মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে বিএনপি ॥ নাস

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সারাদেশে চোরাগোপ্তা হামলার জন্য বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে দায়ী করে বলেছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য খালেদা জিয়া নারকীয় মানুষ হত্যাসহ সারাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে এবার উনি চূড়ান্তভাবে পরাজিত হবেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। সারাদেশে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং সন্ত্রাসবিরোধী কমিটি পুনর্গঠনের লক্ষ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, বিএনপি-জামায়াত জোটের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে ১৭ জানুয়ারি রংপুরের মিঠাপুকুর এবং ১৮ জানুয়ারি গাইবান্ধা পলাশবাড়ীতে জনসভা করবে কেন্দ্রীয় ১৪ দল। এছাড়াও ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, চোরাগোপ্তা বোমা হামলা ও জঙ্গী নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের বিপক্ষে ১৪ দলের উদ্যোগে গণসংযোগ, পথযাত্রা, শান্তি মিছিল এবং শান্তি সমাবেশের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, মঙ্গলবার রাতে রংপুরের মিঠাপুকুরে ঢাকা অভিমুখী একটি বাসে বিএনপি-জামায়াত জোটের সন্ত্রাসীরা আগুন দিয়ে ৫ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে। আমরা মিঠাপুকুরে সেই স্থানে জনসভা করব। মিঠাপুকুরে ঘটনাকে বর্বরোচিত ও নজিরবিহীন আখ্যায়িত করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, খালেদা জিয়ার নির্দেশেই এই হামলা চালাচ্ছে জামায়াত শিবিরের সন্ত্রাসীরা। সারাদেশে সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির ফরম্যাট কেমন হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের দেশব্যাপী নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে জনপ্রতিরোধ গড়ে তুলবে। ১৪ দলের স্থানীয় নেতাদের জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত করে এই কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটি সন্ত্রাস বোমাবাজি প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করবে। তিনি বলেন, এর আগে যেখানে এসব কমিটি বাদ গেছে সেখানেও এবার করা হবে। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকেও এসব কমিটিতে স্থান দেয়া হবে। তিনি বলেন, এর আগে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনকে প্রতিহত করার জন্য এই ধরনের হত্যাকা- শুরু করেছিল বিএনপি-জামায়াত। তখনও খালেদা জিয়ার নির্দেশেই এই হত্যাকা- সংঘটিত হয়েছে।

মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরিফ নুরুল আম্বিয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) প্রেসিডিয়াম সদস্য আবু সাইদ খান, এম সালাহউদ্দিন আহমেদ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা প্রমুখ।

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫

১৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: