আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেসিকে পেতে চেলসির বাধা উয়েফার নীতি!

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আবদারটা লিওনেল মেসিরই সাবেক সতীর্থ চেস ফেব্রিগাসের। ‘মেসিকে চেলসিতে পেতে চাই’ বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়ে দেন তিনি। আর প্রিয় শিষ্যের এমন প্রস্তাবে একটু হলেও হৃদয় গলে কোচ জোশে মরিনহোর। মেসির মতো বিশ্বফুটবলের সেরা তারকাকে পাওয়ার আগ্রহ তারও আছে। তাই ফেব্রেগাসের করা মন্তব্যের একদিন পরই মুখ খুললেন সাবেক রিয়াল মাদ্রিদের এই অভিজ্ঞ কোচ। তবে মূলত উয়েফার ‘ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’ নীতির কারণেই লিওনেল মেসিকে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে নিতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন জোশে মরিনহো।

২০১১ সালে এই উয়েফার ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে নীতিটি কার্যকর হয়। এই নীতির মূল কথা হলো ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন। আর এই নীতির কারণেই মেসিকে চেলসিতে কেনার কোন সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন মরিনহো। এ বিষয়ে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘না, তার (মেসিকে কেনার) কোন সুযোগ নেই। কারণ এই মুহূর্তে ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’র নিয়ম আছে। আর এ জন্য আমাদের কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হয়। আর এ কারণেই মেসিকে কেনার মতো আমাদের কোন শর্ত নেই। কারণ আপনারা যেহেতু সে ‘সুপার বিস্ময়কর খেলোয়াড়’ তাই তাকে পেতে সুপার বিস্ময়কর পরিমাণ অর্থও পরিশোধ করতে হবে।’

বিশ্বফুটবলের বিস্ময়। অসাধারণ সব কীর্তিতে গাথা লিওনেল মেসির নাম। স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সিলোনার যুব একাডেমিতে শুরু করেছিলেন তিনি। এরপর আর কখনই পেছনের দিকে ফিরে তাকাতে হয়নি বার্সিলোনার এই আর্জেন্টাইন তারকাকে। বিশেষ করে পেপ গার্ডিওলার সময়কালে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিয়েছেন মেসি। আর গার্ডিওলার পরবর্তী সময়টা বার্সার মোটেই ভাল কাটেনি। প্রশ্ন উঠে খোদ মেসির পারফর্মেন্স নিয়েও। যে কারণে গত নবেম্বরে বার্সিলোনা ছেড়ে দেবেন বলে মন্তব্য করেন মেসি। আর তাতেই ঝড় উঠে বিশ্ব ফুটবলে। সে কারণেই আর্জেন্টাইন যাদুকরের সতীর্থ চেস ফেব্রিগাস স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে মেসির সঙ্গে একত্রে খেলার কথার ইচ্ছা জানান। রিয়াল মাদ্রিদে থাকার সময় মেসিকে খুব কাছে থেকেই দেখেছেন মরিনহো। তাই তার সম্পর্কে ধারণাটাও ইতিবাচক। কিন্তু নিয়মের গ্যারাকলে পরে মেসিকে পেতে পারছেন না বলে দাবি করছেন তিনি।

তবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে চেলসির হয়ে দ্বিতীয় অধ্যায়টা দারুণ কাটছে মরিনহোর। মৌসুমের প্রথম ১৭ ম্যাচে ১৩ জয় আর তিন ম্যাচে ড্র করেছে তার দল। হার মাত্র একটিতে। যে কারণে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে লীগ টেবিলে সবার উপরে অবস্থান করছে চেলসি। শেষ ম্যাচে স্টোক সিটির বিপক্ষেও দারুণ জয় (২-০) পেয়েছে তার দল। আর এমন জয়ে শিষ্যদের পারফর্মেন্সের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন তিনি। এ বিষয়ে স্পেশাল ওয়ান খ্যাত মরিনহো বলেন, ‘স্টোক সিটির বিপক্ষে জয় মানেই দুর্দান্ত কিছু। এটাকে শুধু তিন পয়েন্ট লাভ বললেই হবে না। কারণ এখানে যে শুধু জেতাটা কঠিন তা নয়, এখানে জিততে হলে আপনার বিশেষ গুণাবলী প্রয়োজন।’ এর কারণটাও ব্যাখ্যা করলেন বিশ্বফুটবলের অন্যতম সেরা এই কোচ। তিনি বলেন, ‘স্টোক সিটির খেলোয়াড়রা সবসময়ই একটা দল হিসেবে খেলে। তারা খুবই সাংগঠনিক। কঠিন স্টাইলের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিয়েছে। আমাদের সৃষ্টিশীল খেলোয়াড়রা তাদের নিয়ে মোটেই ভীত ছিল না। এছাড়া আমাদের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের পারফর্মেন্সও ছিল বেশ ভাল। দারুণ একটা দল হিসেবেই কেবল স্টোক সিটির বিপক্ষে জয় পাওয়া যায়।’

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: