আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের শেষ আট নিশ্চিতের লড়াই

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

জাহিদুল আলম জয় ॥ টানা তিন জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে এক পা দিয়ে রেখেছে ভারত। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা আজ নকআউট পর্ব নিশ্চিত করার ম্যাচে মাঠে নামছে। এ লক্ষ্যে ভারতের প্রতিপক্ষ বিশ্বকাপের প্রথম দুই আসরের শিরোপাধারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পার্থের ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশন (ওয়াকা) গ্রাউন্ডে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে। এটি ভারতের চতুর্থ ও উইন্ডিজের পঞ্চম ম্যাচ।

চলমান বিশ্বকাপে পুল ‘বি’ তে তিন ম্যাচের প্রতিটিতেই জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ভারত। এ কারণে উইন্ডিজকে হারাতে পারলে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই শেষ আট নিশ্চিত করবে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। অন্যদিকে চার ম্যাচে দু’টি করে ম্যাচে জয় ও হারে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এ কারণে আজকের ম্যাচটি তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। জয় পেলে শেষ আটের পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবে জেসন হোল্ডারের দল। আর হারলে নিজেদের শেষ ম্যাচ ও অন্যান্য দলের ম্যাচের ফলাফলের দিকে চেয়ে থাকতে হবে ক্যারিবীয়দের।

পার্থের ওয়াকা গ্রাউন্ডের দুঃসহ স্মৃতি নিয়েই আজ বিশ্বচ্যাম্পিয়দের বিরুদ্ধে ময়দানী যুদ্ধে নামছেন উইন্ডজি অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ২০১৩ সালের ১ ফেব্রুয়ারি এই মাঠেই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল এখনকার উইন্ডিজ অধিনায়কের। ওই ম্যাচে অসিদের কাছে উইন্ডিজের ৯ উইকেটের বিশাল হারের চেয়েও আলোচনায় ছিল ক্যারিবীয়দের মাত্র ৭০ রানে অলআউট হওয়া। যা ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বকালের তৃতীয় সর্বনিম্ন দলীয় রান। ম্যাচটিতে উইন্ডিজের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৭ রান এসেছিল অতিরিক্ত থেকে। হোল্ডার করেছিলেন ৭ রান। ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া যে একটি উইকেট হারিয়েছিল তা দখল করেছিলেন এই হোল্ডার।

সেই মাঠেই ভারতের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে ক্যারিবীয়রা। সঙ্গতকারণেই দুই বছর আগের স্মৃতি মানসপটে ভেসে উঠেছে দলটির অধিনায়কের। এ প্রসঙ্গে জেসন হোল্ডার বলেন, আবার এখানে খেলতে যাচ্ছি। এবার লক্ষ্য থাকবে আগের খারাপ স্মৃতি ভুলে ভাল কিছু করা। ২৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার আরও বলেন, আমার এখানে অভিষেক হয়েছিল। যা আমার স্বপ্নপূরণ করেছিল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আমার প্রথম ম্যাচের স্মৃতি ভোলার নয়। তা ভাল হোক আর মন্দ। ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপের মঞ্চে এবারসহ নয়বার মুখোমুখি হচ্ছে। আগের আটবারের মুখোমুখিতে ভারতের জয়ের পাল্লাই ভারি। এশিয়ার দেশটি জিতেছে চারবার। আর উইন্ডিজ জয়ের হাসি হেসেছে তিনবার। অপর ম্যাচটি ‘টাই’ হয়।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান, পরাক্রমশালী দক্ষিণ আফ্রিকা ও পুঁচকে দল সংযুক্ত আরব আমিরাতকে উড়িয়ে দিয়ে চলমান বিশ্বকাপ ক্রিকেটে টানা তিন জয় পেয়েছে ভারত। কোন ম্যাচেই প্রতিদ্বন্দ্বীরা পাত্তা পায়নি অথচ বিশ্বকাপ শুরুর আগে ভারতকে নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে দলটির সাফল্য নিয়ে অনেকেই ছিলেন সন্দিহান! কিন্তু মাঠের লড়াইয়ে সব শঙ্কা দূর করেছে ধোনি বাহিনী। এর অন্যতম কারণ বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট খেলা। ওই আসরে জয়বঞ্চিত থাকলেও ভারতের জন্য উপকারী হয়েছে বলে মনে করেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এর প্রমাণ মিলছে মাঠের লড়াইয়ে। নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ৭৬ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে মুকুট ধরে রাখার মিশন শুরু করে ভারত। ম্যাচে বিরাট কোহলির সেঞ্চুরির বদৌলতে ভারতের সংগ্রহ হয় ৭ উইকেটে ৩০০ রান। জবাবে পাকিস্তানের ইনিংস থেমে যায় মাত্র ২২৪ রানে। দ্বিতীয় ম্যাচেও প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেয় দুইবারের বিশ্বচ্যম্পিয়রা। শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকাকে পাত্তাই দেননি শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি, আজিঙ্কা রাহানে, সুরেশ রায়নারা। ভারতের ৩০৭ রানের জবাবে প্রোটিয়াদের ইনিংস গুড়িয়ে যায় মাত্র ১৭৭ রানে। আর তৃতীয় ম্যাচে সংযুক্ত আমিরাতকে ৯ উইকেটে উড়িয়ে দেয় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। আজ ক্যারিবীয়দের হারিয়ে টানা চতুর্থ জয়ের পাশাপাশি ভারত শেষ আট নিশ্চিত করতে পারে কিনা সেটাই দেখার।

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

০৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: