কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সাড়ে ৪ ঘণ্টার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • সিডনি থেকে মেলবোর্নে হেলিকপ্টারে যাবেন মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হতে আর ৬ দিন বাকি। তবে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে দুই দিন আগে ১২ ফেব্রুয়ারি। একসঙ্গে যৌথ দুই আয়োজক অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে ও নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে হবে এ জমকালো অনুষ্ঠান। সাড়ে চার ঘণ্টার এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে, সে দিনই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচ রয়েছে। তাই বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া নিয়ে শঙ্কা ছিল। কিন্তু সেই শঙ্কা দূর হয়ে গেছে। আইসিসি হেলিকপ্টার দিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ শেষ হতেই যথাসময়ে সিডনি থেকে মেলবোর্নে হেলিকপ্টারে উড়িয়ে আনবে মাশরাফিকে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার সুযোগ করে দেবে।

স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত টানা সাড়ে ৪ ঘণ্টাব্যাপী চলবে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য স্টেডিয়ামের গেট খুল দেবে আয়োজকরা। ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দিয়ে ক্রিকেট বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। ৪ বছর পর ফিরেছে ক্রিকেটের মহারণ। উপমহাদেশের মতো ক্রিকেট উন্মাদনা না থাকলেও জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে প্রস্তুত হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ও নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ। মেলবোর্নের সিডনি মায়ার মিউজিক বৌল এবং নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে একই সময়ে বিশ্বকাপের উদ্বোধন করবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। মেলবোর্নে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী খেলোয়াড় এবং কিংবদন্তিদের নিয়ে চমকপ্রদ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে আইসিসি। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে থাকবে চোখ ধাঁধানো আতশবাজি এবং লেজার শো।

ক্রাইস্টচার্চে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দিয়ে নিজেদের বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরতে চায় নিউজিল্যান্ড। সেখানে সঙ্গীত তারকা সলথ্রিমি গেনি ব্ল্যাকমোর ও হেইলি ওয়েস্টানরা গান গাইবেন। আলোর বহুমুখী ব্যবহারে আলোকিত হবে চারদিক। নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আতশবাজির অনুষ্ঠানও হবে এটি। নিউজিল্যান্ডের স্যার রিচার্ড হ্যাডলি, স্টিফেন ফ্লেমিং, ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের মতো ক্রিকেট গ্রেটরাও থাকবেন আয়োজনে।

মেলবোর্নের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফিও। শুধু মাশরাফি নয়, বাকি ১৩ দলের অধিনায়কও যোগ দেবেন মেলবোর্নের অনুষ্ঠানে। মেলবোর্ন অনুষ্ঠানে বর্তমান বিশ্বকাপের ক্রিকেটাররা থাকবেন। তাদের সঙ্গে থাকবেন অস্ট্রেলিয়ার লিজেন্ড সব ক্রিকেটাররা। মেলবোর্ন মাতাবেন অস্ট্রেলিয়ার জনপ্রিয় শিল্পী জেসিকা। সদ্য অস্ট্রেলিয়ার আইডল বিজয়ী বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মাতাবেন এবং মনোমুগ্ধকর করবেন এমনটাই আশা আয়োজকদের। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের ২৩ বছর পর বিশ্বকাপ আয়োজন করার বিষয়টিকে স্মরণীয় করে রাখতে থাকছে আরও অনেক কিছু। চোখ ধাঁধানো আতশবাজি, লেজার শো, রং-বেরংয়ের আলোর পসরায় কয়েক ঘণ্টা মুখর হয়ে থাকবে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব।

ওইদিন সকালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিডনির ব্ল্যাকটাউনের অলিম্পিক পার্ক ওভালে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে আয়ারল্যান্ডের অধিনায়ক পোর্টার ফিল্ডের সঙ্গে মাশরাফি উড়ে যাবেন মেলবোর্নে। সিডনি থেকে মেলবোর্নের অনুষ্ঠান স্থলের দূরত্ব এক ঘণ্টা ২৫ মিনিটের। এ সময় মাশরাফি ও পোর্টার ফিল্ডের সঙ্গে থাকতে পারেন স্কটল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়কও। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টাচার্চে উদ্বোধন অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস, স্কাই স্পোটর্স। অন্যদিকে, মেলবোর্নের সিডনি মায়ার মিউজিক বৌলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্প্রচার করবে ফক্স স্পোর্টস, নাইন নেটওয়ার্ক।

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৮/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: