কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘করতালি আর সাবাস টাইগার ধ্বনি’

প্রকাশিত : ৪ নভেম্বর ২০১৪

অমল সাহা, খুলনা অফিস ॥ চার, দুই, এক যাই হোক ব্যাটে-বলে সংযোগ হলেই করতালি আর সাবাস টাইগার সাবাস বলে গ্যালারিতে আনন্দ-উল্লাস। এভাবেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে উৎসাহ যোগাচ্ছিল খুলনার দর্শকরা। অনেক তরুণ-তরুণীর গালে শোভা পাচ্ছিল জাতীয় পতাকা, রয়েল বেঙ্গল টাইগারের ছবি। অনেকে মাথায় বেঁধেছিল প্রতীকী জাতীয় পতাকা। বাঘ-হরিণের পুতুল ছিল অনেক কিশোরের হাতে। যখন টাইগার বাহিনী ভাল খেলেছে তখনই গ্যালারি আনন্দ-উল্লাসে ফেটে পড়েছে। বাঘ (পুতুল) উঁচুতে তুলে ধরে নৃত্য করেছে। এ দৃশ্য সোমবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামের।

বাংলাদেশ ও জিম্বাবুইয়ের মধ্যে চলতি সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট সোমবার খুলনায় শুরু হয়েছে। সকালে টস জিতে স্বাগতিক বাংলাদেশ দল ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। খেলার শুরুতে স্টেডিয়ামে দর্শক কম থাকলেও বেলা ১২টার পর গ্যালারির প্রায়ই দর্শকে ভরে যায়। এ সময় আরও বহু মানুষ স্টেডিয়ামের বাইরে দেখা গেছে। প্রায় দু’বছর পর খুলনায় ক্রিকেট টেস্ট আয়োজন করায় দর্শকদের অনেক উৎসাহ লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু এবার স্টেডিয়ামে টিকেট বুথ না থাকায় ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও খেলা দেখতে পারেননি অনেকেই। স্টেডিয়ামের প্রধান গেটের বাইরে কথা হলো ডুমুরিয়ার শেখ শাহজালালের সঙ্গে। তিনি হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, ‘আগে এখানে এসেই টিকেট কিনেছি। ভেবেছিলাম এবারও স্টেডিয়াম কাউন্টারে টিকেট পাব। কিন্তু এখানে এসে দেখি কোন বুথই বসানো হয়নি।’ শাহজালালের মতো বহু মানুষ স্টেডিয়ামের বুথে টিকেট পাওয়ার আশা নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু সেখানে টিকেটের ব্যবস্থা না থাকায় হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন। খুলনায় টেস্ট ক্রিকেট আয়োজনকে ঘিরে নগরীর রাস্তা ও ডিভাইডারগুলো যেমন সুসজ্জিত করা হয় তেমনি স্টেডিয়ামের সাজসজ্জাও ছিল দৃষ্টিনন্দন। স্টেডিয়াম, ক্রিকেট দলগুলোর থাকার হোটেলসহ গোটা নগরী নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছে প্রায় সাড়ে চার হাজার সদস্য। এদের মধ্যে রয়েছে সাড়ে ৩ হাজার পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে স্টেডিয়াম এলাকায় খোলা হয়েছে দুটি ভেন্যু অপারেশন সেন্টার। এই সেন্টারের আওতায় প্রায় দেড় হাজার পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। যাদের মনিটরিং করছেন ডেপুটি পুলিশ কমিশনার পদমর্যাদার কর্মকর্তা। তাছাড়া রয়েছে র‌্যাব-৬ সদস্যরা, ২ প্লাটুন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও আনসার বাহিনী দায়িত্ব পালন করছে। র‌্যাবের পক্ষ থেকে স্টেডিয়াম এলাকায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। রয়েছে সাদা পোশাকের পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরাও। সব মিলিয়ে খুলনাকে ঢেকে দেয়া হয়েছে নিরাপত্তার চাদরে।

প্রকাশিত : ৪ নভেম্বর ২০১৪

০৪/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: