রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

হিউজেসের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া বুধবার ম্যাকসভিলে

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪
  • এ্যাডিলেডে উদ্বোধনী টেস্ট শুরু ৯ ডিসেম্বর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পূর্বঘোষিত সূচী অনুযায়ী ব্রিসবেনে ৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার থেকে হওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া-ভারত চার ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। অকাল প্রয়াত ফিলিপ হিউজেসের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া বুধবার, তাই সেটি স্থগিত করা হয় এ নতুন সূচী অনুযায়ী দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু এ্যাডিলেড ওভালে ৯ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। আর ১৭ তারিখ ব্রিসবেনে দ্বিতীয়, ২৬ তারিখ মেলবোর্নে তৃতীয় এবং সিডনিতে চতুর্থ ও শেষ টেস্ট শুরু ৬ জানুয়ারি। সোমবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) পরিবর্তিত এই সূচী প্রকাশ করে। জন্মশহর ম্যাকসভিলে যেটি অনুষ্ঠিত হবে বুধবারা। উপস্থিত থাকবেন বিরাট কোহলিসহ সফরকারী ও স্থানীয় বর্তমান-সাবেক তারকা ক্রিকেটার। সফরকারী ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ম্যাকসভিলের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় উপস্থিত থাকবেন অধিনায়ক কোহলিসহ আরও অনেকে। থাকবেন ডিরেক্টর রবি শাস্ত্রী, কোচ ডানকান ফ্লেচার। ভারতের দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল গত শুক্রবার থেকে, হিউজেসের মৃত্যুতে সেটি বাতিল হয়ে গেছে বৃহস্পতিবার। ফলে দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু এ্যাডিলেডে চলছে অতিথিদের অনুশীলন। ৩০ নবেম্বর রবিবার প্রয়াত হিউজেসের ২৬তম জন্মদিনে আরও একবার শোকের সাগরে ডোবে অস্ট্রেলিয়া। ম্যাকসভিলে আয়োজন করা হয় স্মরণসভার। দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে যেখানে ক্রিকেট ম্যাচ ছিল সেখানে ম্যাচের আগে ব্যাট শুইয়ে রেখে নীরবতা পালন করা হয়। এমনকি বাচ্চাদের ম্যাচেও। আড়াই মিনিট কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। জন্মদিনেও ছিল একই দৃশ্য। শনিবার রাত ১২টা বাজার পরই সবাইকে হিউজেসের প্রতি শুভেচ্ছা জানানোর অনুরোধ করা হয়। ফেসবুক-টুইটার জুড়ে ছিল কেবলই হিউজেস স্মরণ। অধিনায়ক ক্লার্ক তাঁর টুইটারে লেখেন ‘হ্যাপি বার্থডে ব্রো। সারা জীবন তোমাকে ভালবাসব। তোমাকে ভাই হিসেবে ডাকতে পেরে আমি গর্বিত। এও জানি, তোমাকে চিরকাল মিস করব। যেখানেই থাক, তোমার জন্য শুভ জন্মদিন।’ এখনও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারেননি ক্লার্ক। তিনি আরও বলেন, ‘১২ বছরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট জীবনে এমন সাচ্চা ও বড় মনের ছেলে আমি কমই দেখেছি। অনেক সময় হয়েছে ও রান পাচ্ছে না, দল থেকে বাদ পড়েছে। তবু কোন অভিযোগ করেনি। নির্বাচকদের সামনে সব সময় মাথা নিচু করে থেকেছে। এটাই ছিল ওর নিজস্বতা।’ সঙ্গে বিষণœ বদনে অধিনায়ক যোগ করেন, ‘দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলাটাই ছিল ওর কাছে শেষ কথা। এমনকি, যখন দ্বাদশ ব্যক্তি হয়ে মাঠে ড্রিঙ্কস নিয়ে যেত, তখনও অস্ট্রেলিয়ার টুপি পরে গর্ব অনুভব করত। আমি সেটা বুঝতে পারতাম।’ গত ২৫ নবেম্বর শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে পেসার সিন এ্যাবটের বাউন্সারটা হুক করতে গিয়ে চোখ সরিয়ে নিয়েছিলেন বাঁহাতি হিউজেস। মাথা ঘুরে গিয়েছিল পেছন দিকে।

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: