কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উত্তেজনার ম্যাচে চেলসির জয়

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উপভোগ্য ম্যাচে দরুণ জয় পেয়েছে চেলসি। রবিবার রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের এ্যাওয়ে ম্যাচে দ্য ব্লুজরা ৩-২ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক হাল সিটিকে। চেলসির হয়ে গোলগুলো করেন- ইডেন হ্যাজার্ড, দিয়াগো কোস্টা ও লোইক রেমি। এই জয়ে শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল জোশে মরিনহোর দল। ম্যাচটি জিতে ২৯ খেলায় চেলসির পয়েন্ট সর্বোচ্চ ৬৭। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। হাল সিটির মাঠে প্রথম নয় মিনিটেই দুই গোলে এগিয়ে যায় চেলসি। কিন্তু ঘুরে দাঁড়াতে সময় নেয়নি স্বাগতিকরাও। দুই মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল করে অতিথিদের কাঁপিয়ে দেয় হাল সিটি। উত্তেজনায় ঠাসা ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় চেলসি। দিয়াগো কোস্টার বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের শটে গোলটি করেন হ্যাজার্ড। এরপর নবম মিনিটে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে গোল করে চেলসিকে ২-০ গোলে এগিয়ে নেন কোস্টা। চলমান লীগে কোস্টার এটা ১৯ নম্বর গোল। সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় টটেনহ্যাম হটস্পারের স্ট্রাইকার হ্যারি কেইনের সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে আছেন তিনি। এরপর শুরু হয় নাটকীয়তা। দুই মিনিটের ব্যবধানে ম্যাচে সমতা ফেরায় হাল সিটি। ২৬ মিনিটে ডান পায়ের শটে মিসরের মিডফিল্ডার আহমেদ এলমোহামেডি প্রথম গোলটি করেন। ২৮ মিনিটে স্বাগতিকরা দ্বিতীয় গোলটি পায় চেলসির গোলরক্ষক থিবাউট কর্টোয়ারের অমার্জনীয় ভুলে। ডিফেন্ডার ব্রানিসøাভ ইভানোভিচের ব্যাকপাস ক্লিয়ার না করে এগিয়ে আসা প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে কাটাতে গিয়েছিলেন তিনি। তাতে বল পেয়ে প্রথম শটেই লক্ষ্যভেদ করেন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার আবেল এরনান্ডেস। প্রথমার্ধের চার গোলের উত্তেজনার পর অনেকটা সময় গোলবিহীন কেটে যায়। এতে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়ে যায় চেলসি। কিন্তু ম্যাচের ৭৭ মিনিটে রেমির গোলে স্বস্তির জয় পায় চেলসি। ফরাসী এই স্ট্রাইকারের শট গোলরক্ষকের পায়ে লাগলেও বল ভেতরে প্রবেশ করে। ম্যাচ শেষে চেলসি কোচ জোশে মরিনহো বলেন, এই মুহূর্তে ছয় পয়েন্টে এগিয়ে থাকাটা আমাদের জন্য অত্যন্তু গুরুত্বপূর্ণ। আমি আশা করছি খেলোয়াড়রা ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারবে। আমরা আশাবাদী শিরোপা জিততে। এদিকে পরশু রাতে ম্যানইউর কাছে হারের ম্যাচে লালকার্ড দেখে মাঠ ছেড়ে সমালোচিত হয়েছেন লিভারপুল অধিনায়ক স্টিভেন জেরার্ড। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, ম্যাচের ৪৫ মিনিটে বদলি হিসেবে মাঠে নামার মাত্র ৩৮ সেকেন্ডের মাথায় তিনি লালকার্ড দেখেন। এরপর অনুতপ্ত জেরার্ড ভক্তদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন।

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

২৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: