মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সহিংসতা বন্ধের পক্ষে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান সহিংসতা জরুরীভিত্তিতে বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে সফররত ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দল। চার দিনের পর্যালোচনা সফর শেষে বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে ইউরোপীয় সংসদের মানবাধিকার বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্যরা চলমান সহিংসতা বন্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও স্থানীয় সুশীল সমাজের সঙ্গে একমত প্রকাশ করে রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সর্বশেষ ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যতে প্রতিনিধি দলটি তাদের পর্যালোচনা কার্যক্রম শেষ করে। ওই আলোচনায় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি দলকে স্পষ্টই জানিয়ে দেয়া হয়, ‘সহিংসতা বন্ধ না করলে কোন আলোচনা হবে না।’ অবশ্য ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলটিও সহিংসতা বন্ধের পক্ষেই অভিমত ব্যক্ত করেছে। শুধু ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ-ই নয়, বৃহস্পতিবার বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে বৈঠকে দলটি সহিংস পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

ঢাকায় সফররত ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলটির সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা। ধানম-িতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠক হয়। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচনের সময় এলে তার আগে কথা বলা যাবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করাসহ নতুন নিয়ম হতে পারে। তবে তা অবশ্যই হতে হবে ডেমোক্রেটিক ফ্রেমওয়ার্কের মধ্যে। আর চলমান সন্ত্রাস-নাশকতা বন্ধ না করলে কোন সংলাপ হবে না। সেই সঙ্গে সহিংসতা সৃষ্টিকারীদের বিচারের জন্য সরকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করবে বলেও জানান গওহর রিজভী।

বৈঠকে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলে গওহর রিজভীর সঙ্গে ছিলেনÑ মসিউর রহমান, এইচ টি ইমাম, এম জমির, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, দীপু মনি, ফারুক খান প্রমুখ। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের মানবাধিকার বিষয়ক উপ-কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্রিশ্চিয়ান দান প্রেদার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলের কেউ সাংবাদিকদের সঙ্গে কোন কথা বলেননি।

স্পীকারের সঙ্গে প্রতিনিধি দলের বৈঠক ॥ সহিংসতা কখনও গণতন্ত্র বা রাজনীতির অংশ হতে পারে না বলে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে স্পীকারের অফিসে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলের সাক্ষাতের সময় স্পীকার এ কথা বলেন। মানবাধিকার বিষয়ে আলোচনাকালে স্পীকার বলেন, সহিংসতা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। এটা কোন গণতান্ত্রিক দেশ মেনে নিতে পারে না। এ সময় তারা দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

আইনমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক ॥ দেশে চলমান রাজনৈতিক সহিংসতার ঘটনায় ‘সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল’ গঠন করবে সরকার। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক এ কথা জানান। তিনি আরও বলেন, ট্রাইব্যুনাল গঠন না হওয়া পর্যন্ত সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলার বিচার হবে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মামলাগুলো যথাসময়ে নিষ্পত্তির জন্য আইন মন্ত্রণালয় থেকে জেলা ও দায়রা জজের কাছে একটি পত্র দেয়া হয়েছে।

আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক এর আগে ইউরোপীয় পার্লামেন্টারি দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, চলমান সহিংসতার ঘটনায় বিচারের জন্য সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল নেই। তাই এসব ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হচ্ছে। চলমান এসব সহিংসতার বিচার প্রচলিত আইনেও করা সম্ভব। যতদিন ট্রাইব্যুনাল গঠন করা না হয় ততদিন প্রচলিত আইনেই বিচার করা হবে। সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলার বিচার করবেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ। বহু মামলার তদন্ত এখনও শেষ হয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, যেগুলোর তদন্ত শেষ হয়েছে, ওই মামলাগুলো আদালতে গেলেই বিচারকাজ শুরু হবে।

মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক ॥ বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্ট প্রতিনিধি দল। বৃহস্পতিবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের কাছে এ কথা জানান তাঁরা। এছাড়া ইপি প্রতিনিধি দলের প্রধান ক্রিশ্চিয়ান দান প্রেদা সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আমরা অবশ্যই উদ্বিগ্ন। আমরা এজন্যই বাংলাদেশে এসেছি।তিনি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের দেয়া বক্তব্যের বিষয়ে ভিন্নমত প্রকাশ করেন। এ সময় প্রতিনিধি দলের হাতে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যসংবলিত একটি ইংরেজী দৈনিকের কপি দেখতে পাওয়া যায়। বুধবার ইইউ পার্লামেন্ট প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে দেখা করার পর উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি জানান, মানবাধিকার বিষয়ে ইইউ পার্লামেন্ট প্রতিনিধি দলের বিন্দুমাত্র উদ্বেগ নেই।

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২০/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: