কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ম্যাককুলামই সম্ভাব্য ‘ড্যাশিং ক্যাপ্টেন’!

প্রকাশিত : ২৯ জানুয়ারী ২০১৫
  • বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগের দিন ড্যানিয়েল ভেট্টোরি বলেছিলেন, ‘ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের নেতৃত্বে নিউজিল্যান্ড এবার দারুণ কিছু করবে। সেটা হতে পারে শিরোপা জয়।’ তাতে বাড়তি মাত্রা যোগ করলেন ক্রেইগ ম্যাকমিলান। দেশটির সাবেক তারকা এখন ব্যাটিং কোচ। অভিজ্ঞতা ও কাছে থেকে দেখা জানিয়ে দিলেন ব্যাটিং এবং নেতৃত্ব- দুই ভূমিকায় বিশ্বকাপে ঝড় তুলতে যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। ক্রেইগের ভাষায়, ‘বিশ্বকাপে ম্যাককুলামই হবেন ড্যাশিং ক্যাপ্টেন।’ শ্রেষ্ঠতের আয়োজন নিয়ে দারুণ রকমের আশাবাদী তিনি।

‘ঘরের মাটিতে বিশ্বকাপ নিয়ে রোমাঞ্চিত সবাই। সাম্প্রতিক সাফল্য, আক্রমণাত্মক মনোভাব, সামনে থেকে ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের নেতৃত্ব এসব কিছুই আমাদের সেই রোমাঞ্চ আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে! ভাল লাগছে সবাই এবার নিউজিল্যান্ডকে ফেবারিট হিসেবে দেখছে। অতীতে কয়েকটি আসরে নকআউট থেকে বিদায় নেয়ার আক্ষেপ ঘোচানোর সামর্থ্য রয়েছে এবারের দলটির। মূল আয়োজনের জন্য উদগ্রীব হয়ে আছি।’ বলেন ম্যাকমিলান। কেন ম্যাককুলাম ভয়ঙ্কর অধিনায়ক হিসেবে আবির্ভূত হবেন? তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিটি দলের দিকে তাকালেই দেখবেন, বাড়তি চাপ থেকে দলগুলোর অধিনায়ক ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলা থেকে বিরত থাকছেন, ওয়ানডের সেরা আসরে বিষয়টিকে আমি নেতিবাচকভাবেই দেখব। কিন্তু ম্যাককুলামের মধ্যে ওই রকম মনোভাব নেই। ব্যাটিংয়ের সময় নেতৃত্বের বিষয়টি ওর মাথায় থাকে না! নিজের স্বাভাবিক খেলা খেলতে পছন্দ করে। বর্তমান অধিনায়কদের মধ্যে সেই সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলে থাকে। সব মিলিয়ে আসন্ন বিশ্বকাপের ম্যাককুলামই হতে যাচ্ছে ড্যাশিং-ক্যাপ্টেন।’

অতীত পরিসংখ্যান, বর্তমান সাফল্য, ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত নৈপুণ্য, আঙ্গিনায় আয়োজনÑ সব মিলিয়ে আসন্ন বিশ্বকাপ নিয়ে রোমাঞ্চিত কিউইরা। গত সপ্তাহে সাবেক অধিনাযক স্টিফেন ফ্লেমিং বলেছিলেন, এই দলটির সামর্থ্য রয়েছে বিশ্বকাপ জয় করার। একমত পোষণ করেছেন ভেট্টোরি। এবার স্বপ্নের আকাশে আশার ফানুস ওড়াচ্ছেন কোচ। মূল কারণ একটাই। টেস্ট-ওয়ানডে দুই ঘারনাতেই এ মৌসুমে অসাধারণ ক্রিকেট খেলেছে ব্ল্যাক ক্যাপসবাহিনী। অনেকটা অবিশ্বাস্য বলেই অভিহীত করা যায়। গত এক বছরে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার মতো তিনটি বড় দলকে টেস্টে নাকানি-চুবানি খাইয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে দুই ধাপ এগিয়ে এখন পঞ্চম স্থানে মার্টিন ক্রোর উত্তরসূরিরা। টিম সাউদি-ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের মতো একাধিক গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় ছাড়াই আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে কেন উইলিয়ামসনের নেতৃত্বাধীন কিউইরা।

অসাধারণ কম্বিনেশন ও উন্নতির সে ধারা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও অব্যাহত। টেস্টের পর এক ম্যাচ হাতে রেখে ওয়ানডেতেও টি২০’র চ্যাম্পিয়নদের নাস্তানাবুদ করেছে কিউইরা। ইতোমধ্যে সিরিজ জিতে নিয়েছে ৪-১ ব্যবধানে। এ পর্যন্ত সেরা পাঁচ রান সংগ্রাহকের তিনজনই নিউজিল্যান্ডের। কেন উইলামসন, লুক রনকি ও ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম। টেস্ট সিরজে সর্বোচ্চ রান উইলিয়ামসন-ম্যাককুলামের। ৫১ ও ১১৭ রানের দুরন্ত দুই ইনিংস দিয়ে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করা অধিনায়ক অবশ্য ডুনেডিনের শেষ ম্যাচে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন। টানা খেলার মধ্যে থাকা ম্যাককুলামকে শেষ ম্যাচে আজ বিশ্রামে রাখা হতে পারে। তেমন ইঙ্গিত দিয়ে ব্যাটিং কোচ ক্রেইগ বলেন, ‘অধিনায়ক ম্যাককুলাম আমাদের সেরা ব্যাটসম্যানও। বিশ্বকাপের আগে আরও একটু বিশ্রাম পেলে মন্দ হয় না। ইতোমধ্যে সিরিজ নিশ্চিত হয়ে গেছে। এই সুযোগে আমরা অন্য কাউকে যাচাই করে নিতে পারব। সবাই রান করার জন্য মুখিয়ে আছে। পঞ্চম ওযানডেতে রনকি আর গ্রান্ট ইলিয়ট যেমন রেকর্ড-সেঞ্চুরিতে জাত চিনিয়েছে। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপ সামনে রেখে দল নিয়ে দারুণ রকমের সন্তুষ্ট আমরা। তবে আত্মতুষ্টিতে ভোগার সুযোগ নেই। কারণ বিশ্বশ্রেষ্ঠত্বের লড়াই হাজির হবে সম্পূর্ণ নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে। ছেলেরা সেই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত।’

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ১১তম বিশ্বকাপে এবার সহ-আয়োজক নিউজিল্যান্ড। ১৪ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধনী ম্যাচে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলবে কিউইরা। গ্রুপের অপর দলগুলো হচ্ছে বড় শক্তি অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যন্ড। আছে বাংলাদেশ, স্কটল্যান্ড আর আফগানিস্তানও।

প্রকাশিত : ২৯ জানুয়ারী ২০১৫

২৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: