রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজশাহীতে পুলিশের নির্যাতনের শিকার দুই ভাই

প্রকাশিত : ৪ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ থানায় জিডি করতে গিয়ে পুলিশী নির্যাতনের শিকার হয়েছে বেসরকারী ভার্সিটিতে পড়ুয়া দুই ভাই। তাঁদের নগ্ন করে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার রাতে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নির্যাতন করেই ক্ষান্ত হয়নি। একটি ছিনতাই মামলায় তাঁদের কোর্টেও চালান করা হয়েছে। আদালত থেকে জামিন নিয়ে তাঁরা এখন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শারীরিকভাবে আহত হওয়ার পাশাপাশি তাঁরা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। আহতরা হলেন, রাজেদুল হাসান রাজ (২৬) ও তার ভাই শহিদুল হাসান শাহী (২৬)। তাঁরা মহানগরীর সাধুর মোড় এলাকার মর্ত্তুজা আলীর ছেলে।

নির্যাতনের শিকার দুই ভাই জানান, তাঁরা নর্দান ইউনিভার্সিটির রাজশাহী শাখায় আইন বিষয়ে তৃতীয় সেমিস্টারের ছাত্র। ভার্সিটির পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে তাঁরা থানায় জিডি করতে গেলে এ নির্যাতনের শিকার হন। তাঁরা অভিযোগ করেন, ডিউটি অফিসার তাঁদের থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মনিরের কাছে পাঠায়। তাঁরা এসআই মনিরের মনিরের সঙ্গে দেখা করতে যায়। এ সময় তার কক্ষে ঢুকে জিডির বিষয়টি অবহিত করেন। কিন্তু এসআই মনির জিডির বিষয়টি সম্পর্কে কোন কথা জিজ্ঞাসা করার আগেই তাঁদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাঁদের হাতকড়া পরিয়ে দেয়া হয়। এ সময় এসআই আমিরুলসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা তাঁদের উলঙ্গ করে মুখে কালো কাপড় পরিয়ে হাত-পা বেঁধে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেয়। পরে লাঠি ও জিআই পাইপ দিয়ে বেধড়ক পেটায়। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে জোর করে সম্প্রতি মহানগরীর দেবিশিংপাড়ায় ঘটে যাওয়া ছিনতাইয়ের ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার ব্যাপারে স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করা হয়।

নির্যাতনের শিকার দুই ভাই আরও জানান, স্বীকারোক্তি না দেয়ায় তাঁদের ওপরে নেমে আসে আরও অমানবিক নির্যাতন। এরপর তাঁদের কয়েক দফায় থানার দোতলার একটি কক্ষে রেখে নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনের পর তাঁদের নগ্ন করে থানার দোতলার একটি কক্ষে সারারাত আটকিয়ে রাখা হয়। মঙ্গলবার সকালে তাঁদের অপর একটি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে চালান দেয়া হয়। তবে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (ক) আদালতের বিচারক তাদের জামিন মঞ্জুর করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার নির্দেশ দেয়। দুই ভাইকে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) খাইরুল ইসলাম বলেন, নির্যাতনের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাঁদের সামান্য শাসন করা হয়েছে মাত্র। বিভিন্ন স্থানে ছিনতাইয়ের অভিযোগে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁরা বড় মাপের সন্ত্রাসী বলে দাবি করেন তিনি।

প্রকাশিত : ৪ ডিসেম্বর ২০১৪

০৪/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: