হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশীদের অর্থ বেড়েছে, কমেছে ভারতীয়দের

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশীদের টাকা ক্রমাগত বাড়ছে। তবে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতীয়দের টাকা কমছে। গত এক বছরের ব্যবধানে বাংলাদেশীদের অর্থ বেড়েছে ৪০ শতাংশ, আর ভারতীয়দের অর্থ কমেছে ১০ শতাংশ। সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৪ সাল শেষে সুইস ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশীদের ৫০ কোটি ৬০ লাখ সুইস ফ্রাঁ (৪ হাজার ৩০০ কোটি টাকা) জমা পড়েছে। ২০১৩ সালে বাংলাদেশীদের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ ছিল ৩৭ কোটি ২০ লাখ সুইস ফ্রাঁ (৩ হাজার ১৬০ কোটি)। গত ১৩ বছরের মধ্যে ২০১৪ সালেই সবচেয়ে বেশি অর্থ জমা পড়েছে।

অন্যদিকে, গত ২০১৪ সালে সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের অর্থ ১০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১.৮ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ বা ১২ হাজার ৬১৫ কোটি ভারতীয় রুপী। ২০১৪ সালের শেষে সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের গচ্ছিত অর্থ রয়েছে ১ হাজার ৭৭৬ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ অর্থাৎ ১২ হাজার ৩৫০ কোটি ভারতীয় টাকা এবং ওয়েল ম্যানেজার মারফত রয়েছে ৩৮ মিলিয়ন ফ্রাঁ।

সুইটজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রকাশিত হিসেবে দেখা যাচ্ছে, সুইস ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশী নাগরিকদের জমা রাখা অর্থের পরিমাণ এক বছরের ব্যবধানেই প্রায় ৪০ শতাংশ বেড়েছে।

বাংলাদেশের বিত্তশালীরা যে তাদের অর্থ গচ্ছিত রাখার জন্য আরও বেশি হারে সুইস ব্যাংককে বেছে নিচ্ছেন, এর জন্য অর্থনীতিবিদরা বাংলাদেশে নিরাপত্তার অভাব এবং প্রতিকূল বিনিয়োগ পরিবেশকে দায়ী করেছেন। বিশ্লেষকরা মনে করেন, দেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানে অর্থ রাখার ক্ষেত্রে নিরাপত্তাহীনতা এবং বিনিয়োগের যথাযথ পরিবেশ না থাকায় দেশের বাইরে, বিশেষ করে সুইস ব্যাংকগুলোতে গত এক বছরে বাংলাদেশ থেকে রাখা অর্থের পরিমাণ বেড়েছে।

বিশ্বব্যাংকের অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন বলেছে, ‘বিনিয়োগের পরিবেশ, নিরাপত্তাহীনতা আর টাকাটা কি পথে আয় করা হলো, তার ওপর নির্ভর করে কেন বাংলাদেশীদের জামানত সুইস ব্যাংকগুলোতে বাড়ছে। যেভাবেই টাকা আয় করা হোক, অনেক সময় বিনিয়োগের সুযোগ থাকলেও হয়ত এখানকার ব্যাংকে অর্থ রাখতে একজন নিরাপদ বোধ করছে না, সেক্ষেত্রে অর্থ দেশের বাইরে যাবার প্রবণতা তৈরি হয়।’

তিনি বলেন, রাজনৈতিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণেও সুইস ব্যাংকগুলোতে যাওয়া অর্থের পরিমাণ বেড়েছে। কেবল বাংলাদেশীদের রাখা অর্থের পরিমাণই নয়, সুইটজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে সারাবিশ্ব থেকে অর্থ জমা রাখার পরিমাণ বেড়েছে। আগের বছরের তুলনায় ২০১৪ সালে সুইস ব্যাংকগুলোতে বিদেশী গ্রাহকের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ বেড়ে দাঁডিয়েছে প্রায় দেড় হাজার কোটি সুইস ফ্রাঁ।

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫

২১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অর্থ বাণিজ্য



ব্রেকিং নিউজ: