কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিরোপা জিততে দৃঢ়প্রত্যয়ী শেখ জামাল ॥ প্রতিপক্ষ পুনে এফসি

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪
শিরোপা জিততে দৃঢ়প্রত্যয়ী শেখ জামাল ॥ প্রতিপক্ষ পুনে এফসি
  • কিংস কাপ ফুটবল ফাইনাল আজ

রুমেল খান ॥ আর একটি মাত্র জয়, তাহলেই ইতিহাস গড়বে শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেড। আজ মঙ্গলবার ভুটানের চানগ্লিমিথাং স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় অভীষ্ট লক্ষ্য পূরণের জন্য ভারতীয় দল পুনে ফুটবল ক্লাবকে হারাতে হবে বাংলাদেশী ক্লাব জামালের। তাহলেই লেখা যাবে ‘কিংস কাপ’-এর ইতিহাসে শেখ জামাল প্রথম কোন বাংলাদেশী ক্লাব হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। যে কোন টুর্নামেন্টেই এবারই প্রথম পুনে এফসির মুখোমুখি হচ্ছে জামাল।

রবিবার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কলকাতা মোহনবাগান ক্লাবকে সাডেন ডেথে ৬-৫ গোলে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে পুনে এফসি। আর প্রথম সেমিতে নেপালের মানাং মার্শিংয়াদী ক্লাবকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালের টিকেট পায় শেখ জামাল। মজার ব্যাপারÑ এই টুর্নামেন্টে কিন্তু খেলারই কথা ছিল না পুনের! থাইল্যান্ডের ওসোতস্পা ক্লাব টুর্নামেন্ট শুরুর আগে নাম প্রত্যাহার করে নেয়। তখন তাদের পরিবর্তে খেলার সুযোগ পায় পুনে। এই টুর্নামেন্টে এবারই প্রথম অংশ নিচ্ছে জামাল। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যেই ভুটান গেছে তারা। প্রথমবার অংশ নিয়েই একের পর এক সাফল্য উপহার দিয়েছে মনজুর কাদেরের দল। সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছতে বাকি আর মাত্র একটি সিঁড়ি। সেটি সফলভাবেই পার হতে পারবে বলে বিশ্বাস জামালের ম্যানেজার আনোয়ারুল করিম হেলালের, ‘এই টুর্নামেন্টে জামাল যে ধরনের খেলা খেলে এ পর্যন্ত এসেছে সেটি ধরে রাখতে পারলেই চ্যাম্পিয়ন হওয়া সম্ভব।’ এই টুর্নামেন্টে যখন অংশ নেয়, তখন জামালের টাগের্ট ছিল দুটিÑ কঠিন প্রতিপক্ষ মোহনবাগানকে হারানো এবং শিরোপা জেতা। প্রথম টার্গেটটি পূরণ করেছে। এবার পালা দ্বিতীয় টার্গেট পূরণ করা। ‘আশা করি ছেলেরা এ বাধাটিও অতিক্রম করতে এবং দেশের মান-মর্যাদা রাখতে সক্ষম হবে। ফাইনালে জিতলে ছেলেদের জন্য সারপ্রাইজ অপেক্ষা করছে।’ কথাগুলো মনজুর কাদেরের। শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেডের সভাপতি, বিশিষ্ট ফুটবল সংগঠক। দলকে উজ্জীবিত করার জন্য সবকিছুই করেন। করেন না কোন কার্পণ্য।

এই টুর্নামেন্টে সেমিতে আসতে জামালের ম্যাচগুলো ছিল এ রকমÑ ভুটানের ড্রুক ইউনাইটেড ক্লাবকে ৩-০ গোলে হারায়, থাই ক্লাব নাখোন রাতচাসিং মাজদার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ও ভারতের মোহনবাগানের বিপক্ষে ৫-৩ গোলের জয়। এ টুর্নামেন্টে গত আসরে বাংলাদেশের দুই ক্লাব টিম বিজেএমসি ও আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ অংশ নিয়েছিল। দুই দলই গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়। এবার জামালের সঙ্গে ঢাকা আবাহনীও অংশ নেয় ভুটানের কিংস কাপে। তারাও বিদায় নেয় গ্রুপ পর্ব থেকে।

২০১০ সালে ধানম-ি ক্লাবটি শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব নামে আত্মপ্রকাশ করে। তারা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। ২০১৩ সালে আটবারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনীকে হারিয়ে ফেডারেশন কাপ জয় করে ক্লাবটি। ২০১০ সাল থেকে টানা চার বছর ফেডারেশন কাপের ফাইনাল খেলে তারা। দেশের বাইরে নেপালে ২০০০ সালে ক্লাব বুদ্ধ সুব্বা গোল্ডকাপ জয় করে। ২০১১ সালে নেপালে সাফাল পোখারা কাপ টুর্নামেন্টের ফাইনালে শেখ জামাল নেপাল আর্মিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। ২০১৪ সালে ভারতের কলকাতায় আইএফএ শিল্ড কাপের ফাইনালে ওঠে শেখ জামাল। ফাইনালে কলকাতা মোহামেডানের কাছে হেরে রানার্সআপ হয়। এবার কি জামাল পারবে ভুটানের মাটিতে জয়ের পতাকা ওড়াতে?

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: