর আগে রোডমার্চ রংপুর নগরীর প্রধান সড়ক অতিক্রম করে পথিমধ্যে মেডিক্যাল মোড়, পাগলাপীর, গঞ্জিপুর, চন্দনের হাটে পথসভায় মিলিত হয়। রোডমার্চটি তিস্তা ব্যারাজ পর্যন্ত যাওয়ার কথা থাকলেও অয়োজকরা তা জলঢাকায় সমাবেশের মাধ্যমে শেষ করেন।

জলঢাকার সমাবেশে বক্তারা বর্তমান সরকার ও বিএনপির সমালোচনা করে বলেন, জোট ও মহাজোট সরকার কেউই তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে পারেনি। ঐক্যবদ্ধ লড়াই-সংগ্রামের মধ্যদিয়ে পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ের আহ্বান জানান তাঁরা।

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২০/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: