মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আগামী ৫ বছরে জিডিপির এক শতাংশ আসবে তথ্যপ্রযুক্তি খাত থেকে ॥ জয়

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) এক শতাংশ তথ্য প্রযুক্তি খাত থেকে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৫’ এর দ্বিতীয় দিনে মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে উপস্থাপিত প্রবন্ধে এই আশার কথা জানান তিনি।

‘তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওই প্রবন্ধে সরকারের প্রতিশ্রুতি এবং তা বাস্তবায়নে নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, যখন বাংলাদেশের কোন খাতে ডিজিটালাইজেশন চালু হয়নি, তখন আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়েছি। এক সময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলা হতো। এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ির দেশ নেই। এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ।

জয় বলেন, ৫ বছরে পর আইটি খাতের রফতানি আয় হবে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, আইটি প্রফেশনাল তৈরি হবে ১ মিলিয়ন, প্রতিবছর ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এক কোটি বাড়বে এবং আইসিটি খাত থেকে জিডিপিতে অবদান থাকবে ১ শতাংশ।

নবম সংসদ নির্বাচনের আগে নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণের চিত্র তুলে ধরে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ২০০৮ সালে বাংলাদেশে দারিদ্র্যের হার ছিল ৪০ শতাংশ, ২০১৪ সালে তা ২৬ শতাংশে নেমে এসেছে। স্বাক্ষরতার হার ৪৯ থেকে ৬৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে, বিদ্যুতের আওতা ২৭ থেকে বেড়ে ৬২ শতাংশ হয়েছে, ইন্টারনেট গ্রাহক শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ২৭ শতাংশ হয়েছে, মোবাইল গ্রাহক ২০ মিলিয়ন থেকে ১২০ মিলিয়নে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে জনসংখ্যার ৬৫ শতাংশের বয়স ২৫ বছরের নিচে। এরা তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে প্রচ- আগ্রহী। আইটি ফ্রি ল্যান্সিংয়ের হার বাড়ছে দ্রুত। ১০ হাজারের বেশি আইটি স্নাতক বের হচ্ছে প্রতিবছর।

বাংলাদেশে প্রযুক্তিখাতে বিকাশের সুবিধার্থে কর অবকাশ সীমা ৩ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করার প্রস্তাব করেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তবে, তিনি তার বক্তব্যে এ বিষয়ে কিছু বলেননি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর আতিউর রহমানের সঞ্চালনায় ‘ডিজিটাল ইকোনমি : অপরচুনিটি এ্যান্ড চ্যালেঞ্জেস’ শীর্ষক মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের মহাসচিব হাওলিন ঝাও, ভুটানের আইসিটিমন্ত্রী ডি এন ডানগাযেল, নেপালের মন্ত্রী মিনেন্দ্র প্রসাদ রিজা ও মালদ্বীপের মন্ত্রী আহমেদ আদিম উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১১/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অন্য খবর



ব্রেকিং নিউজ: