মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এই গরমে সাজসজ্জা

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
এই গরমে সাজসজ্জা
  • মেরীনা চৌধুরী

সৌন্দর্য রক্ষার স্বার্থে প্রতিনিয়ত নিজের যত্ন নিচ্ছেন। রূপচর্চার সঙ্গে সঙ্গে নিশ্চয়ই আপনাকে অফিসের কাজে হোক অথবা বাসার কাজে হোক বাইরে বের হতে হয়। আর আজকের নারী হওয়ার সুবাদে আপনি অসূর্যস্পর্শাও নন। অতএব রোদে ঘোরাফেরার ঝামেলা আপনার আছে। আপনার অলক্ষে, অজান্তেই প্রতিনিয়ত সূর্যের রোদের শত্রুতায় আপনার ত্বকের অপূরণী ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। অতএব প্রখর গরমেও উজ্জ্বল ও সুন্দর থাকার জন্য সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। সানস্ক্রিন আপনার ত্বককে সুরক্ষা করবে। জেনে নিন সানস্ক্রিন নিয়ে দুটো কথা।

সানস্ক্রিন কেন জরুরী

আমাদের ত্বকে এক ধরনের পিগমেন্ট থাকে যাকে বলা হয় মেলানিন। রোদে বের হলে ত্বকে বেশি পরিমাণে মেলানিন তৈরি হয়। সূর্যের রশ্মি থেকে মেলানিন ত্বককে রক্ষা করে। কিন্তু মেলানিন গাঢ় রংয়ের হওয়ায় রোদে বের হলে ত্বকের রং গাঢ় হতে শুরু করে। সূর্যের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মিও ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকারক। ডার্ক স্পট, প্যাচের সমস্যাও দেখা যায়। সানস্ক্রিন ব্যবহার করা তাই জরুরী।

কোন্ ত্বকে কী রকম সানস্ক্রিন

তৈলাক্ত ত্বকে ওয়েল ফ্রি সানস্ক্রিন আদর্শ। আর হাতের কাছে ফ্রি প্রোডাক্ট না পেলে সানস্ক্রিন লোশন লাগান, সানস্ক্রিন ক্রিম নয়।

সানস্ক্রিন ক্রিম লাগানোর আগে একফোঁটা পানি মিশিয়ে নিন। হাল্কাভাবে আপনার ত্বককে কভার করবে। সান ড্যামেজ থেকে শুষ্ক ত্বকে বলিরেখার সমস্যা, প্রিম্যাচিউর এজিংয়ের সমস্যা দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে সানস্ক্রিন ক্রিম ভাল।

ওয়াটারপ্রুফ/ওয়াটার রেজিস্ট্যান্ট

পানিতে থাকার সময়; যেমন সাঁতার কাটার সময় ব্যবহার করুন ওয়াটারপ্রুফ বা ওয়াটার রেজিস্ট্যান্ট সানস্ক্রিন। ওযাটারপ্রুফ সানস্ক্রিন পানিতে প্রায় ৮০ মিনিট পর্যন্ত ত্বককে রক্ষা করে। যেখানে ওয়াটারপ্রুফ রেজিস্ট্যান্ট ৪০ মিনিট অবধি ত্বককে রক্ষা করে।

ইউভিএ/ইউভিবি

সূর্যে ইউভিএ রশ্মি ত্বকের প্রিম্যাচিউর এজিংয়ের জন্য অনেকাংশে দায়ী। ইউভিবি রশ্মি সানবার্ন ও স্কিন ক্যান্সারের জন্য দায়ী। ইউভিএ/ইউভিবি সুরক্ষাযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

বিশেষ টিপস

* রোদে বাইরে বের হলে ‘ব্রড স্প্রেকট্রাম’ সানস্ক্রিন সব রকম ত্বকের পক্ষেই জরুরী।

*কোন সানস্ক্রিন সারাদিন ত্বককে সুরক্ষা দিতে পারে না। ওয়াটার রেজিস্ট্যান্ট সানস্ক্রিনও ২-৩ ঘণ্টা করে বারে বারে লাগন।

*যে কোন বয়সেই সানস্ক্রিন ব্যবহার করা সম্ভব। একবার ব্যবহার করা শুরু করলে ড্যামেজ অনেকটাই কমতে থাকে। অবশ্য তাতে সময় লাগতে পারে।

* রোদ কম থাকলেও পানি, বালি, বরফ, কংক্রিটের দেয়াল থেকেও ইউভিএ রশ্মি ক্ষতি করতে পারে। মেঘলা দিনেও তাই সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

*ইউভিএ ও ইউভিবি সূর্যরশ্মি থেকে ত্বককে সুরক্ষা দেয়। এমন সানস্ক্রিন বাছুন।

* বেশিরভাগ সানব্লক ক্রিম বা প্রডাক্টে ময়শ্চারাইজিংয়ের উপাদানও উপস্থিত থাকে। শুধু মুখে নয়, অন্যান্য খোলা অংশেও সানব্লক ক্রিম, সানস্ক্রিন লাগানো সমান জরুরী।

*পিঠ, ঘাড়, হাতে বিশেষ করে সানস্ক্রিন লাগান। কারণ এসব অংশে রোদের থেকে ত্বক তাড়াতাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

*রোদে বের হবার অন্তত ২০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন লাগান। আধ ঘণ্টার বেশি রোদে থাকলে আবার সানস্ক্রিন লাগান। ত্বক বেশি সেনসেটিভ হলে বা সানবার্ন হলে বেশি এসপিএফ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

* সব থেকে ভাল হয় দুপুর থেকে বেলা তিনটা অবধি রোদে বের না হলে।

*নিজের ত্বক অনুযায়ী সানস্ক্রিন বেছে নিন। কোন এসপিএফ আপনার ত্বকের পক্ষে উপযোগী ঠিকমতো জেনে নিন। সানস্ক্রিন ভাল করে ত্বকের সঙ্গে মিশিয়ে দিন।

*সানগ্লাস পরলে ক্ষতিকর ইউভিএ রশ্মি আর চোখের ক্ষতি করে না। একটু বড় সানগ্লাস পরুন যাতে চোখের চারপাশের ত্বক ঢাকা থাকে সানগ্লাসে। ফলে চোখের নিচের পাতলা ত্বক রোদের প্রভাবে আর কোঁচকায় না। অতএব রোদে বের হলেই চোখের চারপাশে ত্বক ঢাকুন সানগ্লাসে।

ছবি : আরিফ আহমেদ

মডেল : পিয়া

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: